প্রয়োজনীয় বরাদ্দের অভাবে থমকে আছে উন্নয়নকাজ

0
204

হলদিয়া মৌলভীপাড়া দাখিল মাদ্রাসা

রফিক উদ্দিন বাবুল, উখিয়া :

উখিয়া উপজেলার অবহেলিত ইউনিয়ন হলদিয়াপালং মৌলভীপাড়ার অজপাড়া গাঁয়ে ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত নারী দ্বীনি শিক্ষার অন্যতম পথপ্রদর্শক দাখিল মাদ্রাসাটি অর্থাভাবে থমকে আছে উন্নয়ন ব্যবস্থা। যার ফলে ৭ জন দক্ষ শিক্ষক থাকা সত্তে¦ও পরিবেশের অভাবে মানসম্মত পড়ালেখা হচ্ছে না বলে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জানায়। ১৯৯৭ সালের দ্বীনি শিক্ষানীতিমালা অনুযায়ী সংশ্লিস্ট মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক স্ব স্ব বোর্ডের অধীনে নতুন প্রতিষ্ঠান স্থাপনের আবেদন জমা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এর আলোকে মৌলভীপাড়া দাখিল মাদ্রাসা ১৭ জুন ২০২০ সালে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠদানের অনুমতি চেয়ে একটি আবেদন করেন।

মৌলভীপাড়া দাখিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত রাশেদুল ইসলাম জানান, এ উপজেলার অত্যন্ত গরীব অধ্যুষিত জনপদ হলদিয়ার মৌলভীপাড়ার ছেলে মেয়েরা দ্বীনি শিক্ষার প্রতি অগাধ বিশ^াস এবং তারা দ্বীনি শিক্ষাকে গ্রহণ করে এলাকায় শিক্ষার মান উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে চায়।

অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী রোজিনা আকতার জানান, এ মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত না হলে এখানকার মেয়েদের বাল্য বিয়ে হয়ে যেত। তাছাড়াও এলাকার শত শত নারী এ দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা গ্রহণ করে পরিবারের ভরণপোষণে সম্পৃক্ত হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করছে। আমাদের দাবি এ মাদ্রাসাটি সরকারি স্বীকৃতি প্রাপ্ত হোক।

এব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার বদরুল আলম জানান, উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করি অতিসহসায় পাঠদানের অনুমতি পাবে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোক্তার আহমদ জানান, অত্র মাদ্রাসাটি সরকারি স্বীকৃতি প্রাপ্তির জন্য ৬০ শতক জমি দান করা হয়েছে। প্রয়োজনবোধে এ মাদ্রাসার জন্য আরো জমি বরাদ্দ দেওয়া হবে। তবুও এ মাদ্রাসাকে পাঠদানের অনুমতি দিয়ে এমপিওভুক্ত করতে হবে।