মিরসরাইয়ে সড়কের ইট তুলে ফেলার অভিযোগ

0
173

নিজস্ব প্রতিনিধি, মিরসরাই :

মিরসরাইয়ে পৌরসভার নির্মাণাধীন সড়ক উপড়ে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপড়ে ফেলার পর সড়কের ইটগুলো পাশে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। সম্প্রতি বারইয়ারহাট পৌরসভার ১নম্বর ওয়ার্ডের জামালপুর এলাকার হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি উত্তম শর্ম্মার বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর বারইয়ারহাট পৌরসভার একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বারইয়ারহাট পৌর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১২ বছর আগে তৎকালীন পৌর মেয়র হাজি জালাল উদ্দিন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট্রের ট্রাস্টি উত্তম শর্ম্মার বাড়ির প্রায় ২০ মিটার সড়কে ব্রিক সলিন করেন। বাড়ির ৯ পরিবারের লোকজনের অনুরোধে ঢাকা-চট্টগ্রাম পুরাতন সড়কের মাঈন উদ্দিন পেট্রোল পাম্পের পাশে অবস্থিত ওই বাড়ির সড়কে ইট বসানো হয়। কিন্তু সম্প্রতি ওই বাড়ির বিজয় শর্ম্মা নামে এক ব্যক্তি প্রায় ৫ মিটার সড়কের ইট উপড়ে ফেলে।ওই বাড়ির অপু শর্ম্মা নামে এক ব্যক্তি জানান, তাদের বাড়ির লোকজনের চলাচলের সুবিধার্থে প্রায় ১২ বছর আগে তৎকালীন মেয়র হাজি জালাল উদ্দিনের সহযোগিতায় তাদের বাড়ির সড়কে ইট বসানো হয়। কিন্তু সম্প্রতি তাদের বাড়ির বিজয় শর্ম্মা নামে এক লোক ভাঙা সড়ক সংস্কার করার কথা বলে সড়কের কিছু অংশের ইট তুলে অন্য স্থানে বসায়। এবিষয়ে বিজয় শর্মা বলেন, রাস্তার সংস্কার কাজ করানোর জন্য ইটগুলো তোলা হয়েছে। তাছাড়া যে অংশের ইট তোলা হয়েছে সেটি আমাদের বাড়ির অংশ। বর্ষাকালে ইটগুলো পিচ্ছিল হয়ে যাওয়াতে সেগুলো তোলা হয়েছে।সরেজমিনে বারইয়ারহাট পৌরসভার জামালপুর গ্রামের উত্তম শর্ম্মার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, পুকুর পাড়ে সড়কটির অবস্থান। প্রায় ৫ মিটার সড়কের ইট তুলে ফেলা হয়েছে। কিছু ইট অন্য স্থানে বসালেও সিংহভাগ সড়কের পাশে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। বারইয়ারহাট পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন জানান, পৌরসভার নির্মাণ করা সড়কের ইট তুলে ফেলা আইনগত দন্ডনীয় অপরাধ। পৌর কার্যালয়ের একটি টিম গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে।