বৃহস্পতিবার থেকে শুরু দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান

0
79

বুধবারে প্রথম ডোজের টিকা নিলেন ৬০৫ জন
কাল চট্টগ্রামে আরো ৩ লাখ ৬ হাজার ডোজ টিকা আসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক <
আজ থেকে শুরু হচ্ছে করোনার দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম। ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে শুরু হয় প্রথম ডোজের টিকাদান কার্যক্রম।
প্রথমদিকে প্রথম ডোজ ও দ্বিতীয় ডোজের মাঝখানে ৪ সপ্তাহের ব্যবধান রাখলেও পরবর্তীতে ৮ সপ্তাহের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে আজ থেকে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হলেও পাশাপাশি চলবে ১ম ডোজের টিকাদানও।
চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী সুপ্রভাতকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে। পাশাপাশি প্রথম ডোজের টিকাদান কার্যক্রমও চলবে। যারা ৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছে তারা নিজ নিজ টিকাকার্ড দেখিয়ে দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে পারবেন।’ প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ একসাথে চালিয়ে যাওয়া সম্ভব কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. সেলিম আকতার বলেন, বর্তমানে আমাদের হাতে যে টিকাগুলো আছে তা দিয়ে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান চালিয়ে যাওয়া সম্ভব। এছাড়া শুক্রবার আমাদের হাতে কিছু টিকা আসার কথা রয়েছে। সেগুলো আসলে একই সাথে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ চালিয়ে যেতে অসুবিধা হবে না।
চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডা. মোহাম্মদ আসিফ খান বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে। যারা ৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন তারা দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে পারবে। এছাড়া প্রথম দিকে যাদের টিকা কার্ডে ৪ সপ্তাহ হিসেব করে তারিখ দেওয়া হয়েছে তারা যেদিন ৮ সপ্তাহ পূর্ণ হবে সেদিনই দ্বিতীয় ডোজের টিকার জন্য টিকাকেন্দ্রে আসতে পারবে। বর্তমানে আমাদের হাতে ৫০ হাজার ১০৩ ডোজ করোনার টিকা রয়েছে। এছাড় শুক্রবার সকালের দিকে আমাদের হাতে আরো ৩ লাখ ৬ হাজার ডোজ টিকা আসার কথা রয়েছে। সব ঠিক থাকলে আমরা প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান কার্যক্রম একসাথেই চালিয়ে যেতে পারবো।
এদিকে, সারাদেশ টিকাদান কর্মসূচির অষ্টম সপ্তাহে গতকাল বুধবার চট্টগ্রামে টিকা নিয়েছেন ৬৫০ জন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত চট্টগ্রামে টিকা নিয়েছেন ৪ লাখ ৩৪ হাজার ৬১৫ জন। এরমধ্যে নগরীতে ২ লাখ ৪২ হাজার ২০৬ জন এবং ১৪ উপজেলায় ১ লাখ ৯২ হাজার ৪০৯ জন।
বুধবার পর্যন্ত চট্টগ্রামে টিকার জন্য নিবন্ধন করেছে ৫ লাখ ২০ হাজার ১১৩ জন। এর মধ্যে নগরীতে ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮৬৩ জন এবং উপজেলায় ২ লাখ ৩৬ হাজার ২৫০ জন। বুধবার চট্টগ্রামে টিকা নেওয়া ৬৫০ জনের মধ্যে নগরীতে ৪০৯ জন এবং ১৪ উপজেলায় ২৪১ জন।
সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে বুধবার চট্টগ্রামের ১৪টি উপজেলায় টিকা নেওয়া ২৪১ জনের মধ্যে লোহাগাড়ায় ১০ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ২৮ জন, ফটিকছড়িতে ১০ জন, বাঁশখালীতে ২০ জন, আনোয়ারায় ৯ জন, সীতাকুণ্ডে ৩৮ জন, সাতকানিয়ায় ১০ জন, রাউজানে ১০ জন, মিরসরাইয়ে ২৪ জন, চন্দনাইশে ১৬ জন, বোয়ালখালীতে ২০ জন, হাটহাজারীতে ৯ জন, সন্দ্বীপে ২৭ জন এবং পটিয়ায় ১০ জন টিকা গ্রহণ করেন।