‘শিল্প ও সাহিত্য আমাদের অমূল্য সম্পদ’

0
156

কদম মোবারক এম.ওয়াই উচ্চ বালক-বালিকা বিদ্যালয়ে জয় বাংলা শিল্পী গোষ্ঠী চট্টগ্রাম এর উদ্যোগে পঞ্চকবি ‘রবীন্দ্র-নজরুল-মাইকেল মধুসূদন-জীবনানন্দ-সুকান্ত’কে নিবেদিত স্মরণাঞ্জলী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গান, কবিতা ও কথামালা দিয়ে সাজানো অনুষ্ঠানে সজল দাশ এর সঞ্চালনায় কবি ও সাংস্কৃতিক সংগঠক আশীষ সেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন সমাজসেবক লায়ন এ.কে. জাহেদ চৌধুরী।

উদ্বোধক ছিলেন সাংস্কৃতিক সংগঠক ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. জসীম উদ্দিন চৌধুরী। অতিথি ছিলেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক ভানুরঞ্জন চক্রবর্ত্তী। প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠক মো. আবদুর রহিম। বিশেষ আলোচক ছিলেন শিল্পী ইমরান ফারুকী, যুবলীগ নেতা আজম খান চৌধুরী, সুরজিৎ সেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন জয় বাংলা শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাত সভাপতি সজল দাশ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সাথী কামাল, শিল্পী অচিন্ত্য কুমার দাশ, নারায়ণ দাশ, হানিফুল ইসলাম চৌধুরী, দিলীপ সেনগুপ্ত, ছড়াকার তসলিম খাঁ, সবুজ চৌধুরী রকি, হারাধন নাহা বাসু ও নিলয় দে।

উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক দুলাল বড়–য়া, মো. ছবির আহমদ, শিমুল দত্ত, সম্রাট আওরঙ্গজেব খান, মো. তিতাস, মাছুয়া কামাল আঁখি, প্রিয়াংকা মন্ডল, নবদেব আচার্য ও জাফর আলম প্রমুখ।

শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক অচিন্ত্য কুমার দাশ এর পরিচালনা অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী নারায়ণ দাশ, হানিফুল ইসলাম চৌধুরী, শিল্পী কাকলী দাশগুপ্তা, সমীরণ পাল। প্রধান অতিথি লায়ন এ.কে. জাহেদ চৌধুরী বলেন, ‘রবীন্দ্র-নজরুল-মাইকেল মধুসূদন-জীবনানন্দ-সুকান্তের লেখা গান, কবিতা, নাটক, চলচ্চিত্র, উপন্যাস মুক্তিকামী জনতাকে উজ্জীবিত করেছে। উদ্বোধক মো. জসীম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমাদের শিল্প ও সাহিত্য আমাদের অমূল্য সম্পদ। বিজ্ঞপ্তি