কমিউনিটি কেন্দ্রিক আর্ট প্রকল্প চালু

0
216
‘শিকড় রুটস’ আর্ট প্রকল্পের একটি পোস্টার

‘বাংলাদেশ আর্ট উইক’

প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে স্মরণীয় করে রাখতে ‘বাংলাদেশ আর্ট উইক’ শিরোনামে তিনমাসব্যাপী কমিউনিটি কেন্দ্রিক আর্ট প্রকল্প চালু করেছে বাংলাদেশ আর্ট উইক (বিএডব্লিউ)।
‘শিকড় রুটস’ এর ফাস্ট এডিশন চলতি আগস্ট মাস থেকে অক্টোবর পর্যন্ত চট্টগ্রাম ও সিরাজগঞ্জে একসাথে প্রকল্পটি শুরু হয়েছে। উদ্যোক্তাদের আশা, এই প্রকল্প শিল্পী ও ডিজাইনারদের সঙ্গে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা লোকাল কলাকুশলী, কারুশিল্পী এবং তাঁতি ও কারিগরদের মধ্যে সমন্বয় সাধন করা। এই প্রকল্পের মাধ্যমে চট্টগ্রাম ও সিরাজগঞ্জের ৭৭ জন স্থানীয় শিল্পী ও তাদের পরিবারের ৩৮৭ জন সদস্য প্রশিক্ষণ ও আর্থিকভাবে উপকৃত হবেন। এ কার্যক্রমের মাধ্যমে কভিড ১৯ পেনডেমিক এর কারণে ক্ষতিগ্রস্ত তৃণমূলের শিল্পী যেমন তাঁতি, কামার, কুমার, কাঠমিস্ত্রি, রাজমিস্ত্রি, জেলে, লোকশিল্পী, স্বর্ণকার, বাঁশ-বেতের কাজে জড়িত জনগোষ্ঠী এবং শীতলপাটি তৈরির কাজে সংশ্লিষ্টরা সরাসরি লাভবান হবেন। চলমান এই কার্যক্রমের মাধ্যমে চট্টগ্রাম ও সিরাজগঞ্জের এসব শিল্পীরা টানা তিনমাস আর্থিক ও অন্যান্য সহযোগিতা পাবেন।
বাংলাদেশ আর্ট উইক এর প্রতিষ্ঠাতা নীহারিকা মমতাজ পুরো ‘শিকড় রুটস’ আর্ট প্রকল্পের কিউরেটার। চট্টগ্রাম থেকে সঞ্জয় কুমার দাশ এবং সিরাজগঞ্জ থেকে জাহাঙ্গীর আলম প্রকল্পে সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন। ডিজাইন ও শিল্প জগতের ব্যক্তিত্বরা ইতিমধ্যে স্থানীয় পর্যায়ের কারিগর, তাঁতি ও কলাকুশলীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রকল্পের বিষয়টি অবহিত করেছেন। তাদের তত্ত্বাবধানে সৃষ্টিশীল কর্মকা- চলমান রয়েছে।
চলতি আগস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত তৃণমূল পর্যাায়ের (কমিউনিটি কেন্দ্রিক) কার্যক্রম শেষে আগামী নভেম্বরে একটি প্রদর্শনীর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যেসব শিল্পের কাজ এই প্রদর্শনীতে থাকবে তা হলো-গামছা আর্ট, বিভিন্ন তাঁতের প্রদর্শনী, হস্তশিল্প, নক্শিকাথা, হস্তচালিত তাঁতের কাজ (হ্যান্ডলুম), নৌকা, ম্যুরাল আর্ট, লোকশিল্প, বাউল সঙ্গীত ইত্যাদি। এ ছাড়াও জাহাঙ্গীর আলম এর পরিচালনায় সিরাজগঞ্জের কারুশিল্পীদের বাচ্চাদের জন্য তিন মাস জুড়ে আর্ট ওয়ার্কশপ করা হবে। দি আর্ট উইকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ মহসিন এ প্রসঙ্গে বলেন, এই প্রকল্পের মাধ্যমে শিল্পকর্মে তৃণমূলে অবস্থিত শিল্পী ও কারিগরদের অংশগ্রহণ বাড়বে এবং তাদের জন্য নতুন ভবিষ্যত তৈরির পথ সুগম হবে। আমরা যে যেখানেই থাকিনা কেন আমাদের রুটস গ্রামেই। সে গ্রামের মানুষগুলোর ভাগ্য পরিবর্তন করতে না পারলে দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখা সম্ভব না। দি আর্ট উইক এর প্রতিষ্ঠাতা নীহারিকা মমতাজ বলেন, বাংলাদেশ আর্ট উইক এর উদ্দেশ্য হলো এই প্রকল্পের মাধ্যমে শিল্পী, ডিজাইনার, কলাকুশলী এবং তৃণমূল পর্যায়ের স্বল্প আয়ের কর্মরত তাঁতি ও বিভিন্ন কারিগরদের মধ্যে সমন্বয় সাধন করা। বিজ্ঞপ্তি