দেশগ্রামে ব্যাপক কর্মসূচিতে ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন

0
162

আনোয়ারা : আমাদের আনোয়ারা প্রতিনিধি, পবিত্র জশনে জুলুশে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার ওষখাইন শাহ্ আলী রজা রা. আলিম মাদ্রাসার উদ্যোগে পরৈকোড়া আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের সহযোগিতায় জুলুশের বিশাল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বুধবার (২৮ অক্টোবর) উপজেলার পরৈকোড়া ওষখাইন আলী নগর দরবার শরীফের মাদ্রাসার গেইট থেকে ওই বিশাল শোভাযাত্রার বের হয়ে ইউনিয়নের বিভিন্ন পাড়া মহল্লা পদক্ষিণ করে দরবার প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। এতে ধর্মপ্রাণ মানুষেরা অংশ গ্রহণ করেন। এতে বিশেষ মোনাজাত করেন দরবারের পীরজাদা ও সাজ্জাদানশীন মোহাম্মদ ইলিয়াছ রজা ম.জি.আ, স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার পরিচালক শাহজাদা মৌ. আবদুল কাদের চাঁদ মিয়া।এসময়ে পীরজাদা ইউনুছ দরবেশ, শাহজাদা মাওলানা নেছার মিয়া, অধ্যক্ষ  আবুল মনছুর রেজভী মোহাম্মদ সেলিম, লোকমান সওদাগর, আইয়ূব মিস্ত্রি, ফেরদৌস বাবু, তৌহিদুল ইসলাম, মোহাম্মদ আরিফসহ মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ভক্তরা উপস্থিাত ছিলেন।

রাউজান : আমাদের রাউজান প্রতিনিধি জানায়।রাউজানের ঐতিহ্যবাহী উরকিরচর জনতা সংঘের তিন দিনব্যাপী ঈদে মিলাদুন্নবী(সা.) মাহফিলে ইসলামী চিন্তাবিদরা আলোচনায় যোগদিয়ে বলেছেন মুসলামনদের অনৈক্যের কারণে বিশ্বের দেশে দেশে মুসলমানরা নির্যাতিত হচ্ছে। বুকে ঈমানী শক্তি ও নবী (সা.) প্রেম জাগ্রত করে সকলেই ঐক্যবদ্ধ হলে কোনো শক্তি মুসলমানদের উপর নির্যাতন চালাতে সাহস করবে না। ঈমানি শক্তিতে ঐক্য ও নবী (সা.) প্রেমই হবে মুসলমানদের একমাত্র রক্ষা কবজ। সংগঠনের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর আলম সুমনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন সাইফ এর সঞ্চালনায় মহাফিলে দ্বিতীয় দিনে অতিথি বক্তা ছিলেন শায়খ আব্দুল মোস্তফা রাহীম আল আযহারী, মুফতি মাস্উদ রিজভী। উপস্থিত ছিলেন উরকিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল। উরকিরচর উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ৩ দিনের ঈদে মিলাদুন্নবী(সা.) এই মাহফিলের উদ্বোধন করা হয় গত ২৭ অক্টোবর। সূচনা হয় খতমে কোরআন, খতমে খাজেগান,খতমে গাউছিয়া, মিলাদ কেয়াম এর মাধ্যমে।

লোহাগাড়া : আমাদের লোহাগাড়া প্রতিনিধি জানায়,   লোহাগাড়া উপজেলার চুনতির আলহাজ্ব হযরত মাওলানা হাফজ আহামেদ শাহ্ সাহেব কর্তৃক প্রবর্তিত ১৯দিনব্যাপী সীরতুন্নবী (স.) মাহ্ফিল গত ২৯ অক্টোবর বিকেল বেলা শুরু হয়েছে। সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ মাহ্ফিল আয়োজন করা হয় সীরত ময়দানে নির্মিত মসজিদে বায়তুল্লাহ্ এর ভিতর। সীরতুন্নবী (স.) মাহ্ফিল পরিচালনা কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত এ মাহ্ফিলে প্রথম দিবসে সভাপতিত্ব করেন আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আবু বক্কর। অধিবেশনে বিভিন্ন বক্তাগণ নির্দিষ্ট আলোচ্য সূচির উপর বক্তব্য রাখেন। একই দিনে মাহ্ফিল সম্পর্কে লোহাগাড়ায় কর্মরত সাংবাদকর্মীদের সাথে এক মতবিনিময় সভা মাহ্ফিল কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এমতবিনিময় সভাপতিত্ব করেন মাহ্ফিলের মতওয়াল্লী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব হাফিজুর ইসলাম মুহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ। বক্তব্য রাখেন কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মুহাম্মদ ইসমাইল মানিক, মাওলানা মুহাম্মদ অলি উদ্দিন, লোহাগাড়া প্রেস ক্লাব সভাপতি নুরুল ইসলাম। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিটির অন্যতম সদস্য তৈয়বুল হক বেদার, আমিনুর রহমান সিদ্দিকী, কামরুল হুদা ও কাজী আরিফুল ইসলামসহ অন্যান্যরা।

ফটিকছড়ি : আমাদের ফটিকছড়ি প্রতিনিধি জানায়,ইসলামকে নিয়ে বিশ্বে  বড় ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ফ্রান্সে রাসুল (দ.) কে ব্যঙ্গ চিত্র করেছে। এটা ইসলামকে অবমাননা করা। সুন্নী মুসলমান এটা কোনদিন মানবেনা। আমাদের নবী আমাদের ঈমান। আল¬াহ ও রাসুল (দ.) শানে বেয়াদবকারীদের বিরুদ্ধে বিশ্ব ব্যাপী আন্দোলন শুরু হবে বলে মন্তব্য করেছেন সৈয়দ বাড়ি দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন পীরে তরিকত আল¬ামা সৈয়দ মসিহুদ্দৌলা (মজিআ)। তিনি বৃহস্পতিবার সকালে গাউছিয়া সমিতি বাংলাদেশের আয়োজনে বিশাল জসনে জুলুস ঈদে মিলাদুন্নাবী(দ) এ সভাপতিত্বে করছিলেন। সকাল সাড়ে ৮টায় জাফত নগরস্থা তেলপারই সৈয়দ বাড়ি দরবার শরীফের পীর আল¬ামা অধ্যক্ষ সৈয়দ শামসুল হুদা (র)র মাজার শরীফ জেয়ারতের মাধ্যমে জুলুসের সূচনা হয়। প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (দ) র রওজা মোবারকের প্রতিকৃতি এবং বিভিন্ন কলেমা সম্ভলিত ব্যানার, ফেস্টুন হাতে আগত হাজার- হাজার আশেকে রাসুল (দ), সুন্নী জনতা শে¬াগানে-শে¬াগানে পদ যাত্রা, মোটর শোভাযাত্রা নিয়ে জাফত নগরস্থা মোহাম্মদ তকিরহাটে এক পথ সভায় মিলিত হয়। সেখানে ইউনিয়ন জাফতনগর পরিষদ, গাউছিয়া কমিটি এবং তকির হাটের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দরা জুলুসকে স্বাগত জানান।

সেখান থেকে জাহানপুর হয়ে পাঁচ কিলোমিটার দূরে ধর্মপুর আজাদী বাজার চত্বরে আরেকটি পথ সভায় মিলিত হয়। সেখানে ধর্মপুর ইউনিয়ন পরিষদ, আজাদী বাজার ঈদে মিলাদুন্নবী (দ) উদযাপন কমিটি, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের নেতৃবৃন্দ জুলুসের মিছিলকে স্বাগত জানায়। পথসভা শেষে সৈয়দ বাড়ি বাগে হুদা খানকায়ে কাদেরিয়া নক্সবন্দিয়া সৈয়দিয়া প্রাঙ্গণে এসে মূল জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে হযরত মুহাম্মদ (দ) র জীবন-কর্ম, বেলায়ত, শান মান নিয়ে প্রধান অথিতির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল মান্নান।বিশেষ অথিতি ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি মাওলানা নুর মোহাম্মদ আলকাদেরী, শাহজাদা সৈয়দ তাওসীফুল হুদা, নানুপুর মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্টাতা মাওলানা হোসেন আহমদ ফারুকী, মাওলানা আবদুস শুক্কুর আনসারী, মাওলানা জসিম আল কাদেরী, জাফতনগর ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আবদুল হালিম, ধর্মপুর ইউপি চেয়ারম্যান এম এ কাইয়ুম, আজাদী বাজার ঈদে মিলাদুন্নবী (দ) উদযাপন কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আবু আহমদ সওদাগর, মোহাম্মদ তকিরহাট ব্যবসায়ী সমিতির নেতা আবু সওদাগর।গাউছিয়া সমিতির নেতা মাওলানা আলী শাহর সঞ্চালিত আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেনবাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট নেতা মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, গাউছিয়া কমিটির নেতা মাওলানা মঈনুদ্দিন কাদেরী, মাওলানা নুরুল ইসলাম রেজভী, মাওলানা জসিম উদ্দিন আবেদী, মাওলানা নঈমুল হক নঈমী, মো. ইউছুপ চৌধুরী, মঈনুল আলম, অধ্যাপক মাসুদ, আলমগীর প্রমুখ।প্রধান অতিথি মাওলানা এম এ মন্নান বলেন, বিশ্ব মুক্তির দ্রুত আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (দ) এর শুভাগমনে সারাবিশ্ব যখন জুলুসে জুলুসে ছালাতুস সালাম দিচ্ছেন। তখন ফ্রান্সে রাসুল (দ) ব্যঙ্গ চিত্র করেছে। সারা বিশ্বে প্রতিবাদের ঝঁড় উঠেছে। আমরাও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। রাসুল (দ)র শান মান রক্ষায় কারো সাথে কোন আপোস নাই।