ধর্ষণ রোধে প্রতিবাদ নয় প্রতিরোধ গড়তে হবে

0
166

মানববন্ধনে ডা. শাহাদাত

নিজস্ব প্রতিবেদক :
নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশে ধর্ষণের ঘটনায় জাতিসংঘ পর্যন্ত উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এর চেয়ে লজ্জা আর কি হতে পারে একটা জাতির জন্য ? দেশে একের পর এক ধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবাদ নয়, এখন থেকে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন। দেশের বিভিন্ন স্থানে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে চট্টগ্রাম মহানগর নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম।
ডা. শাহাদাত বলেন, ধর্ষণ ও নারী-শিশু নির্যাতনের ঘটনা এ অবৈধ সরকারের ছত্রছায়ায় নিরন্তর বিষয় হয়ে গেছে। এগুলো এখন মহোৎসবে পরিণত হয়েছে। শুধু একজন নারীকে ধর্ষণ নয়, বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে ধর্ষণ করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তার বক্তব্যেই স্বীকার করে নিয়েছেন এই ধর্ষণ, লুণ্ঠন ও নিপীড়নের পেছনে সরকারি দলের মদদ রয়েছে। তাই দেশ পরিচালনায় ব্যর্থতার দায় নিয়ে অবিলম্বে সরকারের পদত্যাগ করা উচিত।
দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে মন্তব্য করে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, বর্তমানে মানুষের জীবনের কোনো নিরাপত্তা নেই। দ্রব্যমূল্যের চরম উর্ধ্বগতি। নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণহীন। কারণ এ সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। রাতের অন্ধকারে ভোট ডাকাতি করে তারা ক্ষমতায় বসে আছে।
সরকারকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার দিকে যান। যদি না যান, জনগণ জেগে উঠছে। আপনাদের চলে যেতে বাধ্য করবে।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, বাংলাদেশে এখন যে পরিস্থিতি চলছে, তা কোনো সভ্য সমাজের নয়। এটা সম্পূর্ণ একটি অসভ্য সমাজে পরিণত হয়েছে। এ অবস্থার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী আজকের আওয়ামী লীগ সরকার। তারা সমাজে ভয়ঙ্কর নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। সারাদেশে যারা ধর্ষণ, অত্যাচার, অবিচারের সাথে যুক্ত রয়েছে তারা এই সরকারের আশ্রয় প্রশ্রয় পাচ্ছে এবং এ কারণেই তারা আরো বেশি অপকর্ম করতে উৎসাহিত হচ্ছে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, এই সরকার গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে, মানুষের অধিকারকে ধ্বংস করেছে। একটা মানুষের যে ন্যূনতম বেঁচে থাকার অধিকার, সে অধিকার থেকে সরকার বঞ্চিত করেছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে ও গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে আনতে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই।
চট্টগ্রাম মহানগর নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের আহবায়ক সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচির সভাপতিত্বে ও সদস্যসচিব ডা. বেলায়েত হোসেন ঢালীর পরিচালনায় মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাথী উদয় কুসুম বড়ুয়া, ফোরামের যুগ্ম আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার সেলিম মো. জানে আলম প্রমুখ।