আমার কর্মজীবনের স্মৃতি হয়ে থাকবে উখিয়া

0
179

ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া         

উখিয়া প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি কর্তৃক আয়োজিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান তারর্  দীর্ঘ বক্তৃতায় বলেছেন, তার দায়িত্বপালনকালে উখিয়ার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ও সাংবাদিকদের যে ভ্রাতৃত্বপূর্ণ আচরণ পেয়েছেন তা কর্মজীবনের স্মৃতি হয়ে থাকবে। উপজেলা শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার ধরের সভাপতিত্বে উখিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত বিদায়ী অতিথি আরো বলেন, তিনি উখিয়ার সার্বিক পরিস্থিতিকে সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের মাধ্যমে প্রাণবন্ত করে রেখেছিলেন।

এখানে ছিল না কোনো ভেদাভেদ, ছিল না কোনো মনোমালিন্য ও কার্পণ্য। সবার প্রতি সমান ব্যবহার ও আচরণের মাধ্যমে মানুষের সেবা করার চেষ্টা করেছি। যার ফলশ্রুতিতে উখিয়ার মতো একটি রোহিঙ্গা অধ্যুষিত জনপদে কোনো প্রকার মনোমালিন্য ছাড়াই দৃশ্যমান উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি বলেন, বিশেষ করে শিক্ষকসমাজ, সাংবাদিক তথা সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা তাকে মুগ্ধ করেছে। তিনি সকলের দোয়া কামনা করে বলেন, আগামীতে যাতে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির মাধ্যমে আবারো উখিয়া তথা কক্সবাজার জেলার বৃহত্তর মানুষের সেবায় ব্রত হতে পারেন। পরিশেষে বিগত জীবনে তার ভুলত্রুুটি ও রূঢ়  আচরণে মনোক্ষুণœ না হওয়ার আহ্বান জানান।

গতকাল বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠিত বিদায় সংবর্ধনা সভায় আমন্ত্রিত অতিথির মধ্যে বক্তব্য রাখেন উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফরিদুল আলম কন্ট্রাক্টর, উখিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি সরওয়ার আলম শাহীন, উখিয়া প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি এসএম কামাল উদ্দিন, সহকারী শিক্ষা অফিসার মোক্তার আহমদ, উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাস্টার হারুন অর রশিদ নুরী, মাস্টার মোজাম্মেল হক, মাস্টার হাসান জামাল রাজু প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মেধু কুমার বড়–য়া।

এদিকে বিকেল ৪টায় উখিয়া ইউনাইটেড ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত বিদায় সংবর্ধনা সভায় ইউনাইটেড ক্লাবের সভাপতি ও উখিয়া ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি একরামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তার আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বলেন, উখিয়ার সামাজিক ও সাংস্কৃতিকসহ বিভিন্ন সংগঠনকে তিনি যথাযথ সহযোগিতা করার আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন। তার আয়ত্তে যতটুকু পেরেছেন, ততটুকু দিয়েছেন। এতে হয়তো  অনেকে খুশি হয়েছেন, আবার অনেকে বিরক্ত হয়েছেন। তথাপিও তার করার কিছু ছিল না বলে দাবি করে বলেন, সরকারি বাঁধাধরা নিয়মে তার সাধ্যমতো চেষ্টার বদৌলতে উখিয়ায় দৃশ্যমান উন্নয়নের জন্য তার দু’হাত ছিল সম্প্রসারিত।

সভায় ইউনাইটেড ক্লাবের সভাপতি একরামুল হক বলেন, উখিয়া উপজেলায় ইতিপূর্বে যে সমস্ত নির্বাহী কর্মকর্তা দায়িত ¡পালন করেছেন, তন্মধ্যে সদ্য বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের মনজয় করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি তার চাকরির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন। সভায় বক্তব্য রাখেন উখিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হোছাইন সিরাজী, বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাস্টার রফিক উদ্দিন, উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরওয়ার আলম শাহীন, অধ্যাপক মিলন কুমার বড়–য়া। সভার সঞ্চালনা করেন ফরিদুল আলম কন্ট্রাক্টর।