হালদা নদীতে মিলল মৃত ডলফিন

415
হালদা নদীতে মিলেছে মৃত ডলফিন

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান :

প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন  ক্ষেত্র হালদা নদীতে ডলফিনের মৃতদেহ মিলেছে।

রবিবার সকাল ১১ টায় রাউজানের উরকিরচর ইউনিয়নের মইশকরম এলাকার লোকজন মৃত ডলফিনটি নদী থেকে মইমকরম এলাকায় নদীর তীরে রাখেন।

খবর পেয়ে উরকিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল বিষয়টি রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগকে ফোন করে অবহিত করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের তত্ত্বাবধানে নদীর তীর থেকে মৃত ডলফিন উদ্ধার করা হয়। ডলফিন উদ্ধার করার পর হালদা নদীর সাথে সংযুক্ত মইশকরম খালের পাড়ে মাটির নিচে পুঁতে ফেলা হয় ।

হালদা নদী থেকে মৃত ডলফিন উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা

উরকিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল ও এলাকার লোকজন জানান, সকাল ১১ টার সময়ে হালদা নদীতে জোয়ারের সময়ে মৃত ডলফিনটি নদীর পানিতে ভেসে আসলে এলাকার লোকজন ডলফিনটি ধরে নদীর তীরের নিয়ে আসে।

ডলফিনটি কর্ণফুলী নদীতে চলাচলকারী ড্রেজার বা যান্ত্রিক নৌযানের আঘাতে মারা গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মৃত ডলফিনটি কয়েক দিন আগে মারা যায় বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে হালদা নদীতে মা মাছ ডিম ছাড়ার  মৌসুমকে কেন্দ্র করে হালদা নদীতে রাউজান উপজেলা প্রশাসন ও হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসন নিয়মিত টইল প্রদান করে আসছে। হালদা নদীতে যান্ত্রিক নৌযান চলাচল ও মাছ শিকার বন্ধ করা হয়েছে। ডলফিনটি হালদা নদীর সাথে সংযুক্ত কর্ণফুলি নদীতে চলাচলকারী নৌযানের আঘাতে মারা যায় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম বন্যপ্রাণি সংরক্ষণ বিভাগের সদর রেঞ্জ কমকর্তা মো. ফরিদ উদ্দিন তালুকদার বাদি হয়ে রাউজান থানায় একটি জিডি করেন । গত ১৫দিন আগেও হালদা নদীর রাউজানের মইশকরম এলাকায় নদীর তীরে একটি ডলফিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।