রাউজানে সরকারি জমি অবৈধ দখলে থাকবেনা

0
119

চুক্তিপত্র প্রদান অনুষ্ঠানে এমপি ফজলে করিম

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান :

রাউজানে বন বিভাগের কোন জমি অবৈধ দখলে থাকতে পারবেনা। জবর দখলে থাকা ৪শ ২০ একর জমি উদ্ধার করার পর সামাজিক বনায়নের মাধ্যমে ২শ ৭৫ জন উপকারভোগীদের চুক্তিপত্র করে বন বিভাগ। সামজিক বনায়নের চুক্তিপত্র উপকারভোগীদের হাতে প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি বলেন, সরকারি কোন জমি অবৈধ দখলে থাকতে পারবেনা। বন বিভাগের যে সব জমি অবৈধ দখলে রয়েছে তা উদ্ধার করে সামাজিক বনায়ন গড়ে তোলা হবে। চট্টগ্রাম রাঙামাটি মহাসড়কের ৪ লেইনের কাজ সম্পন্ন হওযার পর সড়কের মাঝখানের আইল্যান্ডে রাউজানের সর্তার ঘাট থেকে রাউজান রাবার বাগান পর্যন্ত ১০ হাজার খেজুরের ছারা রোপন করা হবে। জবর দখল থেকে উদ্ধার করা পাহাড়ি জমি টিলা ভুমিতে সামাজিক বনায়ন করে ২শ ৭৫ জন উপকারভোগিদের মধ্যে দেওয়া হয় । উদ্বার করা পাহাড়ি জমি টিলা ভুমিতে আরো ২শ একর সামজিক বনায়ন গড়ে তোলা হবে বলে রেলপথ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি তার বক্তব্যে বলেন। গত ২১ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরে রাউজান ঢালারমুখ বনবিভাগের অফিসের সামনে উপকারভোগীদের হাতে বন বিভাগের সাথে চুক্তি হওয়া চুক্তিপত্র প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ। রাউজান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যোন এহেসানুল হায়দার বাবুল, চট্টগ্রাম বিভাগীয় বন কমকর্তা মোজ্জামেল হক শাহ চৌধুরী, রাউজান উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি অতিশ দর্শী চাকমা, রাউজান পৌরসভার প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, ৭নম্বর রাউজান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, বাগোয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ভুপেশ বড়–য়া, নোয়াপাড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান বাবুল মিয়া অনুষ্টানে স্বাগত্ব বক্তব্য রাখেন রাউজান ঢালার মুখ বন বিভাগের স্টেশন অফিসার আবদুর রশিদ প্রমুখ ।