সিএসকে ক্যাপ্টেন হিসেবে ১০০ ম্যাচে জয় ধোনির

0
183

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
এভাবেও ফিরে আসা যায়! ৪৩৭ দিন পর মহেন্দ্র সিং ধোনির বাইশ গজে ফিরে আসার এটাই সেরা ক্যাচলাইন। শনিবার মরু শহর সাক্ষী থাকল ধোনির প্রত্যাবর্তনের। সেই সঙ্গে মাইলস্টোনেও। এদিন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে ২০২০ আইপিএল শুরু করল চেন্নাই সুপার কিংস। সেই সঙ্গে সিএসকে ক্যাপ্টেন হিসেবে আইপিএলে ১০০ তম ম্যাচ জয়ের নজির গড়লেন ধোনি।
মরু শহরে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হারের ধারা অব্যাহত। এ নিয়ে টানা ছ’ ম্যাচ হার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের। কিন্তু প্রথম ম্যাচে জয়ের হ্যাটট্রিক করল চেন্নাই সুপার কিংস। ২০১৮ ও ২০১৯ সালে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের পর ২০২০ আইপিএলের প্রথম ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে নজির গড়লো ধোনি অ্যান্ড কোং।
গতবারের চ্যাম্পিয়ন ২০২০ আইপিএলের প্রথম ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে পাঁচ উইকেটে হারে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। এদিন আবুধাবির দর্শকশূন্য শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাটিং করে ৯ উইকেটে ১৬২ রান তুলেছিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। রান তাড়া করতে নেমে চার বল বাকি থাকতেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ জিতে নেয় সুপার কিংস।
গত মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর ধোনি এদিন মাঠেন সিএসকে জার্সিতে। তবে এদিন দুই তারকা ক্রিকেটার ডোয়েন ব্র্যাভো ও ইমরান তাহিরকে বাইরে রেখে মাঠে নামে সুপার কিংস। তবে রান তাড়া করতে বিশেষ বেগ পেতে হয়নি ধোনিদের। ১৬৩ রান তাড়া করতে গিয়ে শুরুতেই দুই ওপেনার শেন ওয়াটসন এবং মুরলী বিজয়ের উইকেট হারালেও অম্বাতি রায়ডু ও ফ্যাফ ডু’প্লেসি ব্যাটে সহজ জয় ছিনিয়ে নেয় সুপার কিংস।
৪৮ রানের ম্যাচ জেতানো ৭১ রান করে ম্যাচের সেরা হন রায়ডু। এটি আইপিএলের তার ১৯তম হাফ-সেঞ্চুরি। আর ৫৮ রান অপরাজিত থাকেন ডু’প্লেসি। তৃতীয় উইকেটে ১১৫ রানের পার্টনারশিপ গড়ে দলকে নিশ্চিত জয়ে পৌঁছে দিয়েছিলেন দু’জনে। রায়ডু আউট হলেও শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠে ছাড়েন ডু’প্লেসি। খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।