স্মিথ-ওয়ার্নারদের মাথা ব্যথার কারণ হয়ে উঠতে পারেন কুলদীপ : চ্যাপেল

0
204

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
চলতি বছর ডিসেম্বরে ভারত অস্ট্রেলিয়া সফরে এলে অজি ব্যাটসম্যানদের মাথা ব্যাথ্যার কারণ হয়ে উঠতে পারেন টিম ইন্ডিয়ার বাঁ-হাতি রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব। এমনটাই মনে করেন ইয়ান চ্যাপেল। ইএসপিএন ক্রিকইনফোও নিজের কলামে এমনটাই লিখেছেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক।
সম্প্রতি বিরাটের দলের পেস আক্রমণ বিশ্বের সেরার তকমা পেয়েছে। তবে আসন্ন গ্রীষ্মে অস্ট্রেলিয়ার পিচে স্পিনাররাই বেশি কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করেন চ্যাপেল। ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরে এখনও প্রায় ছ’মাস দেরি রয়েছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উপর নির্ভর করে সফরের সময়সূচী পরিবর্তিত হতে পারে। তবে বিশেষজ্ঞরা এবং প্রাক্তন ক্রিকেটাররা ইতিমধ্যে উভয় দলের কৌশল অবলম্বন শুরু করতে শুরু করে দিয়েছেন।
ভারতীয় দলের পেসাররা এই মুহূর্তে যে কোনও দলের রাতের ঘুম কেড়ে নিতে পারেন। সম্প্রতি মুহাম্মদ শামি ও জসপ্রীত বুমরাহ বিদেশের মাটিতে গিয়েও দাপট দেখিয়েছেন। ইয়ান চ্যাপেল বিরাটেদর দলের ফাস্ট বোলারদের পাশাপাশি স্পিনারদের নিজেই বাজি ধরছেন। বাঁ-হাতি স্পিনার কুলদীপকেই অজি সফরে ভারতের তুরুপের তাস বলে মনে করছেন তিনি।
চ্যাপেল লিখেছেন, ‘কুলদীপের রিস্ট স্পিন অস্ট্রেলিয়ার পিচে উইকেট আনতে পারে। তবে তার জন্য অবশ্য দল নির্বাচনে আরও সাহসী হতে হবে। এই বছরের শেষদিকে যখন তারা বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফির রক্ষার চেষ্টা করে তখন একাদশে স্পিনার বেছে নেওয়া ভারতের পক্ষে অন্যতম প্রধান মাথাব্যাথা হয়ে দাঁড়াবে বলে মনে করেন চ্যাপেল।’
সীমিত ওভারের ক্রিকেটে কুলদীপ ভারতীয় বোলিং বিভাগের অন্যতম অস্ত্র। ৬টি টেস্ট ম্যাচ এখনও পর্যন্ত তিনি খেলেছেন। ৬টি টেস্ট থেকে ২৪টি উইকেট তিনি নিয়েছেন। শেষ টেস্ট অবশ্য কুলদীপ খেলেছেন গত বছর অস্ট্রেলিয়ার মাঠেই। চ্যাপেল বলছেন, ‘স্পিনার নির্বাচন করাই কঠিন কাজ নির্বাচকদের কাছে। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের রেকর্ড ভাল। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে রেকর্ড ভাল নয়। রবীন্দ্র জাদেজার অলরাউন্ড প্রতিভা এবং বোলিংয়ের ফর্ম তাকে চ্যালেঞ্জার করে তুলতেই পারে।’
একজন স্পিনার বেছে নেওয়া ভারতীয় নির্বাচকদের জন্য বড় মাথাব্যথা প্রমাণ করবে। অশ্বিনের দুর্দান্ত সামগ্রিক রেকর্ড রয়েছে, তবে অস্ট্রেলিয়ায় তেমন কিছু নেই। রবীন্দ্র জাদেজার চতুর্থ প্রতিভা এবং উন্নত বোলিং ফর্ম তাকে বৈধ প্রতিদ্বন্দ্বী করে তোলে বলেও মনে করেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক।
খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।