মাঠে সরব আওয়ামী লীগ-নিরব বিএনপি

0
218

রাউজান পৌরসভা নির্বাচন

শফিউল আলম, রাউজান :

আসন্ন রাউজান পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় হাট-বাজার, আফিসে, চায়ের দোকানে চলছে সাধারন মানুষের জল্পনা কল্পনা। রাউজান পৌরসভার মেয়র পদে কে আসছেন। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন কে পাচ্ছে। বিএনপি থেকে কোন প্রার্থী মেয়র পদে নির্বাচন করবে। আওয়ামী লীগের দলীয় মেয়র পদপ্রত্যাশী রাউজান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাউজান পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ রাউজান পৌরসভার প্রতিটি এলাকায় মতবিনিময় করে পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে সাধারন মানুষের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা চািলয়ে যাচ্ছেন। মতবিনিময় সভায় ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক সমাবেশে রাউজান পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজকে রাউজান পৌরসভার মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা। বর্তমানে জমির উদ্দিন পারভেজ রাউজান উপজেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, আমি রাউজান পৌরসভার সাধারন মানুষের দুঃসময়ে, দলের দুঃসময়ে কাজ করেছি।পৌরসভার নির্বাচনে রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে দলের মনোনয়ন পেতে চাই। আমাকে রাউজান পৌরসভার মেয়র নির্বচিত করলে রাউজান পৌরসভাকে একটি আধুনিক পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো। রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান মেয়র দেবাশীষ পালিত ও আবারো মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। রাউজান পৌরসভার মেয়র দেবাশীষ পালিত বলেন, আমি রাউজান পৌরসভার মেয়র হওয়ার পর রাউজান পৌরসভার উন্নয়নের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। আমি বর্তমান মেয়র। আমাকে গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। এবারও দলীয় মনোনয়ন দিলে আমি রাউজান পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন করবো। রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম শফিকুল ইসলাম চৌধুরীর পুত্র সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, নির্বাচনে রানা দলের মনোনয়ন পেতে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা বলেন, আসন্ন রাউজান পৌরসভা নির্বাচনে আমি একজন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। আমার বাবা রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের আমৃত্যু সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মরহুম শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বেবী আওয়ামী লীগের ত্যাগী ও পরীক্ষিত  নেতা ছিলেন। এছাড়া আমি নিজেই ছাত্র রাজনীতি থেকে দলের একজন পরীক্ষিত কর্মী। মনোনয়ন পেলে পৌরবাসীর সমর্থন নিয়ে আমার উপর সকলের আস্থার প্রতিদান দিতে আমি দৃঢ প্রতিজ্ঞ। রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে রাউজান উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য আ,স,ম ইয়াসিন মাহমুদ রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের কাছে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন।

নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির কোন কোন মেয়র প্রার্থীর তৎপরতা দেখা না গেলেও রাউজান পৌরসভা বিএনপির সাবেক আহবায়ক আবু জাফর চৌধুরী, রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র বিএনপি নেতা মরহুম কাজী আবদুল্ল্রাহ আল হাসানের পুত্র কাজী সোহেল, সেকান্দ্র হোসেন চৌধুরী, জাতীয় পাটি নেতা সাবেক চেয়ারম্যান মেজবাহউদ্দিন আকবর চৌধুরী আগামী পৌরসভার নির্বচনে রাউজান পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন করবেন বলে এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে। বিএনপি নেতা সেকান্দর হোসের চৌধুরী বলেন, দল থেকে আমাকে মনোনয়ন দিলে আমি মেয়র পদে নির্বাচন করবো। ৪৪ বর্গকিলোমিটার আয়তনের রাউজান পৌরসভা গঠিত হয় ১৯৯৮ সালে। ১৯৯৮ সালে তৎকালীন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন সমবায় মন্ত্রী পরবর্তী রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালনকারী মরহম জিল্লুর রহমান রাউজান পৌরসভার উদ্বোধন করেন। পরবর্তী ১৯৯৯ সালে রাউজান পৌরসভার নির্বাচনে রাউজান পৌরসভার বর্তমান মেয়র দেবাশীষ পালিত পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর পৌরসভার নির্বাচনে বর্তমান মেয়র আওয়ামী লীগের প্রার্থী দেবাশীষ পালিত পৌর মেয়র নিবার্চিত হন।