ফুটোতলা নিয়ে সাত কিলোমিটার জাহাজ চালিয়ে চরে আটকে রক্ষা

401
চট্টগ্রাম বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে বড় জাহাজের ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে চরে আটকা পড়ে আছে গমবাহী  এমভি গোলাম রহমান নামের লাইটারেজ জাহাজ।

চট্টগ্রাম বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে দুর্ঘটনা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

তলা ফুটা নিয়ে সাত কিলোমিটার জাহাজ চালিয়ে চরে এসে আটকেছে লাইটার জাহাজ। চট্টগ্রাম বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে থেকে পণ্য নিয়ে আসার পথে বড় জাহাজের সাথে ধাক্কায় একটি লাইটার জাহাজের (ছোটো জাহাজ) তলায় ফুটো হয়েছে। সেই ফুটো নিয়ে ৭ কিলোমিটার জাহাজ চালিয়ে পতেঙ্গা উপকূলের চরে এসে আটকে রক্ষা পেয়েছে লাইটার জাহাজটি।

রোববার সকাল আটটার দিকে ৯৪৫ টন মটর ডাল নিয়ে জাহাজটি খুলনার দিকে যাচ্ছিল। তলায় ফুটো হয়ে যাওয়ার পর এটি দিক পরিবর্তন করে পতেঙ্গার দিকে নিয়ে আসা হয়। এবিষয়ে লাইটার জাহাজ বরাদ্দ দেয়া প্রতিষ্ঠান ওয়াটার ট্রান্সপোর্টেশন সেলের নির্বাহি কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, এমভি নিউ গোলাম জাহাজটি ফুটো হওয়ার পর জাহাজের সব নাবিকরা প্রাণে রড়্গা পেয়েছে এটাই আমাদের প্রাপ্তি। একইসাথে জাহাজের মাস্টারের দক্ষতায় দ্রুত জাহাজ চালিয়ে তা পতেঙ্গা চরে এনে আটকে দেয়া হয়েছে। এখন জোয়ারের সময় জাহাজের হ্যাজে পানি না ঢুকলেই হয়।

এদিকে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র ও সচিব ওমর ফারুক বলেন, জাহাজটি চরের মধ্যে নিরাপদে রয়েছে। এই সময়ের মধ্যে জাহাজটি মেরামত হয়ে যাওয়ার কথা। আমরা বিষয়টির দিকে নজর রাখছি।

বছরের এসময়ে সাগর উত্তাল থাকে। তখন প্রায়ই লাইটার জাহাজগুলো দুর্ঘটনার মুখোমুখি হয়ে থাকে। বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে থেকে মাদার ভ্যাসেল ( বড় জাহাজ) থেকে পণ্য খালাস করে দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যায় লাইটার জাহাজগুলো।