অত্যাধুনিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশন হচ্ছে মিরসরাইয়ে

0
172
বারইয়ারহাটে নির্মাণাধীন ফায়ার সার্ভিস স্টেশন-সুপ্রভাত

# ৫০ শতক জমিতে নির্মিত হচ্ছে স্টেশন
# ব্যয় হচ্ছে ৫ কোটি ৫৩ লাখ টাকা
# থাকবে নার্স, অ্যাম্বুলেন্স ও ডুবুরি সুবিধা
# বরাদ্দ রয়েছে ৫টি গাড়ি ও ৩০-৩৫ জন লোকবল

রাজু কুমার দে, মিরসরাই :
প্রায় ৫ লাখ মানুষের মিরসরাই উপজেলায় রয়েছে মাত্র একটি মাত্র ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। তাও সেটি দ্বিতীয় শ্রেণির। তাই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অগ্নিকান্ডসহ বিভিন্ন দূর্ঘটনা ঘটলে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খেতে হয় তাদের। অবশেষে মিরসরাই উপজেলা পাচ্ছে প্রথম শ্রেণির আধুনিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। এটি নির্মিত হচ্ছে প্রথম শ্রেণির পৌরসভা বারইয়ারহাটে। কোটি ৫৩ লাখ ৩৫ হাজার টাকায় নির্মিত ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে নার্স, অ্যাম্বুলেন্স, ডুবুরিসহ সব ধরনের সুবিধা থাকবে। জানা গেছে, উপজেলার ২টি পৌরসভা ও ১৬টি ইউনিয়নে রয়েছে মাত্র একটি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। তাও সেটি দ্বিতীয় শ্রেণির। তাই প্রয়োজনীয় সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত থাকতো মিরসরাইবাসী। উপজেলাবাসীর দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন ছিল একটি প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। অবশেষে সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌরসভায় নির্মিত হচ্ছে প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড ডিফেন্স সূত্রে জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলার বারইয়ারহাট পৌরসদর থেকে ১শ ৫০ মিটার দক্ষিণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পূর্ব পাশে প্রায় ৫০ শতক জমির উপর স্থাপিত হচ্ছে প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। শুধু প্রথম শ্রেণি নয় এটি হবে একটি মডার্ণ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। যা থেকে উপজেলাবাসী সবধরনের সেবা পাবে। থাকবে নার্স, অ্যাম্বুলেন্স ও ডুবুরিসহ সব ধরনের সুবিধা। স্থানীয়রা জানান, মিরসরাইয়ে সম্পদ ও জনসংখ্যার বিবেচনায় একটি প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু মিরসরাইয়ে স্টেশন রোডে যে ফায়ার সার্ভিস রয়েছে সেটি দ্বিতীয় শ্রেণির। ফলে সব ধরণের সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিল উপজেলাবাসী। বারইয়ারহাটে প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপিত হলে উপজেলায় অগ্নিকান্ডসহ বিভিন্ন ধরণের দূর্ঘটনার বড় ধরনের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে। সরেজমিনে প্রকল্প এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ভবনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। চলছে সংযোগ সড়ক নির্মাণের কাজ। চলছে ভবনের আস্তরের কাজ। সড়ক নির্মাণের জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রকল্প সংযোগ সড়কে বালি ফেলে ভরাট করা হচ্ছে। চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সির্ভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক আজিজুল ইসলাম জানান, মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাটে নির্মিত ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটি প্রথম শ্রেণির আধুনিক ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। এই ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে সব ধরণের সুবিধা থাকবে। আশা করা হচ্ছে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই এর নির্মাণ কাজ শেষ হয়ে যাবে। এবিষয়ে প্রকল্পটির বাস্তবায়নের দায়িত্বে থাকা গণপূর্ত বিভাগ চট্টগ্রাম-৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলি মঈনুল ইসলাম জানান, কার্যাদেশে প্রকল্পটির মেয়াদ আগামী জুনে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তবে প্রকল্পের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। বারইয়ারহাট পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন বলেন, বারইয়ারহাট পৌরবাসীসহ মিরসরাইয়ের সর্বস্তরের মানুষের স্বপ্ন ছিল একটি প্রথম শ্রেণির ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের। আমাদের প্রিয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপির সার্বিক সহযোগিতায় সেই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।