ইউএস ওপেনের শেষ চারে ওসাকা

0
243

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
ক্যারিয়ারে এর আগে তিনবারের সাক্ষাতে শেলবি রজার্সের বিরুদ্ধে জয়ের মুখ দেখেননি। তাই ইউএস ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে অবাছাই মার্কিনী প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে কোর্টে নামার আগে সাবধানী ছিলেন বিশ্বের ৯ নম্বর নাওমি ওসাকা। চাকা ঘুরল এক্ষেত্রে। শেলবি রজার্সকে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেলেন ২০১৮ চ্যাম্পিয়ন নাওমি।
মাত্র এক ঘণ্টা ২০ মিনিটেই কোয়ার্টারে শেলবি হার্ডলস টপকে গেলেন ওসাকা। দু’বারের গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ীর পক্ষে ম্যাচের ফল ৬-৩, ৬-৪। বৃহস্পতিবার শেষ চারের লড়াইয়ে ওসাকার প্রতিদ্বন্দ্বী আরেক মার্কিনী জেনিফার ব্র্যাডি। কোয়ার্টার ফাইনালে পরিষ্কার ফেভারিট হয়ে নামা সত্ত্বেও অতীত পরিসংখ্যানের কথা মাথায় রেখে ম্যাচের আগে তার শঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন ওসাকা। তাই মঙ্গলবার রজার্সের বিরুদ্ধে জয়কে ‘বদলা’ হিসেবেই দেখছেন জাপানি তারকা।
ম্যাচ জয়ের পর বিশ্বের ৯ নম্বর জানিয়েছেন, ‘এর আগে আমি ওকে কখনও হারাতে পারিনি। কোর্টে নামার আগে অতীতের পরিসংখ্যানগুলোই আমার মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিল। স্বাভাবিকভাবেই আমি জয়টাকে বদলা বলতেই পারি।’ একইসঙ্গে ওসাকা বলেন, ‘কোর্টে আজ আমার ইতিবাচক মনোভাব আমায় খুব আনন্দ দিয়েছে।’ উল্লেখ্য, ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনের সমর্থনে মঙ্গলবার ফ্লাশিং মেডো কোয়ার্টারে জর্জ ফ্লয়েডের নাম লেখা মাস্ক পরে কোর্টে নামেন ওসাকা।
গত সিনসিনাটি ওপেনের সেমিফাইনাল থেকে ওসাকার নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত এখনও অনুরাগীদের স্মৃতিতে টাটকা। যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনশিন প্রদেশের কেনোশা শহরে সম্প্রতি জ্যাকব ব্লেক নামে এক অ্যাফ্রো-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গকে পুলিশ একাধিকবার গুলিবিদ্ধ করার ঘটনায় সিনসিনাটির সেমিফাইনালে থেকে প্রাথমিকভাবে সরে দাঁড়িয়েছিলেন ওসাকা। তার সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে একটি দিনের খেলা স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষ। যদিও পরে সেই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে কোর্টে নেমেছিলেন জাপানের তারকা প্লেয়ারটি।
অন্যদিকে পুরুষদের কোয়ার্টার ফাইনালে পিছিয়ে পড়েও সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে নিলেন আলেকজান্ডার জেরেভ। ক্রোয়েশিয়ার বোর্না করিচের বিরুদ্ধে ১-৬ প্রথম সেট হেরেও কোয়ার্টার ফাইনালে দারুণ কামব্যাক করলেন জার্মান তারকা। ১-৬, ৭-৬ (৫), ৭-৬ (১), ৬-৩ সেটে করিচকে হারিয়ে প্রথমবার ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালে পৌঁছলেন জেরেভ। খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।