চন্দনাইশে ১৬ অবৈধ ইটভাটায় জরিমানা

0
139
চন্দনাইশে অবৈধ ইটভাটার ইট ধ্বংস করা হচ্ছে-সুপ্রভাত

২টি ভেঙে গুড়িয়ে দিল পরিবেশ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিনিধি, চন্দনাইশ :
চন্দনাইশে হাইকোর্টের নির্দেশে চলমান পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে অবৈধ ইটভাটা ভাঙার কাজ শুরু করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। গত ৩১ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত অভিযানে ২ ইটভাটা গুড়িয়ে দেওয়াসহ মোট ১৬টি ইটভাটায় ২৩ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় করেছে। অভিযান পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম আলমগীর।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আফজারুল ইসলাম, চট্টগ্রাম র‌্যাব-৭ ,থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।
জানা যায়, চন্দনাইশ উপজেলার বাগিছাহাট হাশিমপুর খান বটতল এলাকার কেবি খাজা বিক্স ফিল্ডের প্রায় ৪ লক্ষ কাঁচা ইট ও টু স্টার বিক্সফিল্ডের ৩ লক্ষ কাচাঁ ইট গুড়িয়ে দেওয়া হয়, উভয় ইটভাটার চিমনি ফুটো করে দেওয়া হয় এবং ওই ২টি ইটভাটা থেকে ১লক্ষ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়। পরে উপজেলার কাঞ্চনাবাদ এলাহাবাদ এলাকায় আর কোন ইটভাটা গুড়িয়ে দেওয়া না হলেও বিবিএম, এমএইচওয়াই, বিবিসি, ৪বিএম, সিবিএম, কেবিএম, এমআরবি, এমবিএম, আরবিএম, এইচবিএল, এইচ বিএম, এমএসবি, ৫বিএম ইটভাটায় দেড় লক্ষ টাকা করে মোট মোট ২৩ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এ ব্যাপারে অভিযান পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, হাইকোর্টের আদেশ ও চলমান পরিবেশ অধিদপ্তরের চলমান অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। চন্দনাইশে মোট ৩২ টি ইটভাটা রয়েছে তৎমধ্যে ৫টিতে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র রয়েছে বাকি ২৭টিতে ছাড়পত্র নেই। দিনব্যাপী অভিযানে মোট ১৬টি ইটভাটায় ২৩ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার মাধ্যমে ২ মাস সময়ের মধ্যে ইটভাটাগুলি গুড়িয়ে নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইন ২০১৩ অনুযায়ী জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের লাইসেন্স, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র, বন বিভাগের ছাড়পত্র প্রয়োজন হয়। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।