পতেঙ্গা সৈকতে জেলা প্রশাসনের অভিযান

0
117

মাস্কের ব্যবহার

নিজস্ব প্রতিবেদক <<
নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মাস্কের ব্যবহার নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন। অভিযানে মাস্ক পরিধানে জনগণকে সচেতন করার পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়। এসময় মাস্ক ব্যবহার না করায় ৩০ জন জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নগরের আগ্রাবাদ মোড়, ওয়াসা, জিইসি মোড় এবং পতেঙ্গা সী বিচে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক, মো. আশরাফুল আলম ও গালিব চৌধুরীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
নগরের আগ্রাবাদ, ওয়াসা ও জিইসি মোড়ে পরিচালিত অভিযানে নগরবাসীদের মাস্ক ব্যবহারে সচেতন করার পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রায় ১ হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়।
আগ্রাবাদ ও আখতারুজ্জামান সেন্টারে পরিচালিত অভিযান প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী বলেন, করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার জন্য মাস্ক ব্যবহারের বিকল্প নেই। করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে মাস্ক পরিধান না করার কারণে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসনের এ অভিযান। অভিযানে প্রাথমিকভাবে আমরা মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করছি। আমাদের এ শহরকে করোনার প্রকোপের থাবা থেকে মুক্ত করতে আমরা সব ধরনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
পতেঙ্গা সী বিচে অভিযান প্রসঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক বলেন, ‘চট্টগ্রামে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে ছুটির দিনগুলোতে উপচেপড়া ভিড় হচ্ছে। যেহেতু করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেড়ে চলেছে তাই জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মানুষকে সচেতন করতে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। অবহেলা করে মাস্ক না পরায় ৩০ জনকে ৪ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’
মো. উমর ফারুক আরো বলেন, আজকে থেকে মাইকিং করে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে পর্যটকদের না আসতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। করোনা সংক্রমণ রোধে মাস্ক ব্যবহারে জনগণকে উদ্ধুদ্ধ করার পাশাপাশি আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।