সিডিএকে মৌজা ম্যাপ ও খতিয়ান জমা দিতে বললো পরিবেশ অধিদপ্তর

0
304

ফলোআপ: ‘লেক ভরাট করে সিডিএ সচিবকে প্লট!’

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পরিবেশ অধিদপ্তরে সিলিমপুর আবাসিক এলাকার মৌজা ম্যাপ এবং খতিয়ান জমা দেবে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। ‘লেক ভরাট করে সিডিএ সচিবকে প্লট!’ শীর্ষক প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পরিবেশ অধিদপ্তরের এনফোর্সমেন্ট মামলার শুনানিতে গতকাল এই সিদ্ধান্ত হয়। একইসাথে পরিবেশের স্বার্থে লেক ভরাট করা যাবে না বলেও জানিয়ে দেয়া হয়। পরবর্তী শুনানির তারিখ আগামী ৯ সেপ্টেম্বর নির্ধারণ করেন।
পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক মোয়াজ্জম হোসেন বলেন, ‘আজকের (বুধবারের) শুনানিতে সিডিএ’র প্রকৌশলীরা এসেছিল। তারা লেক ভরাটের কোনো কার্যক্রম নেয়নি বলে জানিয়েছে। একইসাথে আমাদের পরিবেশ অধিদপ্তরের লোকজনও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি রিপোর্ট দিয়েছে। সেই রিপোর্টেও বাস্তবে লেক ভরাটের কোনো কার্যক্রম চোখে পড়েনি।’
তিনি আরো বলেন, পরিবেশ আইনে লেক ভরাট করা যাবে না। সেজন্য প্রকল্প এলাকার মৌজা ম্যাপ ও খতিয়ান পরিবেশ অধিদপ্তরে জমা দেয়ার জন্য বলেছি।
এক প্রশ্নের জবাবে পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক মোয়াজ্জম হোসেন বলেন, যদি তারা লেক ভরাট না করে তাহলে আমাদের কোনো আপত্তি থাকবে না। মৌজা ম্যাপ ও খতিয়ান দাখিলের পর এনফোর্সমেন্ট মামলার নিষ্পত্তি হয়ে যাবে।
জানা যায়, সিডিএ’র পক্ষে তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ এ এম হাবিবুর রহমান ও সিলিমপুর আবাসিক এলাকার প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ হাসান শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সীতাকু- থানাধীন সিডিএ’র সিলিমপুর আবাসিক এলাকার ‘লেক ভরাট করে সিডিএ সচিবকে প্লট!’ শীর্ষক প্রতিবেদন গত ১৮ আগস্ট সুপ্রভাত বাংলাদেশে প্রকাশিত হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে পরিবেশ অধিদপ্তরে এনফোর্সমেন্ট আইনে মামলা দায়ের করে সিডিএকে শুনানির জন্য ডাকে।