দেশগ্রামে পূজামণ্ডপে নানা কর্মসূচি

0
173

 

 

 

চকরিয়া: আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি জানায়, চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকার অন্তত ৪৬টি পূজাম-পে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনে ঘোষনা মোতাবেক ১০ হাজার মাস্ক দিয়েছেন চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। শারদীয় দুর্গাপুজা উপলক্ষে উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সঙ্গে গতমাসে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এমপি জাফর আলম ঘোষনা দেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারদীয় উৎসব পালনে তিনি ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ১০ হাজার মাস্ক দেবেন। গত বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর চকরিয়া থানার রাস্তার মাথাস্থ সিস্টেম চকরিয়া কমপ্লেক্সে এমপির ব্যক্তিগত কার্যালয়ে চকরিয়া উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দের হাতে এসব মাস্ক তুলে দেন এমপি জাফর আলম।মাস্ক বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, সাধারণ সম্পাদক বাবলা দেবনাথ, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহনেওয়াজ তালুকদার, আহমদ রেজা, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক তপন কান্তি সুশীল, সুধাংশু বিমল সুশীল, সাংগঠনিক সম্পাদক সুধীর চন্দ্র দাশ, পৌরসভার পূজা উদযাপন কমিটি সভাপতি টিটু বসাক,সাধারণ সম্পাদক নিলু দাশ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে  চকরিয়া- পেকুয়াসহ দেশ-বিদেশের সকল হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া- পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলম জাফর আলম। তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে সারাবিশ্বে করোনা ভাইরাসের এই মহামারিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারদীয় দুর্গাপূজার আনন্দ উপভোগ করার আহ্বান জানান তিনি। হিন্দুদের সবচেয়ে বড় এ ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে  ২২ অক্টোবর গণমাধ্যমে পাঠানো শুভেচ্ছা বার্তা এই আহ্বান জানান সাংসদ।এমপি জাফর আলম বলেন, শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে  চকরিয়া-পেকুয়ার সকল হিন্দু সম্প্রদায়ের সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। তিনি বলেন, ‘বাঙালি হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। সমাজে অন্যায়, অবিচার, অশুভ ও অসুরশক্তি দমনের মাধ্যমে শান্তিপ্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এ পূজা হয়ে থাকে। আবহমানকাল ধরে এ দেশের হিন্দু সম্প্রদায় বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও উৎসবমুখর পরিবেশে নানা উপচার ও অনুষ্ঠানাদির মাধ্যমে দুর্গাপূজা পালন করে আসছে। এ উৎসব সর্বজনীন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী  শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষের নিরাপদ আবাসভূমি। শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে চকরিয়া উপজেলার ১৮ ইউনিয়ন এবং একটি পৌরসভা এলাকার ৪৬টি পূজাম-পের জন্য বরাদ্দ দেওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিলের অনুদান বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর চকরিয়া পৌরসভার চিরিঙ্গা কেন্দ্রীয় হরিমন্দির প্রাঙ্গনে বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী।চকরিয়া উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুদান বিতরণ কর্মসুচি উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধক চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ। উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবলা দেবনাথের সঞ্চালনায় অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মুহাম্মদ যোবায়ের, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টা, কক্সবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ সভাপতি সুধাম কান্তি দাশ, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হারাধন দাশ। উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া পৌরসভা পূজা উদযাপন কমিটি সভাপতি টিটু বসাক,সাধারণ সম্পাদক নিলু দাশ, বাংলাদেশ সনাতনী সেবক সংঘের সাধারণ সম্পাদক সুধীর চন্দ্র দাশ, জাতীয় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতির কক্সবাজার জেলা যুগ্ম সম্পাদক মাস্টার আশিষ বসাক, চকরিয়া উপজেলা সনাতনী সেবক সংঘের সভাপতি কৈলাশ দে, যুগ্ম সম্পাদক তপন কান্তি সুশীল, সদস্য সুধাংশু বিমল সুশীল, উপজেলা সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিন্টু রুদ্র, চিরিংগা ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীর দে, ডুলাহাজারা সভাপতি অজয় দেব, নন্দন দাশ, পৌরসভা পুজা উদযাপন পরিষদের প্রচার সম্পাদক রাজু দাশ, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য (এম ইউপি) রুপন দাশ,  নিখিল বসাক, উপজেলা সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিন্টু রুদ্র, সদস্য লিটন সুশীল, সনাতনী সেবক সংঘের উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক শ্রী নন্দন দাশ, চিরিংগা ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীর দে, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নরোত্তম দাশ, সনাতনী সেবক সংঘের, জাতীয় হিন্দু ছাত্র পরিষদ কক্সবাজার জেলা সভাপতি বিকাশ দাশ, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়া পৌরসভার সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দাশ (সুনীপ), চকরিয়া স্বর্ণ কারিগর সমিতি নেতা টিক্লু ধর ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ, মঠ মন্দিরে উন্নয়ন কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক এবং সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা ধর্ম যার যার বাংলাদেশ সবার।  এদেশে একসাথে বসবাস ও সব ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনে সকল ধর্মের মানুষের সমান অধিকার রয়েছে। আজ বিশ^দরবারে প্রমাণিত হয়েছে জননেত্রী  শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার সকলধর্মের মানুষের সবস্থানে সেতুবন্ধনে সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সফল হয়েছে।  তিনি বলেন, চকরিয়া উপজেলা একটি সম্প্রীতির জনপদ। এখানে সকল ধর্মের মানুষ একসঙ্গে নিরাপদ পরিবেশে বসবাস করে। ধর্মীয় কোন সংঘাত নেই। আশা করি আগামীতেও চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি জনপদে সম্প্রীতির ধারা অব্যাহত থাকবে। সেইজন্য ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সম্প্রীতির মেলবন্ধনে সবাই কাজ করবে।

আনোয়রা: আমাদের আনোয়ারা প্রতিনিধি জানায়,চট্টগ্রামের আনোয়ারায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের বিভিন্ন পূজা ম-পের কয়েক হাজার সনাতন ধর্মাবলম্বী নারী-পুরুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করেছেন সাবেক সাংসদ আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর একান্ত সচিব ও ইউসিবিএল ইসি চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান চৌধুরী রণির সচিব দক্ষিণ জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন চৌধুরী মুরাদ।গত শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টায় উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের বিভিন্ন পূজাম-পে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপি, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ইসি চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান চৌধুরী রণি ও পরিচালক আসিফুজ্জামান চৌধুরী জিমির পক্ষে ও তার নিজস্ব অর্থায়নে এসব বস্ত্র বিতরণ করেন। এসময়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা খোরশেদুল আলম হিরো, দক্ষিণ জেলা যুবলীগ  নেতা মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, উপজেলা যুবলীগ নেতা মান্না দে, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আসিফ, আতিক, সাকিব, মানিক, জামশেদ, রাসেল, নয়ন, জাহেদ, রেজাউল করিম, শফিউল আজম মুবিন, পূর্ব বারখাইন তরুণ সংঘ দুর্গাবাড়ি সভাপতি জোটন গুপ্ত, সহ সভাপতি সঞ্জয় দত্ত বাঁশি, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মজুমদার, অর্থ সম্পাদক জনি দত্ত, নিতাই মজুমদারসহ  সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।বোরহান উদ্দিন চৌধুরী মুরাদ বলেন, শারদীয় দুর্গাপূজায় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা যাতে উৎসব সুন্দরভাবে পালন করতে পারে সে জন্য ভূমিমন্ত্রী ও ইসি চেয়ারম্যান মহোদয়ের নির্দেশে ইউনিয়নের প্রতিটি পূজা ম-পে এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। তিনি দুর্গাপূজা উপলক্ষে  সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছাও জানান।

রাউজান: আমাদের রাউজান প্রতিনিধি জানায়, সনাতন ধর্মীয় অনুসারীদের শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে রাউজান পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র রাউজান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপির নির্দেশে প্রতিটি মন্ডপে উপস্থিত হয়ে পুজা পরিদর্শন করছেন । সনাতন ধর্মীয় অনুসারীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন। পরিদর্শনকালে তিনি মন্ডপে অর্থ সহায়তা প্রদান, মন্দির, সড়ক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি প্রদান করছেন ।পরিদর্শনকালে  আরো উপস্থিত রাউজান উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ চৌধুরী, দিপুল দে, তপন দে, উজ্জল দাশ গুপ্ত,  সহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগের নেতবৃন্দ ।

পটিয়া: আমাদের পটিয়া প্রতিনিধি জানায়, পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার হায়দার বলেছেন, দুর্গাপূজা হোক সম্প্রীতির বন্ধন। এই দেশ মুসলমান,হিন্দু-বৌদ্ধ সবার। এদেশে সংবিধান সকল নাগরিকের সমান অধিকার নিশ্চিত করেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে পটিয়া পৌরসভা সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দূর্গা পূজা উপলক্ষে আয়োজিত পূজা পরিষদ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক মতবিনিময়কালে এই বক্তব্য রাখেন। স্থানীয় একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত শুভেচ্ছা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা বিমল মিত্র, পটিয়া উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ঋষি বিশ্বাস, পৌরসভা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিশ্বজিৎ দাশ, প্রণব দাশ, জন্মাষ্টমী পরিষদের সভাপতি মাস্টার শ্যামল দে, উপজেলা হিন্দু- বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি তাপস কুমার দে, মাস্টার শিশির মিত্র, দেব চক্রবর্তী, পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি সঞ্জীব দাশ, সহ-সভাপতি বিকাশ দাশ, সহ-সভাপতি শ্যামল দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক  রেখা দাশ মেম্বার, রিঙ্কি দেব, নয়ন শর্মা, জগন্নাথ শীল, পৌরসভার  ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমির খসরু খলিল ভান্ডারী, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, ৩ নম্বর ওয়াার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলমসহ পটিয়া পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের পূজা মন্ডপের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সরওয়ার হায়দার।

শুভেচ্ছা বিনিময়কালে সরওয়ার হায়দার বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আমাদের এই দেশ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অসম্প্রদাায়িক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আর জননেত্রী, দেশরতœ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  নেতৃত্বে দেশ আজ বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিকভাবে স্বনির্ভর দেশে পরিণত হয়েছে।

জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী এমপির নেতৃত্বে বিগত ১২ বছর পটিয়ায় সব সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রীতি সহমর্মিতা বিরাজ করছে। এখানে সাম্প্রদায়িকতার কোনো স্থান নেই।