স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিভিন্ন স্থানে জরিমানা

0
72

লকডাউনে সরকারি নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিভিন্ন উপজেলা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করে। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ।

আনোয়ারা  :

আনোয়ারায় লকডাউনে সরকারি নির্দেশনা না মেনে দোকান খোলা রাখা, বিনা প্রয়োজনে বাইরে ঘোরাফেরা এবং মাস্ক পরিধান না করার অপরাধে দোকানিদেরসহ ১৯ জনকে ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল ৫ এপ্রিল সকাল ১১ টা থেকে ২টা পর্যন্ত  উপজেলার জয়কালী বাজার, চাতরী চৌমুহনী বাজার, বন্দর সেন্টার ও বটতলী রুস্তম হাট এলাকায়  অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ জোবায়ের আহমেদ ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হাসান চৌধুরী।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ জোবায়ের আহমেদ বলেন, প্রতিদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। লকডাউনে  সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে  দোকানপাট খোলা রাখা, বিনা প্রয়োজনে বাইরে ঘোরাফেরা এবং মাস্ক পরিধান না করার অপরাধে  মোট ১৯ জনকে ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা দন্ড প্রদান করা হয়। তিনি আরো বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতন হয়ে সরকারি নির্দেশনা প্রতিপালন করার অনুরোধ করছি। আমরা আপনাদের জরিমানা করতে চাইনা, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আপনাদের সহযোগিতা চাই।

চন্দনাইশ  :

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় চন্দনাইশে ১১ জনকে জরিমানা মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজা জেরিন। চন্দনাইশে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় সংক্রামক আইনে ১১ জনকে ৭টি মামলায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

৪ এপ্রিল দুপুরে উপজেলার গাছবাড়িয়া এলাকায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজা জেরিন তাদের ১২শ’ ৫০ টাকা জরিমানা করেন।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৭টি মামলায় এগার জনকে ১২শ’ ৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তবে জরিমানা করা আমাদের মূল উদ্দেশ্যে নয়। আমরা সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে চেষ্টা করছি। জনসচেতনার পাশাপাশি প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। চন্দনাইশ থানা পুলিশের সহযোগিতায় এ অভিযানে পথচারী, যানবাহন চালক ও সাধারণ মানুষকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহফুজা জেরিন। জনসচেতনতায় এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

রাউজান :

সরকার ঘোষিত লকডাউন চলাকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয় । রাউজান থানা পুলিশের সহায়তায় গতকাল ৫ এপ্রিল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সময়ে, রাউজান জলিল নগর বাস স্টেশন, মুন্সির ঘাটা, ফকির হাট বাজারে এই অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযান পরিচালনা কালে রাউজান জলিল নগর বাস ষ্টেশনে সড়কের উপর থেকে বাস, সিএনজি অটোরিক্সার অবৈধ পাকিং সরিয়ে দিয়ে সড়ক যানজটমুক্ত করা হয়।

লকডাউন অমান্য করে সড়কে চলাচল রত সিএনজি অটো রিক্সাকে ধরে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয় । অভিযান চলাকালে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় দুজনের কাচ থেকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

গতকাল লকডাউন চলাকালে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে সড়কে সিএনজি অটোরিক্সা চালানোর সময়ে রাউজান থানার ওসি আবদুল্ল্রাহ আল হারুনের নেতৃত্বে পুলিশ সড়ক থেকে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত সময়ে সিএনজি অটোরিক্সা ধাওয়া করে।