সাতকানিয়ায় ইয়াবা বেপারির ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত, গুরুতর আহত অপর সহোদর

0
349
মোহাম্মদ সোহেল

ইয়াবা ব্যবসার প্রতিবাদের জের

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া :

সাতকানিয়ায় ইয়াবা ব্যবসার প্রতিবাদ করার জের ধরে  চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলীর ছেলে মোহাম্মদ সোহেল এর ছুরিকাঘাতে প্রতিবাদী যুবক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন অপর সহোদর। নিহত যুবকের নাম মোসাদ্দেকুর  রহমান (৩৬)। গুরুতর আহত অপর সহোদরের নাম মোহাম্মদ ফয়সাল(৩২)। সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার সময় উপজেলার সদর ইউনিয়নের আদর্শ পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ও আহত দুই সহোদর এলাকার মাহবুবুর রহমানের ছেলে।

জানা যায়, গত ৬ মাস আগে সাতকানিয়া সদর ইউনিয়নে এলাকায় গণ্যমান্যদের নিয়ে মাদক নির্মূল কমিটি নামে একটি কমিটি গঠিত হয়। ওই কমিটির প্রধান উপদেষ্টা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব নেন মোসাদ্দেকুর রহমান। কমিটি গঠনের পর এলাকায় মাদক বিরোধি তৎপরতা শুরু হলে এলাকার চিহ্নিত মাদক বেপারী সোহেলসহ সকলেই মোসাদ্দেকের উপর ক্ষিপ্ত হয়। গত কয়েক দিন ধরে মাদক নির্মূল কমিটির লোকজনকে চিহ্নিত ইয়াবা কারবারি সোহেল বিভিন্ন গালিগালাজ ও হুমকি ধমকি দিতে থাকে। বিষয়টি কমিটির লোকজনের কানে আসলে মোসাদ্দেকসহ আরো ৮/১০ প্রতিবাদ করতে সোহেলের কাছে যান। ইউনিয়নের আদর্শ পাড়া মোবারকের বাড়ির পশ্চিম পাশে ইয়াবা ব্যবসায়ী সোহেলকে পেয়ে গালি দেয়ার কারন জিজ্ঞেস করলে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকটি ও ধাক্কা-ধাক্কি হয়। এক পর্যায়ে সোহেলের কোমরে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে মোসাদ্দেকের পেটে আঘাত করে। সাথে সাথে মোসাদ্দেকের নাড়িভূঁড়ি বের হয়ে যায়। এ সময় মোসাদ্দেকের ছোট ভাই ফয়সাল সোহলেকে ধরতে গেলে তাকেও পেটে ছুরিকাঘাত করে সোহেল পালিয়ে যায়।  ছুরিকাঘাতে ফয়সালও গুরুতর আহত হন। অন্যরা তাদের দু’জনকে উদ্ধার করে লোহাগাড়া একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান পরে অবস্থার অবনতি হলে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে গুরুতর আহত নিহতের আপন ছোট ভাই মোহাম্মদ ফয়সালকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গুরুতর আহত ফয়সাল বর্তমানে চমেক হাসপাতালে ২৭নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন।  নিহত মোসাদ্দেকুর রহমান চট্টগ্রাম নগরীর রিয়াজউদিন বাজারে আল মদিনা নামে একটি হোটেল ব্যবসা পরিচালনা করতেন। অপরদিকে তারই সহোদর গুরুতর আহত মোহাম্মদ ফয়সাল উপজেলা কেরানীহাট এলাকায় পুষ্টি কোম্পানির  ভোজ্য তেলের সোল এজেন্ট হিসেবে ব্যবসা পরিচালনা করতেন।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সফিউল কবীর বলেন, মাদক ব্যবসায়ী সোহেলের বিরুদ্ধে থানায় আপতত ১টি মাদক মামলার নথি খুঁজে পেয়েছি। সে এলাকার খুচরা মাদকের ব্যবসা করত। গতকাল ঘটনার সময় সদর ইউনিয়নের আদর্শ পাড়া এলাকায় সোহেলকে পেয়ে মোসাদ্দেক ও তার ভাই ফয়সালসহ আরো কয়েকজন মিলে মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গেলে সোহেলের কাছে থাকা ছুরি দিয়ে মোসাদ্দেকের পেটে স্টেপ করে। পরে ভাই ফয়সাল এগিয়ে গেলে তাকেও একই কায়দায় পেটে ছুরিকাঘাত করে। খুনি সোহেলেকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।