জড়িতদের অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

0
161

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদ

খাগড়াছড়ি : আমাদের খাগড়াছড়ি প্রতিবেদক জানায়,কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে রোববার বিকালে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে জেলা যুবলীগ, জেলা শ্রমিকলীগ ও জেলা কৃষকলীগ। বিকাল ৪ টায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরের কলেজ রোডস্থ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি শাপলা চত্ত্বর ঘুরে একই স্থানে এসে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মিলিত হয়।এ সময় বক্তারা কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য্য ভাংচুরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। তারা বলেন, ধর্মান্ধদের এই ঘৃণ্য কাজের উপযুক্ত দাঁতভাঙা জবাব দেয়া হবে।এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মনির হোসেন, জেলা যুবলীগের সভাপতি যতন ত্রিপুরা, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জানু শিকদার, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাবেদ হোসেন, জেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক সৌরভ তালুকদার ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন। এদিকে কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

চকরিয়া : আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি জানায়,কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় যুবলীগ ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (৬নভেম্বর) বিকালে উপজেলা সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহিদ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাউছার উদ্দিন কছির, চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেলের নেতৃত্বে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরকারীরা উগ্রপন্থি মৌলবাদী। এরা স্বাধীনতা বিরোধী।

পেকুয়া : আমাদের পেকুয়া প্রতিনিধি জানায়, কক্সবাজারের পেকুয়ায় বিক্ষেভ প্রদর্শন করেছে আওয়ামী লীগ। কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুর করা হয়েছে। ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ৭ ডিসেম্বর (রবিবার) সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে। এর অংশ হিসেবে পেকুয়ায়ও আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে ভাস্কর্য ভাংচুর বিরোধী বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে পেকুয়ায় আওয়ামী লীগ ওই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে। এ উপলক্ষে পেকুয়া কবির আহমদ চৌধুরী বাজারে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়। এ সময় বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কাসেম, যুবলীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ বারেক, টইটং আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ। সমাবেশ সঞ্চালনা করেন উপজেলা যুবলীগ সহসভাপতি জিয়াবুল হক জিকু। সমাবেশ শেষে পেকুয়া বাজার দলীয় কার্যালয় থেকে একটি বিশাল মিছিল সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পেকুয়া বাজারের পশ্চিম অংশ ওয়াপদা চত্তর থেকে মিছিলটি ইসলামী ব্যাংক পর্যন্ত গিয়ে শেষ হয়েছে। এ সময় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন  উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা বশির মেস্ত্রী, খানে আলম, মফিজুর রহমান, খলিলুর রহমান মেস্ত্রী, রাজাখালীর চেয়ারম্যান ছৈয়দ নুর, শিলখালীর আওয়ামী লীগ সম্পাদক বেলাল উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক বাহাদুর, উজানটিয়ার সম্পাদক শাহ জামাল মেম্বার, সাংগঠনিক সম্পাদক নাছির উদ্দিন, বারবাকিয়ার সম্পাদক কামাল হোসেন, মগনামা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত ও উপজেলা যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক মুহাম্মদ হাসেম, উপজেলা যুবলীগ যুগ্ম সম্পাদক আক্তার হোছাইন, যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন, যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক জালাল উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক শাখাওয়াত হোছাইন সুজন প্রমুখ।

কক্সবাজার : আমাদের কক্সবাজার প্রতিবেদক জানায়, ৩০ লক্ষ শহীদ ও ২ লাখ মা- বোনের আত্মত্যাগের বিনিময়ে পাওয়া এই দেশে আবারো সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যসহ অন্যান্য ভাস্কর্য ও মূর্তি ভাঙার হুমকি এদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে অস্বীকার করা। ওই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী এদেশকে আবারো পাকিস্তান-আফগানিস্তান দেশে পরিণত করতে চায়। কুষ্টিয়ায় রাতের আঁধারে ওই দুর্বৃত্তরা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙ্গেছে, যারা এ ভাংচুরের সাথে সম্পৃক্ত ও ভাস্কর্য ভাঙ্গার হুমকিদাতাদের দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে। সেই সাথে ধর্মভিত্তিক সাম্প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে। এদেশ হাছন-লালন ফকিরের দেশ, এ দেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেশ। ৫২ ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালী জাতীয়তাবোধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার ভিত্তিতে এদেশ গড়ে উঠেছে। কোন অপশক্তি এ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার জায়গা থেকে এক বিন্দুও সরাতে পারবে না। যারা এই চেতনা নষ্ট করতে চেষ্টা করবে, তাদের প্রতিহত করা হবে। গত রবিবার ০৬ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় কক্সবাজার পৌরসভা চত্বরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কক্সবাজার আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলনের সভাপতিত্বে ও সাংস্কৃতিক সংগঠক মনির মোবারক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় সদস্য নাট্য সংগঠক এড. তাপস রক্ষিত, জাসদ নেতা মোহাম্মদ হোসেন মাসু, নাট্য নির্দেশক স্বপন ভট্টাচার্য্য, নাট্য সংগঠক সুশান্ত পাল বাচ্চু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নজিবুল ইসলাম, খেলাঘর সংগঠক এম. জসিম উদ্দিন, সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপ, খেলাঘর সংগঠক এবি সিদ্দিক খোকন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠী কক্সবাজার জেলা সংসদের সভাপতি খোরশেদ আলম, নাট্য কর্মী গিয়াস উদ্দিন, চিত্রশিল্পী অরণ্য শর্মা প্রমুখ।

মানিকছড়ি : আমাদের মানিকছড়ি প্রতিনিধি জানায়, কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।গত শুক্রবার(৪ ডিসেম্বার) রাতের আঁধারে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ডান হাত, পুরো মুখমন্ডল ও বাঁ হাতের অংশ বিশেষ ভেঙে ফেলেছে দুবৃত্তরা। তারই প্রতিবাদে ৬ ডিসেম্বার বিকেল ৩টায় মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করেছে। মানিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. জামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক চলাপ্রু মারমা নিলয়’র নেতৃত্বে উপজেলা আ.লীগ কার্যালয়ের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে মানিকছড়ি বাজারসহ প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার দলীয় কার্যালয়ে সমাবেশের মধ্য দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষ হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কলেজ ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা অংশ নেন।এ সময় মানিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাঈন উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, যুবলীগ সভাপতি মো. সামায়উন ফরাজী সামু, সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ন-সম্পাদক মো. মোস্তফা কামাল, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মো. আবু জাফর প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

ফটিকছড়ি : আমাদের ফটিকছড়ি প্রতিনিধি জানায়, কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে ফটিকছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে উপজেলা ছাত্রলীগ। গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ফটিকছড়ি কলেজ মোড় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে।মিছিলটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ফটিকছড়ি বাস স্টেশনে গিয়ে শেষ হয়। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন বলেন, ১৯৭১ সালের এই বিজয়ের এমনি একটি মাসে জাতির জনকের ভাস্কর্য ভাঙা এটা একটা নৈরাজ্য। ইসলামের কথা বলে ইসলাম কে বিক্রি করে বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যে হাত দেয়া মানে বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর পায়তারা করছে এই মৌলবাদ জঙ্গিগোষ্ঠী। ভাস্কর্য ভাঙার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরও দাবি জানান তিনি।বিক্ষোভ মিছিলে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ, ফটিকছড়ি পৌরসভা ছাত্রলীগ, ফটিকছড়ি কলেজ ছাত্রলীগ ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দীঘিনালা : আমাদের দীঘিনালা প্রতিনিধি জানায়, কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে দীঘিনালায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।  গত রোববার বিকেলে দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিলটি দলীয় কার্যালয় থেকে শুরু হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিলটি দীঘিনালা থানা বাজার প্রদক্ষিণ করে উপজেলা আওয়ামী  লীগ কার্যালয়ে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ কাশেমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মো. মাহবুব আলম, জীবন চৌধুরী এবং উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এফএম আলমগীর প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান।সমাবেশে বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান।

পটিয়া : আমাদের পটিয়া প্রতিনিধি জানায়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে পটিয়ায় ছাত্রলীগের উদ্যোগে লাঠি মিছিল বের করা হয়েছে।গত রবিবার বিকেল ৪টায় বিক্ষোভ মিছিল পটিয়া পৌর সদরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা গেইট এলাকায় এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন পটিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল সাকের সিদ্দিকী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরাফাত শাকিল, জিরি ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ শওকত, আরিফুর রহমান আরফাত, সোহেল চৌধুরী, রাহেদুল ইসলাম, মহিউদ্দিন গাজী, ইকরাম হোসেন অভি, মো. মহিউদ্দিন, মো. খোরশেদ, রকিবুল হাসান, প্রবাকর রায় চৌধুরী, অন্তর চৌধুরী, মো. আরশেদ, শাহদাত হোসেন জীবন, অভিরূপ ভট্টচার্য্য, আরমান চৌধুরী, দৃপ্ত দেবনাথ, অর্জুন সেনগুপ্ত। বক্তারা বলেন একটি উগ্রবাদী গোষ্ঠী বঙ্গবঙ্গুর ভাস্কর্যকে কেন্দ্র করে ধর্মান্ধতার যে বিষবাস্প সারাদেশে ছড়িয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে তা রুখে দেওয়ার জন্য পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ পটিয়ার গণমানুষের নেতা হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ এবং ভাস্কর্য ভাঙনকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতারপূর্বক আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

রাউজান : আমাদের রাউজান প্রতিনিধি জানায়,কুষ্টিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ। গত ৬ ডিসেম্বর রোববার সকালে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন তারা। সেখান থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি চট্টগ্রাম রাঙামাটি সড়ক হয়ে জলিলনগর বাস স্টেশন প্রদক্ষিণ করে সমাবেশস্থল এসে শেষ হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজের সভাপতিত্বে ও সহ দপ্তর সম্পাদক হাসান মো. রাসেলের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন  উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বশির উদ্দীন খাঁন,দপ্তর সম্পাদক জসিম উদ্দীন চৌধুরী, জসিম উদ্দীন, আহসান হাবিব চৌধুরী, কাউন্সিলর শওকত হাসান, তছলিম উদ্দীন,মুক্তিযোদ্ধা ইউছুপ খাঁন চৌধুরী, কাজী রাশেদ, তপন দে, আলমগীর আলী, জিয়াউল হক রোকন, আবু ছালেক, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিল্লুর রহমান মাসুদ,যুগ্ম সম্পাদক তানভীর চৌধুরী, নাছির উদ্দীন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক অসিফ, মোহাম্মদ আজম,রাউজান কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহমুদ, রাউজান উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি বেলাল হোসেন সিফাত প্রমুখ।