রাউজানে বোরো ধান রোপণের ধুম

0
133

লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি চাষের সম্ভাবনা

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান :

বর্তমান বাজারে ধান ও চালের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় কৃষকেরা তাদের ফসলী জমিতে চাষাবাদে উৎসাহ বেড়ে গেছে । শুষ্ক মৌসুমে রাউজানের সর্তা খাল, হালদা নদী, ডাবুয়া খাল, খাসখালী খাল, বেরুলিয়া খাল, কলমপতি খাল, কেউচিয়া খাল, কালচাইন্দা খাল, হাতী জোড়া খাল, কেউচিয়া খাল, লাঠিছড়ি খাল, গর্জনিয়া খাল, রাউজান খাল, মুখছড়ি খাল, রইছড়ি খাল, চিকনছড়া খাল, ভোমর ঢালা খাল, মঙ্গলছড়ি খাল, হরনাথ ছড়া খাল, ফটিকছড়ি খাল, রক্তছড়ি খাল, হৃদ খাল, কাগতিয়া খাল, মহেশখালী খাল, সোনাইর খাল, কাঠাল ভাঙ্গা খাল, কাঠাল ভাঙ্গা খাল, বাইজ্যাখালী খাল, ভ্রাম্বন ছড়ি খাল, কাগতিয়া খাল, মগদাই খাল, কর্ণফুলী নদী, উভলং খাল থেকে সেচ পাম্প বসিয়ে খাল থেকে পানি উত্তোলন করে সেচের মাধ্যমে ফসলী জমিতে বোরো ধানের চাষাবাদ করছে । এছাড়া রাউজানের কয়েকটি এলাকায় গভীর নলকূপের পানি সেচের মাধ্যমে ব্যবহার করে এলাকার কৃষকেরা জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করছে। কয়েকটি খালের উজানের পাহাড়ী এলাকা থেকে আসা পানি খালের মধ্যে মাটির বাধ দিয়ে খালের পানি দিয়ে শুস্ক মৌসুমে বোরো ধানের চাষাবাদ করছে । রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের বৃন্দাবনপুর, গলাচিপা, নন্দীর খীল, জানিপাথর, বানারস, এয়াসিন নগর, গর্জনিয়া, হলদিয়া, উত্তর সর্তা, সিংহরিয়া, ডাবুয়া ইউনিয়নের পশ্চিম ডাবুয়া, লাঠিছড়ি, পুর্ব ডাবুয়া, কেউকদাইর, সুড়ঙ্গা, রাধামাধবপুর, হিংগলা, মেলুয়া, কলমপতি দক্ষিন হিংগলা, চিকদাইর ইউনিয়নের দক্ষিন সর্তা, পাঠান পাড়া, গহিরা ইউনিয়নের দলই নগর, কোতোয়ালী ঘোনা, নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ফতেহ নগর, নদীম পুর, ইন্দিরা ঘাট, পশ্চিম ফতেহ নগর, রাউজান পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের পুর্ব রাউজান, ঢালার মুখ, কাজী পাড়া, রাউজান রাবার বাগান, পশ্চিম রাউজান, আইলী খীল, ওয়াহেদের খীল, ঢেউয়া পাড়া, শরীফ পাড়া হাজী পাড়া, ছিটিয়া পাড়া, সুলতানপুর কাজী পাড়া, পশ্চিম সুলতান পুর, পুর্ব গহিরা, দক্ষিন গহিরা, মোবারক খীল, পশ্চিম গহিরা, বিনাজুরী ইউনিয়নের ইদিলপুর, লেলাঙ্গারা, জাম্বইন, পশ্চিম বিনাজুরী, মাধ্যম বিনাজুরী, রাউজান ইউনিরয়নের পুর্ব রাউজান, রাণী পাড়া, সমশের নগর, কেউটিয়া, খলিলাবাদ, পশ্চিম রাউজান, জয়নগর বড়–য়া পাড়া, রশিদের পাড়া, পশ্চিম রাউজান, কদলপুর ইউনিয়নের কালকাতর পাড়া, সমশের পাড়া, দক্ষিন সমশের পাড়া, ভোমর পাড়্,া দক্ষিন জয়নগর, পশ্চিম কদলপুর, পাহাড়তলী ইউনিয়নের উনসত্তর পাড়া, মহামুনি, বহলপুর, দেওয়ার পুর, বদু পাড়া, খৈয়া খালী, পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের উত্তর গুজরা, আধার মানিক, বড়ঠাকুর পাড়া, সাতবাড়িয়া, হোয়ারা পাড়া, পশ্চিম আধার মানিক, পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের কাগতিয়া, ডেমখালী, মগদাই, সরকার পাড়া, বদু মুন্সি পাড়া, মীরধার পাড়া, উরকির চর ইউনিয়নের আবুল খীল, নোয়াপাড়া ইউনিয়নের কচুখাইন, উভলং, বাগোয়ান ইউনিয়নের কোয়ে পাড়া, পাচঁখাইন, গশ্চি এলাকায় ফসলী জমিতে এলাকার কৃষকেরা বোরো ধানের চারা রোপণ করার ধুম পড়েছে । গত কয়েক বছর ধরে উৎপাদন খরচের চেয়ে জমি থেকে উৎপাদিত ধানের বাজার মূল্য কম হওয়ায় এলাকার কৃষকেরা ধান ক্ষেতের চাষাবাদ করেনি । সরকার কৃষকের উৎপাদিত ধান ক্রয় করার পর থেকে ধানের ও চালের বাজার মূল্য বেশ দামে পাওয়ায় এবছর এলাকার কৃষকেরা  চাষাবাদের দিকে ঝুকে পড়েছে ।

রাউজানের দক্ষিণ হিংগলা এলাকার কৃষক আসলাম বলেন, ধানের বাজার মুল্য বেশি হওয়ায় এবছসর খাসখালী খালের সেচের পানি দিয়ে ৫ একর জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করেছি।

রাউজান উপজেলা কৃষি অফিসার শাব্বির আহম্মদ বলেন, রাউজানের ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় এ বছর শুষ্ক মৌসুমে ২ হাজার ৮৩৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারর করা হয় ।  মৌসুমের শুরু থেকে এপর্যন্ত রাউজানে উফসী জাতের বোরো ধানের চারা রোপন করা হয়েছে ২ হাজার ৩শত ৫০ হেক্টর। হাইব্রীড জাতের বোরো ধানের চারা রোপণ করা হয়েছে ৩৫০ হেক্টর ।

রাউজানে এ পর্যন্ত সর্বমোট ৭০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করেছে কৃষকেরা। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ফসলী জমিতে এবার বোরো ধানের চাষাবাদ হবে বলে আশা করছেন রাউজান উপজেলা কৃষি অফিসার শাব্বির আহম্মদ  ।