কৃমি নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি সফল করার তাগিদ

81

অ্যাডভোকেসি সভা

জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ (১৬-২০ মে) উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় নগরীর আন্দরকিল্লা চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অডিটরিয়ামে জেলা পর্যায়ের অ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ফাইলেরিয়াস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রমের বাস্তবায়নে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এ সভার আয়োজন করেন।
জেলা সিভিল সার্জন ও আন্দরকিল্লা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সেখ ফজলে রাব্বির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এমওডিসি ডা. মোহাম্মদ নুরুল হায়দার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আসিফ খান।
জেলা স্বাস্থ্য তত্বাবধায়ক সুজন বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অ্যাডভোকেসি সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এমওসিএস ডা. মোহাম্মদ ওয়াজেদ চৌধুরী অভি, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এস.এম জিয়াউল হায়দার হেনরী ও সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হৃষিকেশ শীল। সভায় বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা, প্রতিনিধি, শিক্ষক, স্যানিটারি পরিদর্শক, স্বাস্থ্য পরিদর্শক, স্বাস্থ্যকর্মী, মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট, ইপিআই কর্মকর্তা, পরিবার পরিকল্পনা কর্মী ও কৃমি নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে নিয়োজিত কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ১৬-২০ মে পর্যন্ত সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠিত হবে কৃমি নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি ও ক্ষুদে ডাক্তারের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম। জেলার প্রত্যেক উপজেলার ৫-১৬ বছর বয়সী প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থী, বিদ্যালয় বহির্ভূত, ঝরেপড়া পথশিশু, শ্রমজীবী শিশু ও বেদে পরিবারের শিশুসহ সকল শিশুকে ক্ষুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে এক ডোজ কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। কর্মসূচি সফল করতে গণমাধ্যমসহ সর্বত্র ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার ব্যবস্থা করা হবে। জেলা প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিগণের সাথে পরামর্শক্রমে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি সফল করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হবে। বিজ্ঞপ্তি