সুদ কারবারির এ কেমন বর্বরতা!

0
186

চকরিয়ায় দু’হাজার টাকার জন্য নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া <
চকরিয়ায় সুদের টাকা না দেয়ায় এক নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করেছে সুদের কারবারি। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের পহরচাদা গ্রামের মোরাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।
নির্যাতনের ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে ঘটনা পুলিশের নজরে আসে। বুধবার পুলিশ তাৎক্ষণিক ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে নির্যাতনকারীর বাবাকে আটক করে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বরইতলী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নিয়াজুল ইসলাম বাদল। তিনি বলেন, কয়েক মাস আগে বরইতলী ইউনিয়নের পহরচাদা গ্রামের মোরাপাড়া নুর আয়েশা তার স্বামীর চিকিৎসার জন্য প্রতিবেশী শওকত ওসমানের কাছ থেকে চার হাজার টাকা সুদের ওপর ধার নেয়। ইতোমধ্যে নুর আয়েশা সুদে-আসলে মোট ৮ হাজার টাকা পরিশোধও করেছে। কিন্তু সর্বশেষ মঙ্গলবার দুপুরের সুদের কারবারি শওকত ওসমান ওই নারীর বাড়িতে গিয়ে আরো দুই হাজার টাকা দাবি করে। ওইসময় নুর আয়েশা দাবিকৃত ওই দুই হাজার টাকা বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে তা মানতে নারাজ শওকত ওসমান। এনিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে শওকত ওই নারীকে টেনে-হেঁচড়ে বাড়ির উঠানে নিয়ে গিয়ে একটি গাছের সাথে বেঁধে মারধর ও অমানবিক নির্যাতন করে।
বরইতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জালাল আহমদ সিকদার বলেন, ঘটনা জানার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এরপর সত্যতা নিশ্চিত হয়ে বিষয়টি চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসিকে জানানো হয়েছে। এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেখার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। অভিযুক্ত শওকতকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তার বাবা জহির আহমদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।