সমবায়ের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব

0
141

আলোচনা সভায় বক্তারা #

রাউজান: আমাদের রাউজান প্রতিনিধি জানায়,গত ৭ নভেম্বর শনিবার সকালে ৪৯ তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে রাউজান উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমবায় অফিসের উদ্যোগে সমবায়ীদের নিয়ে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। এর আগে জাতীয় পতাকা ও সমবায় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে জাতীয় সমবায় দিবসের উদ্বোধন করেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ। র‌্যালি শেষে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগের সভাপতিত্বে সমবায়ী শিমুল বড়–য়া ও আরিফুল হক চৌধুরীর সঞ্চলনায় উপজেলা পরিষদ হলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাউজান উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি আবদুল্ল্যাহ আল মাহমুদ ভুইয়া, রাউজান পৌরসভার প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার শাহ ই জাহান, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মনিরজ্জমান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রাউজান উপজেলা কো-অপারেটিভ সোসাইটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শফিউল আজম, সমবায়ী রনধীর বড়–য়া প্রমুখ । আলোচনা সভা শেষে শ্রেষ্ঠ সমবায়ী প্রতিষ্ঠানকে ক্রেস্ট তুলে দেয় অতিথিরা।
মাটিরাঙা :আমাদের মাটিরাঙা প্রতিনিধি জানায়,“ বঙ্গবন্ধুর দর্শন সমবায়ে উন্নয়ন ”এ স্লোগানে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ি মাটিরাঙায় ৪৯ তম জাতীয় সমবায় দিবস উদযাপিত হয়েছে। গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা প্রসাশন, সমবায় বিভাগ ও সমবায়ীবৃন্দ আয়োজনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় পার্বত্য মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের সভাপতি মো. আলী হোসেনের সঞ্চালনায় মাটিরাঙা উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা আমান উল্লাহর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৃলা দেবের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন উপজেল চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে মাটিরাঙা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা বেগম,মাটিরাঙা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা, মাটিরাঙা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান ভুইঁয়া, মাটিরাঙা পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও সমবায়ী মো. আবুল হাসেম, বাবুল বনিক, অর্জুনটিলা সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সম্পাদক মো. সামসুদ্দিন প্রমুখ আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন। মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মূলমন্ত্র সমবায়ভিত্তিক সমাজ গঠন উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধু এই সত্যটি উপলব্ধি করে দেশ স্বাধীনের পরপরই প্রতিটি উন্নয়ন কর্মকান্ড সমবায়ের ভিত্তিতে পরিচালনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে গ্রামাঞ্চলে দারিদ্র্যের হার কমাতে অসামান্য অবদান রেখে চলেছেন। শহর ও গ্রামের মধ্যে বৈষম্য দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে।মাটিরাঙা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৃলা দেব সভাপতির বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। এভাবে প্রতিটি গ্রামকে যদি আমরা সমবায়ের ভিত্তিতে গড়ে তুলতে পারি তাহলে অচিরেই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ভাগ্যের আমূল পরিবর্তন ঘটবে বলে মনে করেন তিনি। একই সময় শ্রেষ্ঠ সমবায়ী হিসেবে মো. রফিকুল ইসলাম, মো. সামসুদ্দিন, মো. রেজাউল করিম, মো. আলী হোসেন, মাটিরাঙা আদর্শ ট্রাক ও মিনিট্রাক চালক সমবায় সমিতি লিমিটেডকে সফল সমবায় সমিতির স্বীকৃতিস্বরূপ ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।এর আগে সকাল ৯ টার দিকে জাতীয় ও সমবায় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসের কর্মসুচির উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৃলা দেব।
চকরিয়া:আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি জানায়,জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলা প্রশাসন এবং সমবায় বিভাগের উদ্যোগে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে। এদিন সকালে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সমবায় দিবসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া- পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। এরপর উপজেলা পরিষদ মিলনায়ন মোহনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে আলোচনা সভা। চকরিয়ায় আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা সমবায় অফিসার জাহাঙ্গীর আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, মো. তাহের, কামাল উদ্দিন, ফোরকানুল ইসলাম বাবলু, ডা. তেজেন্দ্র লাল দে, সেলিম উদ্দিন লিটন, এম নুরুস শফি প্রমুখ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আলহাজ জাফর আলম এমপি বলেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পৃথিবীতে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবেন। সে অনুযায়ী বাংলাদেশ এখন উন্নত রাষ্ট্রের পথে এগিয়ে চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় চকরিয়া- পেকুয়ায় বিশাল উন্নয়ন কর্মকান্ড চলছে। তিনি এ প্রসঙ্গে পেকুয়ায় বিমান বাহিনীর সাব- মেরিন ঘাঁটি স্থাপনের সরকারি পরিকল্পনার কথাও উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, জনগণের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণার আলোকে চকরিয়া- পেকুয়াবাসীকে সমবায় নীতি অনুসরণ করে এগিয়ে যেতে হবে। দশে মিলে করি কাজ সুচারুভাবে করা গেলে আগামীতে সমবায় পদ্ধতিতে চকরিয়া- পেকুয়া হবে অর্থনৈতিক সম্পদে ভরপুর একটি জনপদ। তাই সবাইকে সমবায় রীতির আলোকে জীবন চলার পথ সুগম করতে হবে।এমপি জাফর আলম এদিন একসঙ্গে নির্বাচনী এলাকার চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলায় সমবায় বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন। পেকুয়া উপজেলা অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোতাছেম বিল্ল্যাহ্। বক্তব্য দেন পেকুয়ার সদস্যবিদায়ী উপজেলা সমবায় অফিসার কামাল পাশা ও ভারপ্রাপ্ত সমবায় অফিসার জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সমবায় সমিতির কর্মকর্তা, উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।
নাইক্ষ্যংছড়ি:আমাদের নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি জানায়, বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ে উন্নয়ন-প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে নাইক্ষ্যংছড়িতে ৪৯তম জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়েছে। গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি সদরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যন ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক মো. শফিউল্লাহ উপজেলা সহকারী কমিশানার (ভুমি) আশারাফুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য ক্যনে ওয়ান চাক, ভাইস চেয়ারম্যান মংলা ওয়াই মার্মা,উপজেলা আওয়ামী লীগসহ সভাপতি ও সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যন তসলিম ইকবাল চৌধুরী, উপজেলা সমবায় অফিসার শ্রীজন কুমার বিশ্বাংগ্রী, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সুকান্ত কুমার সেন, পাবর্ত্য চট্রগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রজেক্ট ম্যানেজার ইয়াছিনুল হক, উপজেলা একটি বাড়ি একটি খামার কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন, মাহামুদুল হক, জাহেদ হোসেন, নাইক্ষ্যংছড়ি বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল গফুর, সহসভাপতি আবু তাহের সওদাগর সাধারণ সম্পাদক মনির আহমদ প্রমুখ। এ সময় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সমবায় অফিসের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, সকল ১০টায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ চত্বরে জাতীয় ও সমবায় পাতাকা উত্তোলন শেষে একটি র‌্যালি উপজেলা বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এসে শেষ হয়। পরে উপজেলা মিলনায়তনে সমবায় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ২০১৯ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ সমবায় সমিতি সঞ্চয় ও ঋণদান হিসেবে নাইক্ষ্যংছড়ি বাজার ব্যবসায়ী সমিতিসহ মোট ৫ সমবায় সমিতি কে সনদ বিতরণ করা হয়।
রামগড় : আমাদের রামগড় প্রতিনিধি জানায়,“বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ের উন্নয়ন” প্রতিপাদ্যকে সমানে নিয়ে রামগড় উপজেলা প্রশাসন ও সমবায় দপ্তরের আয়োজনে শনিবার (৭নভেম্বর) সকালে ৪৯তম জাতীয় সমবায় দিবস ২০২০ উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে উপজেলা সমবায় অফিস প্রাঙ্গণে জাতীয় ও সমবায় পতাকা উত্তোলন শেষে পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহম্মদ মাহমুদ উলাহ মারুফের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এখানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ মো.সামসুজ্জামান, উপজেলা পরিষদের সংরক্ষিত নারী প্রতিনিধি কনিকা বড়ুয়া। পরে উপজেলার ৩ জন সফল সমবায়ী ব্যক্তির মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়। আইটিসি‘র সহকারী প্রোগ্রামার রেহান উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা দিদারুল ইসলাম। আরো বক্তব্য দেন মৎস্য অফিসার বিজয় কুমার দাশ, বিআরডিবি কর্মকর্তা মফিজুর রহমান, সাংবাদিক করিম শাহ , কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বেলায়েত হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, স্থানীয় সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, অভিভাবক, সমবায় অধিদপ্তরের আওতাধীন বিভিন্ন সমিতির নেতৃবৃন্দসহ সদস্যরা।