শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ

0
131
চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধাঞ্জলি-সুপ্রভাত চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের শ্রদ্ধাঞ্জলি-সুপ্রভাত

আনোয়ারা
আমাদের আনোয়ারা প্রতিনিধি জানায়, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গরিব ও অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণের আয়োজন করেন বারখাইন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ। ১৬ ডিসেম্বর দুপুরে উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের তৈলারদ্বীপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্থানীয় গরিব-অসহায় ও শীতার্তদের মাঝে এসব শীতবন্ত্র বিতরণ করা হয়। জয়নুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বারখাইন ইউনিয়ণ আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদুর আলম চৌধুরী, প্রধান বক্তা ছিলেন কম্বল বিতরণীর প্রধান উদ্যোক্তা সাধারণ সম্পাদক এম. জাহাঙ্গীর আলম। পিয়ার মোহাম্মদের সঞ্চালনায় এসময়ে মোহাম্মদ হারুন, ওয়ার্ড আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মাবুদ, জামাল উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সদস্য মোহাম্মদ ইদ্রিছ, সাখায়াত হোসেন শাকিল, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী নুর জাহান বেগম, মো. আবদুল্লাহ্ আল নোমানসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে একটি বিজয় র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। এরআগে সরকারের উন্নয়ন মূলক কর্মকা-ের চিত্র নিয়ে করা নতুন বছরের ক্যালেন্ডার বিতরণও করেন অতিথিরা।আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আজকের এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। যাঁর নেতৃত্বে নয় মাস যুদ্ধ করে ৩০ লক্ষ শহীদ ও ২ লক্ষ মা বোনের ইজ্জত-সম্ভ্রম আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমাদের এ স্বাধীন দেশ, স্বাধীন পতাকা। স্বাধীনতা লাভের পর ঘাত প্রতিঘাতে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ আজ উন্নয়নশীল। এটা সম্ভব হয়েছে একমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কারণে। আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশের উন্নয়ন হয়েছে। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আওয়ামীলীগ সরকারের কোন বিকল্প নেই। তিনি সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনাও করেন। তিনি আরো বলেন, আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক মাননীয় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ এমপির নির্দেশে স্থানীয় গরিব-অসহায় ও শীতার্তদের মাঝে এসব শীতবন্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।
চন্দনাইশ
আমাদের চন্দনাইশ প্রতিনিধি জানায়,চন্দনাইশ মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে গরিব ও অসহায়-দরিদ্র মানুষের মাঝে ৬’শ কম্বল বিতরণ আয়োজন করেন চন্দনাইশ পৌরসভা দক্ষিণ গাছবাড়িয়া ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা কবির আহমদ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ওয়ার্ড সভাপতি মো. আবদুর রহিম সওদাগর। বুধবার ও বৃহস্পতিবার (১৬ ও ১৭) ডিসেম্বর দুপুরে ছৈয়দ মোহাম্মদ পাড়া রহমানিয়া আহমদিয়া এ,এস সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার মাঠে স্থানীয় গরিব-অসহায়-দরিদ্র ও শীতার্তদের মাঝে এসব শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।গত বুধবার ১ম দিনে বীর মুক্তিযোদ্ধা কবির আহমদ সভাপতিত্বে সাংবাদিক মো. নুরুল আলমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বরকল ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান। প্রধান বক্তা ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর। বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসির উদ্দীন সরকার, মো. কায়ছার উদ্দীন চৌধুরী, আলহাজ্ব মো. বদিউল আলম সওদাগর, আলহাজ্ব অধ্যাপক মো. তৈয়বুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, পৌরসভা মহিলা কাউন্সিলর হাছনারা বেগম, মোজাম্মেল হক, ইয়ং স্টার ক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী খোকন প্রমুখ। গত বৃহস্পতিবার ২য় দিনে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মো; তৈয়বুর রহমানের সভাপতিত্বে সাংবাদিক মো. নুরুল আলমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান। প্রধান আলোচক ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আবদুল জব্বার চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মওলানা মো. সোলায়মান ফারুকী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক মো: সেলিম উদ্দীন, মফিজুর রহমান বাহাদুর, কে,এম আবছার উদ্দীন, কাজী মোস্তাফিজুর রহমান। এ সময় অন্যানদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আবদুল জলিল, কাজী রবিউল ইসলাম, কাজী হোসাইন, মো. শাহনেওয়াজ চৌধুরী, মো. আমিনুল ইসলাম কাইসার, মো. আমজাদ হোসেন চৌধুরী, মো. ছরওয়ার আলম, মো. পারভেজ, মো. জসিম, মো. আমিনসহ উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সরকারি ঘোষণা মোতাবেক সকাল ৬টায় চন্দনাইশ পৌরসভার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, প্রশাসন, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।সকালে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মো. আবদুল জব্বার চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমতিয়াজ হোসেন, জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, পৌর মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সোলাইমান ফারুকী, কামেলা খানম রূপা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিবেদিতা চাকমা, চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. শাহীন হোসাইন চৌধুরী, থানা অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দীন সরকার, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জাফর আলী হিরু, এম.কায়ছার উদ্দীন চৌধুরী। তাছাড়া উপজেলা প্রশাসন, থানা প্রশাসন, চন্দনাইশ পৌরসভা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ দোহাজারী পৌরসভা, আনসার ভিডিপি, চন্দনাইশ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, গাছবাড়িয়া সরকারি কলেজ, আমানত ছফা বদরুনেছা মহিলা ডিগ্রী কলেজ, উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষকলীগ, সৈনিকলীগ, উপজেলা বি.এন.পি, যুবদল, ছাত্রদল, গাছবাড়িয়া নিত্যানন্দ গৌরচন্দ্্র সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গাছবাড়িয়া আর্ট স্কুল এন্ড সংগীতালয়, চন্দনাইশ কাশেম মাহবুব উচ্চ বিদ্যালয়, চন্দনাইশ প্রেস ক্লাব, ফাতেমা জিন্নাহ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মমতাজ বেগম উচ্চ বিদ্যালয়, দোহাজারী আ. রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, দোহাজারী জামিজুরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বিজিসি ট্রাস্ট স্কুল এন্ড কলেজ, হাশিমপুর এম.এ. কে.ইউ উচ্চ বিদ্যালয়, বরকল এস জেড উচ্চ বিদ্যালয়, বরমা ত্রাহি মেনকা উচ্চ বিদ্যালয়, সুচিয়া আর. কে উচ্চ বিদ্যালয়, হারলা সমবায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, স্বপ্ন নগর বিদ্যা নিকেতন, বরমা ইউনিয়ন যুবলীগ, বরকল ইউনিয়ন যুবলীগ, প্রজন্ম লীগ, চন্দনাইশ ছাত্র ঐক্য, ইউনাইটেড ইয়ুথ ক্লাব, চন্দনাইশ সদর ব্যবসায়ীক কল্যাণ সমিতি, মক্কা আওয়ামী ফাউন্ডেশন, বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা, ইসলামি ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ইসলামি ছাত্র সেনা যুব সেনা, নিউ ইয়ং স্টার ক্লাব, প্রতিবন্ধী সংস্থাসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।পরে উপজেলা পরিষদ হলরুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমতিয়াজ হোসেনের সভাপতিত্বে চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আলোচনা সভা, মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।
চকরিয়া
আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি জানায়,বিজয় দিবস উপলক্ষে বুধবার ১৬ ডিসেম্বর সূর্য উদয়ের সাথে সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চকরিয়া বিমানবন্দরস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেছেন কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। তারপর শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান চকরিয়া উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন। এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চকরিয়া থানা পুলিশ, চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভা এবং মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, চকরিয়া প্রেসক্লাব, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী সকল সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ও শ্রেণি-পেশার মানুষ।বুধবার শীতের কুয়াশা ভেজা ভোরে কক্সবাজার-১ (চকরিয়া- পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম এমপি প্রথমে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন করেন। এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী এরপর পর্যায়ক্রমে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনকালে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.তানভীর হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) তফিকুল আলম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক লায়ন আলহাজ কমরউদ্দিন আহমদ, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আমিনুর রশিদ দুলাল, চকরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এস এম নাসিম হোসেন, উপজেলা প্রকৌশলী কমল কান্তি পাল, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গুলশান আক্তার, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সুপন নন্দী, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমসহ সরকারি প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং জনপ্রতিনিধি এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।এদিন ভোরে চকরিয়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা অর্পণের পরে উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকাল আটটার দিকে চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে নির্মিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ মাধ্যমে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো হয়।একইদিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদের হলরুম মোহনা মিলনায়তনে প্রশাসনের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা এবং শহীদ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.তানভীর হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) মো.তফিকুল আলম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টু, উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন হক জেসি চৌধুরী, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের।আলোচনা ও দোয়া মাহফিল শেষে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্মানী ভাতা প্রদান করা হয়।জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না। স্বাধীনতা বিরোধীরা ভাস্কর্য ভেঙ্গে ২০ কোটি বাঙ্গালীর মনে আঘাত দিয়েছে। দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক তখনই সাম্প্রদায়িক ও প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠি বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য ভেঙ্গে ন্যাক্কারজনক কাজ করেছে। বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য হচ্ছে বাঙ্গালী জাতির সংস্কৃতি। জাতির পিতাকে অসম্মান করে কেউ এইদেশে থাকতে পারবে না। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১৭ ডিসেম্বর বিকাল তিনটায় ডুলাহাজারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ডুলাহাজারা সাফারি পার্কে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম এসব কথা বলেন। এরআগে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদীর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন। এসময় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মাতামুহুরী সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর আলম বুলবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সরওয়ার আলম, সহ-সভাপতি মোক্তার আহমদ চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজবাউল হক।প্রধান অতিথি রেজাউল করিম আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু’র কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান। মাতারবাড়িতে মেঘাপ্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। সারাদেশে উন্নয়নে ভরে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য নিয়ে নেতাকর্মীরা সারাদেশে সরব থাকলেও চকরিয়াতে সেটা দেখা যায়নি। দলকে আরও গতিশীল ও শক্তিশালী করতে হবে। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জামাল হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, ডা. আজিজুল মান্নান, সাবেক কৃষকলীগের সভাপতি মাস্টার মোহাম্মদ আলী, মাস্টার আনোয়ার হোসেন, সোলতান মাহমুদ টিপু সোলতান, আমির উদ্দিন বুলবুল, টিপু, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তোয়াছিন আনোয়ার জিহান, জহির আহমদ, সিরাজুল ইসলাম, সাইফুর রহমান, এহেসানুল হক, কাইছার মো. বাবুল, রিয়াজ, সভাপতি জিহান নুর মোহাম্মদ, আজমিহি আজাদ, সাকিব জিয়াবুল আরিফিন ও এমরান।
রাউজান
আমাদের রাউজান প্রতিনিধি জানায়,মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিজয় দিবসের ১৬ ডিসেম্বর বুধবার দিনের প্রথম প্রহরে রাউজান উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পস্তবক অর্পন করেন রেলপথ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, রাউজান উপজেলা পরিষদ, রাউজান উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,রাউজান থানা, রাউজান প্রেস ক্লাব, রাউজান পৌরসভা, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ,রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগ, রাউজান পৌরসভা ছাত্রলীগ, রাউজান সরকারি কলেজ, গহিরা কলেজ, রাউজান ছালামত উল্ল্রাহ উচ্চ বিদ্যালয়, রাউজান সুরেশ বিদ্যায়তন, বাংলার মুখ, রাউজান শিল্পকলা একাডেমি, রাউজান সিএনজি অটো রিক্সা চালক সমিতি, রাউজান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুবলীগ, হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ, ডাবুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুবলীগ, ছাত্রলীগ, গহিরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুবলীগ, ছাত্রলীগ, রাউজান পৌরসভা কাপড় ব্যবসায়ী সমিতি, রাউজান জলিল নগর ব্যাবসায়ী সমিতি, রাউজান রোজ গার্ডেন ক্লাব, রাউজান খেলোয়াড় সমিতি। মহন বিজয় দিবস উপলক্ষে রাউজান উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রাউজান উপজেলা পরিষদ মাঠে রেলপথ সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে বিজয় দিবসের সুচনা শুরু করেন। রাউজান উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রাউজান উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে দোয়া মাহফিল, উপজেলা পরিষদ হলে বিজয় দিবসের আলেচনা সভা অনুষ্টিত হয়।এই সব কর্মসুচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগের সভাপতিত্বে দিবসের কর্মসুচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাব,সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুন, রাউজান উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার ইউছুপ খান, রাউজান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ, রাউজান উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার নিক্সন চৌধুরী, উপজেলা প্রকৌশলী আবুল কালাম, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ড্.া নুরে আলম দীন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ, উপজেলা কৃষি অফিসার শাব্বির আহম্মদ, মুজিবুর রহমান খান, উপজেলা পিযূষ প্রভাকর, চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম।রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের উদ্যোগে গত ১৬ ডিসেম্বর বুধবার দুপুরে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল ওহাবের সভাপতিত্বে পৌরসভার প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খানের সঞ্চলনায় অনুষ্টিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল, অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সহ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম, সহভাপতি স্বপন দাশ গুপ্ত, ইরফান আহম্মদ চৌধুরী, কামরুল হাসান বাহাদুর, শাহাজাহান ইকবাল, আলমগীর আলী, জসিম উদ্দিন, রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম শাহাজাহান, সিনিয়র সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, তসলিম উদ্দিন, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল লতিফ. এস এম বাবর,রবিন্দ্র লাল চৌধুরী, মাহাবুল আলম, ইফতেখার হোসেন দিলু,মুসলিম উদ্দিন জয়নাল, আলহাজ¦ নুরুল আমিন, রুনু ভট্টচার্য্য, মুছা আলম খান, রাউজান উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাউজান পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি সারজু মোহাম্মদ নাসের, সুমন দে, যুগ্ন সম্পাদক আহসান হাবিব চৌধুরী, রাউজান পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসান মোহাম্মদ রাসেল, সাধারন সম্পাদক জিয়াউল হক রোকন এডভোকেট দিলিপ কুমার চৌধুরী, এডভোকেট সমীর দাশগুপ্ত, শওকত হাসান চৌধুরী, আজাদ হোসেন, চেয়ারম্যান শফিকুল আলম, আবদুর রহমান চৌধুরী, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিল্লুর রহমান মাসুদ, শাখাওয়াত হোসেন পিপলু, রাউজান পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, আশিফ,রাউজান সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আরমান সিকদার, ফয়সল মাহমুদ প্রমুখ। বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাউজান প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দ। পরে রাউজান প্রেস ক্লাবের সভাপতি শফিউল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি জাহেদুল আলম, সাবেক সভাপতি প্রদীপ শীল, সহ সভাপতি নেজাম উদ্দীন রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক ও অর্থ সম্পাদক এম কামাল উদ্দিন,সাংবাদিক শাহাদাত হোসেন সাজ্জাদ প্রমুখ। সভায় মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয়।