পটিয়ায় সরগরম নির্বাচনী প্রচারণা

0
137

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটিয়া >
চতুর্থধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পটিয়া পৌরসভার নির্বাচন। প্রথমবারের মত ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
জানা গেছে, মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলররা তাদের পছন্দের প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর নিজ নিজ এলাকায় প্রচার প্রচারণা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। গত বুধবার অনুষ্ঠিত চসিক নির্বাচনে যেভাবে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল করিম বিপুল ভোটে জয়লাভ করে চমক দেখান, সেভাবেই পটিয়াতে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আইয়ুব বাবুল চমক দেখাতে চান। সকল ভেদাভেদ ভুলে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকার পক্ষে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান। তবে পিছিয়ে নেয় ধানের শীষের প্রার্থী ও পটিয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র নুরুল ইসলাম সওদাগর। একইভাবে পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান ও জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী শামশুল আলম মাস্টার সাধারণ ভোটারদের মন জয় করতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। তবে মেয়র পদে নতুন হিসেবে নির্বাচন করছেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী এম আলী হোছাইন। বিএনপি নির্বাচনী মাঠে প্রচার চালাতে গিয়ে বলছেন ইভিএমের মাধ্যমে ভোট হলে এতে যদি কোন ধরনের অনিয়ম না হয় তাদের বিজয় নিশ্চিত। শুক্রবার থেকে নির্বাচনী মাঠে দায়িত্বে রয়েছেন তিন এক্সিকিউটিভি ম্যাজিস্ট্রেট। তারা হলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাট্টলী সার্কেল তৌহিদুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) পটিয়া মো. ইনামুল হাছান ও জেলা প্রশাসকের সহকারী কমিশনার মারজান হোসাইন। আচরণবিধি প্রতিপালন/মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আইনানুগ নির্দেশনা প্রদানের জন্য তিন এক্সিকিউটিভি ম্যাজিস্ট্রেট ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।
নির্বাচন অফিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত পটিয়া পৌরসভার নির্বাচন ১৪ ফেব্রুয়ারি। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ১৮টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। মোট ভোটার ৩৯ হাজার ৭৮৭। তার মধ্যে মহিলা ১৮ হাজার ৮৬২ ও পুরুষ ভোটার ২০ হাজার ৯২৫।
মেয়র পদে উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি আইয়ুব বাবুল (নৌকা), জাতীয় পার্টির শামসুল আলম মাস্টার (লাঙ্গল), বিএনপির নুরুল ইসলাম সওদাগর (ধানের শীষ) ও ইসলামী ফ্রন্টের এম আলী হোছাইন (মোমবাতি) নির্বাচন করছেন। এছাড়া ১ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আবদুল খালেক (ডালিম), মো. নাছির (উট পাখি), জয়নাল আবেদীন (পাঞ্জাবি), ২ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী শাহাদাত হোসেন (পাঞ্জাবি), রূপক কুমার সেন (উট পাখি), সনজিব কুমার দাশ (টেবিল লেম্প), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ছৈয়দ আবেদুজ্জামান আমিরী (টেবিল লেম্প), গিয়াস উদ্দিন নেওয়াজ আজাদ (ডালিম), মো. আলমগীর (পাঞ্জাবি), গোলাম কাদের (গাজর), আবু ছৈয়দ (উট পাখি), ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী গোফরানা রানা (পাঞ্জাবি), শফিকুল ইসলাম (ব্ল্যাক বোর্ড), এম আবছার (উট পাখি), ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বিনাপ্রতিন্দ্বিতায় জসিম উদ্দিন বিজয়ের পথে। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে রুবেল দাশ বাবু (ব্ল্যাক বোর্ড), শফিউল আলম (টেবিল লেম্প), আবুল কাসেম (পাঞ্জাবি), রূপসী দাশ (উট পাখি), আবুল মুনছুর (ডালিম), জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী (গাজর), ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী কামরুল ইসলাম (ডালিম), মো. নাজিম (উট পাখি), কামাল উদ্দিন বেলাল (টেবিল লেম্প), হাসান মুরাদ (পাঞ্জাবি), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী সরওয়ার কামাল রাজিব (উট পাখি), আবদুল মান্নান (ডালিম), মোস্তাক আহমদ (পাঞ্জাবি), ৯ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী শেখ সাইফুল ইসলাম (উট পাখি), মো. সোহেল (ব্ল্যাক বোর্ড), মো. ইলিয়াছ চৌধুরী (ডালিম), এসএম খলিলুজ্জামান আমিরী (ব্রিজ), আহমদ নূর চৌধুরী (টেবিল লেম্প), আবদুল মাবুদ (পাঞ্জাবি)। এ ছাড়া সংরক্ষিত মহিলা আসন ১ (১,২,৩ নম্বর ওয়ার্ড) বুলবুল আকতার (চশমা), ফাতেমা বেগম (জবা ফুল), শিরিন আকতার (আনারস), সংরক্ষিত ২ (৪,৫,৬) ইয়াসমিন আকতার চৌধুরী (আনারস), জোৎস্না আরা বেগম (চশমা), জেসমিন আকতার (জবা ফুল), সংরক্ষিত ৩ (৭,৮,৯ ওয়ার্ড) ফেরদৌস বেগম (চশমা), ফারহানা ইয়াছমিন (আনারস), পারভিন আকতার (অটোরিকশা) নির্বাচনী মাঠে প্রচারণায় ব্যস্ত।
এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও পটিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ইনামুল হাছান জানান, পৌরসভা নির্বাচনে কোন প্রার্থী আচরণবিধি লংঘন করলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রেখে ভোট শেষ করতে ম্যাজিস্ট্রেটরা একযোগে কাজ করবেন। এজন্য প্রার্থী ও ভোটারদের সহযোগিতা দরকার।