স্মার্ট বাকলিয়া গড়তে ধানের শীষে সমর্থন চাই

0
107

গণসংযোগকালে শাহাদাত
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছন, আমি বাকলিয়ার সন্তান। বাকলিয়া আমার নিজের এলাকা। এখানকার মানুষের সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক। এক সময়ের অনুন্নত এ বাকলিয়াকে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে শহরে রূপদান করা হয়েছে। পরে বাকলিয়ার প্রতি নজর দেয়নি বর্তমান সরকার। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে বাকলিয়াকে একটি মাদক, সন্ত্রাস ও আর্বজনামুক্ত আধুনিক স্মার্ট বাকলিয়ায় পরিণত করবো।
তিনি শুক্রবার দিনব্যাপী নগরীর ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়া, ১৮ নম্বর পূর্ব বাকলিয়া ও ১৯ নম্বর দক্ষিণ বাকলিয়া এলাকায় ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগকালে এসব কথা বলেন।
তিনি বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, হাবিবুন নবী খান সোহেল, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, শহীদুল ইসলাম বাবুল, ব্যারিস্টার মীর হেলাল উদ্দিনকে সাথে নিয়ে ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়া ওর্য়াডের রাহাত্তারপুল মোড় থেকে গণসংযোগ শুরু করে মাজারগলি, ডেপুটি রোড, কালামিয়া বাজার, সৈয়দ শাহ রোড, কে বি আমান আলী রোড, ধনীরপুল, ডিসি রোড হয়ে আফগান মসজিদ এলাকায় এসে শেষ করে। ১৯ নম্বর দক্ষিণ বাকলিয়ার ওর্য়াডের বউ বাজার খাজা হোটেলের সামনের থেকে শুরু হয়ে ডাল বাড়ি, ময়দার মিল, চর চাক্তাই স্কুল, আলী স্টোর বিল্ডিং, আবু জফুর রোড়, তুলাতলি, নয়া মসজিদ, জামাই বাজার, ইসমাইল ফয়েজ রোড়, আমিনুর রহমান হাজী রোড় হয়ে মিয়াখান সওদাগর পুল এসে শেষ হয়।
এ সময় ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, বৃহত্তর বাকলিয়ার উন্নয়নে বিএনপির অবদান সবচেয়ে বেশি। বাকলিয়ায় এক সময় কোনো স্কুল কলেজ ছিল না। শিক্ষার মান উন্নত করার জন্য বিএনপির সময়ে বাকলিয়ায় উচ্চ ও মাধ্যমিক স্কুল এবং একমাত্র শহীদ এনএমজে ডিগ্রি কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। তাছাড়া বাকলিয়া স্টেডিয়াম ও কর্ণফুলী শাহ আমানত সেতু নির্মাণ করা হয়েছিল। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে বৃহত্তর বাকলিয়া বাসীর জন্য চাইল্ড কেয়ার ও মাতৃসদন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করবো।
গণসংযোগকালে বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, এখানকার রাস্তাঘাট, অলিগলি সবই ডা শাহাদাতের চেনাজানা। দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত থাকা এ বাকলিয়ায় বিএনপির আমলে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। বাকলিয়া বাসীর প্রতি বিএনপির অনেক দাবি আছে। সেই দাবি নিয়ে আমরা ডা. শাহাদাত হোসেনের জন্য ধানের শীষে ভোট চাইতে এসেছি।
গণসংযোগকালে বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব হাবিবুন নবী খান সোহেল বলেন, ভোটের দিন সকালে সকালে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভোট কেন্দ্র পাহারা দিয়ে পাশাপাশি ভোটে বাধাদানকারীদের প্রতিহত করে ভোটের অধিকার আদায় করে নিতে হবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল, সদস্য ব্যারিস্টার মীর মো. হেলাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এস কে খোদা তোতন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ, দক্ষিণ বাকলিয়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী ইয়াছিন চৌধুরী আসু, বিএনপি নেতা ইসহাক চৌধুরী আলীম, এম আই চৌধুরী মামুন, ইব্রাহিম বাচ্চু, আমীন মাহমুদ, একে খান, আফতাবুর রহমান শাহীন, আলমগীর নুর, ইঞ্জিনিয়ার মেজবাহ উদ্দিন রাজু, পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী হাসান লিটন, পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আরিফুল ইসলাম ডিউক, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী শামিমা নাসরিন, ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি হাজী নবাব খান, মো. সেকান্দর, আব্দুল্লাহ আল ছগির, সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. এমরান, অঙ্গসংগঠনের নেতা ম হামিদ, এমদাদুল হক বাদশা প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি