বিভিন্নস্থানে জলাতঙ্করোধে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

0
143

মহালছড়ি : আমাদের মহালছড়ি প্রতিনিধি জানায়, বাংলাদেশ থেকে জলাতঙ্ক নিমূর্লের লক্ষ্যে খাগড়াছড়ি জেলায় ব্যাপকহারে কুকুরের টিকাদান (এমডিভি) কার্যক্রম ২০২০ উপলে ক্ষ  মহালছড়ি উপজেলায় অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৮ ডিসেম্বর সোমবার সকাল ১১ টায় মহালছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ধনিষ্টা চাকমার সভাপতিত্বে ও স্যানিটারি ইন্সপেক্টর সুরেশ চাকমার সঞ্চালনায় এবং রবিউল ইসলামের সøাইড শো প্রদর্শন ও উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহালছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা দত্ত।আরো উপস্থিত ছিলেন মহালছড়ি উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা আফরোজ ভূঁইয়া, মহালছড়ি উপজেলার প্রাণি ও পশু সম্পদ কর্মকর্তা শ্রুতি চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এবং স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন কর্মচারী সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত কর্মসূচির আলোকে আগামী ৩১ ডিসেম্বর থেকে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্যাপক হারে মহালছড়িতে কুকুরের জলাতঙ্ক প্রতিষেধক টিকাদান কর্মসূচি চালানো হবে বলে অবহিত করা হয়। আলোচনা সভায় স্বাগত ও শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ধনিষ্টা চাকমা। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ইউএনও প্রিয়াংকা দত্ত, প্রাণি ও পশু সম্পদ কর্মকর্তা শ্রুতি চাকমা এবং জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের মধ্যে জলাতঙ্ক মুক্ত রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা শতকরা ৯০ ভাগ কমিয়ে আনা এবং ২০২২ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে জলাতঙ্ক মুক্ত করার লক্ষ্যে ২০১০ সাল থেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় এবং প্রাণিসম্পদ মন্ত্রনালয়ের যৌথ উদ্যোগে জাতীয় জলাতঙ্ক নিয়ন্ত্রন এবং নির্মূল কর্মসূচি চালু রয়েছে।

মানিকছড়ি : আমাদের মানিকছড়ি প্রতিনিধি জানায়,মানিকছড়িতে জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে ব্যাপকহারে টিকাদান কর্মসূচি পালনে অবহিতকরণ সভা গত সোমবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্বাস্থ্যঅধিদপ্তরের আয়োজনে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.রতন খীসার সভাপতিত্বে ও স্বাস্থ্য সহকারী আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় অবহিতকরণ সভায় অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তামান্না মাহমুদ, অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন,ভাইস চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম বাবুল,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ডলি চৌধুরাণী, ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, মো.আবুল কালাম আজাদ, ক্যয়জরী মহাজন, মো. শহীদুল ইসলাম মোহনসহ বিভিন্ন শ্রেণির ব্যক্তিবর্গ। উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে মোট ৪০ জন সদস্য জলাতঙ্কের ভ্যাকসিন প্রদান করবেন বলে জানান কর্তৃপক্ষ। ২০১০ সালে জলাতঙ্ক নির্মূলে কয়েকটি জেলায় কুকুরের মাঝে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু করলেও বর্তমানে দেশের ৫৬টি জেলায় এই কার্যক্রম চলছে।

আয়োজকেরা জানান, ২০২২ সালে বাংলাদেশকে শতভাগ জলাতঙ্কমুক্ত দেশ ঘোষণার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য অধিদফতর এই কর্মসূচি গ্রহন করেছে। কুকুরের মাঝে ভ্যাকসিন প্রদানে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি সবার সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।