রজনীকান্তের বাড়িতে বোমা আতঙ্ক

256

সুপ্রভাত ডেস্ক :
বোমাতঙ্ক সুপারস্টার রজনীকান্তের বাড়িতে! বৃহস্পতিবার সকালে ফোন পেয়েই চেন্নাই পুলিশের বম্ব ডিটেকশন অ্যান্ড ডিসপোজেবল স্কোয়াড তড়িঘড়ি ছুটেছে অভিনেতার বাড়ি।
সকাল ১১টা নাগাদ চেন্নাইয়ের অ্যাম্বুল্যান্স কন্ট্রোল সেন্টারে একটি ফোন আসে। সেখানেই কোনও এক ব্যক্তি জানান যে রজনীকান্তের চেন্নাইয়ের পোয়েস গার্ডেনের বাসভবনে বোমা রাখা রয়েছে। খবর পেয়েই অভিনেতার বাড়িতে তৎক্ষণাৎ পুলিশি কুকুর এবং বম্ব স্কোয়াড নিয়ে পৌঁছে যায় চেন্নাই পুলিশের একটি টিম। অন্যদিকে, প্রিয় অভিনেতার বাড়িতে বোমাতঙ্কের কথা প্রকাশ্যে আসতেই রজনীকান্তের পোয়েস গার্ডেনের বাড়ির বাইরে ভিড় জমে যায়। অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে গেটের বাইরে কৌতূহলী জনতার ভিড় সামাল দিতে হয় পুলিশ বাহিনীকে। কিন্তু অবাক করার মতো ব্যাপার, বোমাতঙ্ক ছড়ালেও করোনার ভয়ে পুলিশদের অন্দরমহলে ঢুকতে দিতেই প্রথমটায় নারাজ ছিলেন রজনীকান্তের পরিবারের সদস্যরা।
অনেকক্ষণ বাড়ির বাইরে অপেক্ষা করতে হয় বম্ব স্কোয়াডের টিমকে। অবস্থা বেগতিক দেখে চেন্নাই পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মী তড়িঘড়ি ফোন করেন অভিনেতাকে। তারপরই তাদের ঢুকতে দেওয়া হয় বাসভবনের অন্দরমহলে। চিরুনি তল্লাশি শুরু করা হয়েছে পুলিশের তরফে। এখনও যদিও কোনও কিছুই পাওয়া যায়নি। তবে অ্যাম্বুল্যান্স কন্ট্রোল সেন্টারে আসা ফোন কে করেছিল? কোথা থেকে এসেছিল? তার খোঁজ চলছে।
উল্লেখ্য, করোনা আবহে সতর্কতা অবলম্বনের জন্য দীর্ঘ তিন মাস ধরেই রজনীকান্তের পরিবার গৃহবন্দি। অনুমতি ছাড়া বাইরের কারও প্রবেশ একেবারে নিষিদ্ধ। এর মাঝেই বৃহস্পতিবার বেলা নাগাদ চেন্নাই পুলিশের কাছে খবর এল যে দক্ষিণী সুপারস্টারের বাড়িতে বোম রয়েছে। ফোন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চায়নি চেন্নাই পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছলেও অভিনেতার পরিবার তাদের অপেক্ষা করিয়ে রাখে বাইরে।
খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।