রাউজানে আমন ধান কাটা শুরু

0
231

পোকার আক্রমণ ও অকাল বৃষ্টিতে শংকায় কৃষক

শফিউল আলম, রাউজান :

রাউজানে আমন ধানের ফলন ভাল হলেও ক্ষেতে পোকার আক্রমণ ও  অকাল বৃষ্টি হওয়ায় শংকা কাটেনি কৃষকের। রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের বৃন্দ্বাবনপুর, ওয়াহেদ্যাখীল, বৃকবানপুর, জানি পাথর,গলাচিপা, বানারস, জানিপাথর, দক্ষিণ ক্ষিরাম, শিরনী বটতল, হলদিয়া, উত্তর আইলীখীল, গর্জনিয়া, উত্তর সর্তা, এয়াসিননগর, ডাবুয়া ইউনিয়নের পুর্ব ডাবুয়া,লাঠিছড়ি, পশ্চিম ডাবুয়া, রাধামাধব পুর, সুড়ঙ্গা, রামনাথ পাড়া রোয়াইঙ্গা বিল, কেইকদাইর, কান্দি পাড়া, হাসান খীল, হিংগলা, মেলুয়া, কলমপতি, দক্ষিন হিংগলা, চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়া, দক্ষিন সর্তা, গহিরা ইউনিয়নের দলই নগরে আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে। উপজেলার নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ফতেহনগর, পশ্চিম ফতেহ নগর, নদীমপুর, গহিরা ইউনিয়নের কোতেয়ালী ঘোনা, দলই নগর, বিনাজুর ইউনিয়নের বিনাজুরী, পশ্চিম বিনাজুরী, লেলাঙ্গারা, জাম্বইন, ইদিল পুর, ৭নম্বর রাউজান ইউনিয়নের মঙ্গলখালী, পশ্চিম রাউজান জারুল তলা, কদলপুর ইউনিয়নের পশ্চিম কদলপুর, পাহাড়তলী ইউনিয়নের মহামুনি, শেখ পাড়া, খৈয়াখালী, দেওয়ার পুর, বদু পাড়া, দমদমা, পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের উত্তর গুজরা, আধার মানিক, পশ্চিম আধার মানিক, বড়ঠাকুর পাড়া, পুর্ব আধারমানিকে আমন ধান পাকবে আরো একমাস পর। রাউজানের ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় আমন ধানের ফসল ভাল হলে ও আমন ধান পাকা শুরু হওয়ার পর আমন ধানে পোকার আক্রমণ ও অকাল বৃষ্টি হওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি হয়। আমন ধানের ক্ষতি হওয়ায় এলাকার কুষকেরা হতাশ হয়ে পড়েছে। রাউজান পৌরসভার পশ্চিম রাউজান এলাকার কৃষক ইউনুছ মিয়া জানান, তিনি ৪ একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করে। ৪ একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করতে কৃষক ইউনুছ মিয়ার খরচ হয় ১২ হাজার টাকা । আমন ধান পাকার সময়ে ধান ক্ষেতে পোকার আক্রমনে আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয় । আমন কাটার সময়ে অকাল বৃষ্টি হলে আমন ধান পড়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয় । পাকা আমন ধান কাটার পর বৃষ্টি হলে খাটা আমন ধান জমিতে বিছিয়ে রাখা অবস্থায় বৃষ্টির পানিতে ভিজে আমন ধানের ক্ষতি হয় । রাউজান পৌরসভার পশ্চিম রাউজান এলাকার কৃষক রতন মুহুরী ২ একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করে। ধানের ফলন ভাল হয়।  পাকা আমন ধান কাটার পর অকাল বৃষ্টি হলে জমিতে বিছিয়ে রাখা আমন ধান বৃষ্টির পানিতে ভিজে ক্ষতি হয়। রাউজান উপজেলা কৃষি বিভাগের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্ত সনজিব কুমার সুশীল জানান, ২০২০-২০২১অর্থবছরে রাউজানে আমন ধানের চাষাবাদ করা হয়েছে ১১ হাজার ৮শ ১০ হেক্টর জমিতে । তার মধ্যে হাইব্রিড জাতের আমন ধানের চাষাবাদ করা হয়েছে ১শ ৭০ হেক্টর জমিতে। স্থানীয় জাতের আমন ধানের চাষাবাদ করা হয়েছে ১শ ৯০ হেক্টর জমিতে । উফসী জাতের আমন ধানের চাষাবাদ করা হয়েছে ১১হাজার ৪শ ৫০ হেক্টর জমিতে । ৪হাজার ৭শ ২৪ হেক্টর জমিতে দুধ আসা শুরু হয়েছে। ৪ হাজার ৭শ ২৪ হেক্টর জমিতে আমন ধানের গাছে দানা বেধেছে । আধা পাকা হয়েছে ১ হাজার ১শ ৮ হেক্টর জমিতে। আমন ধান পাকা হয়েছে ৯শ ৪৫ হেক্টর জমিতে। ২শ ৩৭ হেক্টর জমি থেকে আমন ধান কেটেছে কৃষকেরা। অকাল বর্ষনে রাউজানের কিছু কিছু এলাকায় পাকা আমন ধানের ক্ষতি হয়েছে । রাউজানে ১১ হাজার ৮শ ১০ হেক্টর জমি থেকে ৫৩ হাজার মেট্রিক টন শুকনা ধান উৎপাদন হবে বলে আশা করছেন রাউজান উপজেলা উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সনজিব কুমার সুশীল ।