ডাবুয়া খালের সেতুতে দুর্ভোগ লাঘব দীর্ঘদিনের

0
234

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান »

রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বৃন্দাবনপুর। হলদিয়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বৃন্দাবনপুরে পাশে রাঙামাটি জেলার কাউখালী উপজেলার ডাবুয়া পাড়া, কচু পাড়া, চৌধুরী পাড়া, বালুখালী, শুকনা ছড়ি, লক্ষীছড়ি। দুই জেলার মধ্যবর্তী স্থান দিয়ে পাহাড়ি এলাকা থেকে প্রবাহিত খরস্্েরাতা ডাবুয়া খাল। দুই জেলার বাসিন্দা প্রতিদিন ডাবুয়া খালের পানিতে নেমে পানি দিয়ে হেঁটে চরম দুর্ভোগের মধ্যে দিয়ে চলাচল করতো। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ডাবুয়া খালের পানিতে নেমে হেঁটে রাউজান উপজেলা সদর ও চট্রগ্রাম শহর, রাঙামাটি জেলা সদর কাউখালী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করতো। বর্ষার মৌসুমে প্রবল বর্ষন হলে ডাবুয়া খালে পাহাড়ি ঢলে এলাকার লোকজনের চলাচল বন্ধ হয়ে যেতো । কেউ কোন জরুরি কাজে যেতে হলে ডাবুয়া খালে সাঁতার কেটে চলাচল করতো।  দুজেলার হাজার হাজার বাসি›্দার চরম দুর্ভোগ লাঘবে পার্বত্য চট্টগ্রাম পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প-২ আওতায়  কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া চায়েরী বাজার, লক্ষীছড়ি সড়ক হতে রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের বৃন্দবনপুর শহীদ জাফর সড়কে সংযোগ স্থলে ৩ কোটি  ৫ লাখ ১৬ হাজার টাকা ব্যয়ে ডাবুয়া খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ঠিকদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স নুর সিন্ডিকেট গত ৯ জানুয়ারি ব্রিজের নির্মাণকাজ শেষ করেন। দুজেলার হাজার হাজার মানুষের চলাচলের সড়কের সংযোগস্থল ডাবুয়া খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ করায় জিপ, সিএনজি অটোরিক্সায় করে এলাকার লোকজন যাতায়াত করছেন। পাহাড়ি এলাকায় উৎপাদিত তরিতরকারি, ফল, কাঠ, বাঁশ ট্রাক ও জিপভর্তি করে পরিবাহন করছেন। চট্টগ্রাম জেলার  রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বৃন্দ্বাবনপুর  ও রাঙামাটি জেলার কাউখালী ডাবুয়া পাড়া, কচু পাড়া, চৌধুরী পাড়া, বালুখালী, শুকনাছড়ি,লক্ষীছড়ি সড়কের সংযোগস্থলে ডাবুয়া খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ হওয়ায় দুই জেলার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। দুজেলার বাসিন্দাদের মধ্যে সেতুবন্ধন  জোরদার হয়েছে।

কাউখালী উপজেলার চৌধুরী পাড়া এলাকার বাসিন্দ্বা মইসালা চৌধুরী বলেন, ব্রিজটি নির্মাণ হওয়ায় পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন হয়েছে। রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার শাহাজাহন বলেন, ডাবুয়া খালের উপর ব্রিজ নির্মাণ হওয়ায় পাহাড়ি এলাকায় উৎপাদিত তরিতরকারি, ফলবোঝাই জিপ, ট্রাকভর্তি করে স্বল্প সময়ে বাজারে নিয়ে যাচ্ছে কৃষকেরা। এলাকার সব্জি ও ফল ব্যবসায়ীরা পাহাড়ি এলাকা থেকে তরিতরকারি, ফল ক্রয় করে দ্রুত সময়ের মধ্যে রাউজান উপজেলা সদর, বেতবুনিয়া চায়েরী বাজার, কাউখালী উপজেলা সদরে বাজারে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করছে।