চকরিয়ায় পাউবো’র খালে অবৈধ স্থাপনা

0
155

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া :

কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের মালিকানাধীন চকরিয়া উপজেলা বদরখালীর সিএনজি স্টেশন সংলগ্ন সøুইস গেইট সংলগ্ন খালের জায়গা এবার অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়েছে। সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কর্মকর্তাদের দায়িত্ব অবহেলার সুযোগে সম্প্রতি খালের জায়গা দখলে নিয়ে পাকা ভবন নির্মাণ করছে প্রভাবশালীচক্র। এ অবস্থার কারণে পানি চলাচলের জায়গা ভরাট হয়ে পড়ায় হুমকির মুখে পড়েছে উপকূলীয় জনপদের পরিবেশ। অভিযোগ উঠেছে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের ভুমি অধিগ্রহন শাখার কর্মকর্তার উদারতার সুযোগে চকরিয়া উপজেলার বিভিন্ন জনপদে বেহাত হচ্ছে সরকারি বিপুল টাকার ভুসম্পদ। একই সুযোগে বদরখালীর স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র জায়গা দখল করে তৈরি করছেন দোকান। বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে জমি দখল। যাদের কাছে নেই বৈধ কাগজপত্র। কেউ আবার নিজে দখল করে ভুয়া কাগজ দেখিয়ে বিক্রি করে দিয়েছেন অন্যের কাছে। তারপরও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রতিযোগিতা চলছে দখলের।এলাকাবাসী দাবি করেছেন, আকতার হোসেন ও ইসমাইল নামে দুইভাই মিলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের চলাচলের খালের জায়গা দখল করে পাকা দোকন নির্মাণ করছেন। তবে দখলের অভিযোগ অস্বীকার করে আকতার হোসেন বলেন, তিনি জমিটি বদরখালী সমিতির মাতাখিলা জায়গার মালিক  জামাল হোসেন নামে একব্যক্তির কাছ থেকে স্ট্যাম্প মূলে কিনেছেন।বদরখালী সমবায় ও কৃষি  উপনিবেশ সমিতির সম্পাদক নুরুল আমিন জনি বলেন, আক্তার হোসেন ও ইসমাইল যেস্থানে দোকান নির্মাণ করছেন, সেটি সমিতির জায়গা না। মুলত জায়গাটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের । তাই বিষয়টি দেখবে পাউবো।কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী প্রবীর কুমার গোস্বামী সাংবাদিকদের বলেছেন,  দোকান নির্মাণের জায়গাটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের হয়ে থাকলে অবশ্যই জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে। এব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহনে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।