পর্যটন-কৃষিখাতে আমেরিকান বিনিয়োগের প্রস্তাব সুজনের

0
129

চসিক প্রশাসকের সাথে আমেরিকান অ্যাম্বেসির চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্সের সাক্ষাৎ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজনের সাথে আমেরিকান অ্যাম্বেসির চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স মিস জো এনি ওয়াগনার গতকাল রোববার সকালে টাইগারপাসের করপোরেশনের অফিসের তাঁর দপ্তরে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসেন।
সাক্ষাৎকালে প্রশাসক আমেরিকান অ্যাম্বেসির চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্সকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।
প্রশাসক ও চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্সের দ্বি-পাক্ষিক আলাপ আলোচনায় চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধি, চট্টগ্রামসহ দেশের পোশাক শিল্পের সম্ভাবনা ও অগ্রগতি, কর্ণফুলী ট্যানেল, চট্টগ্রামের ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্ভাবনা, ট্যুারিজমে বিনিয়োগের বিষয় উঠে আসে। আলাপকালে প্রশাসক সুজন জো এনি ওয়াগনরকে পর্যটন খাতে আমেরিকান বিনিয়োগের আহ্বান জানান। তিনি বন্দর নগরী চট্টগ্রামের ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্ভাবনার দিক উল্লেখ করে বলেন, মহেষখালীতে নির্মাণাধীন গভীর সমুদ বন্দর, বে-টার্মিনাল ও কর্ণফুলী নদীর তলদেশে ট্যানেল নির্মাণের কারণে চট্টগ্রাম নগরী টু-ইন সিটিতে রূপান্তর হতে যাচ্ছে। ফলে ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিধি বৃদ্ধি ও দেশের অর্থনীতিতে গতি সঞ্চার হবে। তিনি চার্জ দ্যা আ্যাফেয়ার্সকে কৃষি নির্ভর বাংলাদেশের সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে কৃষিকাজেও বিনিয়োগ করতে বলেন। প্রশাসক বলেন বাংলাদেশ বন্দর, পোশাকখাত,কৃষি নির্ভরতার ওপর ভর করে এই করোনাতেও অর্থনীতিকে দুর্বার গতিতে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। সার্বিক আলাপে চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স প্রশাসকের প্রস্তাব বিবেচনায় নিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্যে তাঁর দেশের বিনিয়োগে সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস দেন।
এ সময় চসিকর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, সচিব মোহাম্মদ আবু শাহেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল সোহেল আহাম্মেদ, প্রশাসকের একান্ত সচিব আবুল হাশেম আমেরিকান এ্যাম্বেসি ঢাকা অফিসের কমার্শিয়াল অফিসার (অর্থনীতি) মি. জেফ ড্রিকস, ফরেইন এগ্রিকালচার সাভির্সের মি. টেইলর বেবোকক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক মি.ইশতেয়াক আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি