অগ্নিকাণ্ডে ফটিকছড়ি ও মিরসরাইয়ে পুড়ে গেছে তিন বসতঘর

0
142

নিজস্ব প্রতিনিধি, ফটিকছড়ি ও মিরসরাই :

ফটিকছড়ি ও মিরসরাইয়ে অগ্নিকা-ের ঘটনায় তিন বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মঙ্গলবার পৃথক এ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, ফটিকছড়ি উপজেলার ভূজপুর থানার ভূজপুর ইউপি’র ১নম্বর ওয়ার্ডস্থ শীল বাড়ী নাথ পাড়ায় আগুন লেগে পাঁচ পরিবারের ঘর পুড়ে গেছে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগুন লাগার কিছুক্ষণ পর দমকল কর্মীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ নাসু বলেন, নাথ পাড়ায় আগুন লেগে পাঁচ পরিবারের ঘর পুড়ে গেছে। পুড়ে যাওয়া ওই লম্বা ঘরে একইসাথে পাঁচ হিন্দু পরিবার বসবাস করতেন।
ফটিকছড়ি ফায়ার ইনচার্জ পুলক কান্তি সরকার বলেন, আগুন লাগার সময় কোন পুরুষ ঘরে ছিলনা। ঘরটি মাটির এবং অনেক পুরনো। বৈদ্যুতিক তারগুলোর কোন সংস্কার করা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত ঘটে।
এদিকে, মিরসরাইয়ে অগ্নিকা-ে দুই বসতঘরের ৬টি কক্ষ পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটায় উপজেলার হিঙ্গুলী ইউনিয়নের মেহেদী নগর এলাকায় এ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকা-ে আব্দুল কাদেরের ৪টি ও তার ভাই আব্দুর সালামের ২টি কক্ষ পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্তরা।
প্রত্যক্ষদর্শী দুলাল মিয়া ও রেজাউল করিম ইমন জানান, মঙ্গলবার রাত দিবাগত রাত আড়াউটায় মেহেদীনগর গ্রামের আব্দুল কাদেরের ভাড়াটিয়া সোলেমানের রান্না ঘরে আগুন দেখে স্থানীয়রা চিৎকার করতে থাকে। পরে এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই ৬টি কক্ষ পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
ক্ষতিগ্রস্ত আব্দুর সালাম জানান, অগ্নিকা-ে সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।
মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা তানভীর আহমেদ বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত আড়াই ২টায় মেহেদী নগর এলাকায় অগ্নিকা-ে ১০ রুম বিশিষ্ট ২ বসতঘরে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। অগ্নিকা-ে ৪০ হাজার টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।