আইনের শাসনের নামে অপশাসন চলছে : খসরু

0
46

নগর প্রেস ক্লাবে আসলাম চৌধুরীর মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

দেশে আইনের শাসনের নামে যে অপশাসন চলছে তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব লায়ন আসলাম চৌধুরী। তাকে নিয়ে যে অন্যায় চলছে, সেটা একদিন আল-জাজিরার মতো বিশ্বের সব সংবাদমাধ্যমে খবর হয়ে উঠে আসবে। এজন্য সরকারকে জবাবদিহি করতে হবে।
তিনি গতকাল সকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর (এফসিএ) মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির যৌথ আয়োজনে সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন।
মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্করের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দেশে রাজনীতির সাথে অপরাজনীতি চলছে। আইনের শাসনের নামে অপশাসন চলছে প্রতিনিয়ত। তার উদাহরণ আসলাম চৌধুরী। উনি দেশের একজন জাতীয় নেতা। উনার নেতৃত্বে উত্তর জেলা বিএনপি শক্তিশালী হয়েছে, সংগঠিত হয়েছে। যার পরিণাম সরকারের প্রতিহিংসার শিকার হয়ে কারাগারে আছেন।
তিনি বলেন, আইনের শাসনের নামে কি ধরনের অপশাসন চলছে সেটা আপনারা দেখেন। শতাধিক মামলায় আসলাম চৌধুরীকে গ্রেফতারের তথ্য দিয়ে তিনি বলেন, গ্রেফতারের পর তার বিরুদ্ধে যে মামলা করা হয়েছিল, তাতে কিন্তু ছয় মাসের মধ্যেই জামিন পেয়ে গেছেন। কিন্তু তাকে মুক্তি না দিয়ে শতাধিক মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। জামিন নিতে গেলে সরকার বারবার সময়ের আবেদন করে। এর অর্থ হচ্ছে তাকে জেলে আটকে রাখা।
আমীর খসরু বলেন, যখন জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয় তখন সেটা সরকার। কিছু লোকের মাধ্যমে দখল করে যখন ক্ষমতায় আসে তখন সেটা রিজিম। দখল করে ক্ষমতায় থাকা রিজিম দেশটা দখলের জন্য তারা এমন পর্যায়ে চলে গেছে। কোর্ট, পুলিশ সবাইকে সম্পৃক্ত করে প্রজেক্ট করেছে।
খসরু বলেন, আসলাম চৌধুরীর সাথে যেটা হচ্ছে সেটা তো মাফিয়াদের কাজ। এর বাইরে তো কিছু নয়। স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় হলে কোন সমস্যা ছিল না। কিন্তু বিচার চাওয়াটাও মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। সঠিক প্রক্রিয়ায় বিচার হলে আসলাম চৌধুরী ছয়মাসের মধ্যে জামিন হতো। কিন্তু বিচার চাওয়াটাও আজ মুশকিল হয়ে পড়েছে। আশা করছি, তারা মামলা থেকে সরে আসবে।
আমীর খসরু বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ সবসময় নিজের পথ বেছে নিয়েছে। ১৯৭১ সালে নিয়েছে, ভাষা আন্দোলনের সময় নিয়েছে, এরশাদের বিরুদ্ধে নিয়েছে, ওয়ান-ইলেভেনের সময়ও নিয়েছে। ওয়ান-ইলেভেনে যারা ছিল, জনগণ যখন সংগঠিত হয়ে আন্দোলন শুরুর প্রস্ততি নিচ্ছিল, তখন তারা লেজ গুটিয়ে পালিয়েছিল। সুতরাং জনগণ এবারও পথ বেছে নেবে, এ সরকারের বিরুদ্ধে ‘দেশব্যাপী কর্মসূচি শুরু হয়ে গেছে।’
প্রায় পাঁচ বছর ধরে কারাবন্দি বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দ।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, সদস্য সচিব মোস্তাক আহম্মেদ খান, মহানগর ও উত্তর-দক্ষিণ বিএনপি নেতৃবৃন্দের মধ্যে এম এ আজিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, এসএম সাইফুল আলম, কাজী বেলাল উদ্দিন, ভিপি নাজিম উদ্দিন, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, মোহাম্মদ শাহ আলম, আনোয়ার হোসেন লিপু, মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী মঞ্জু, অধ্যাপক ইউনুছ চৌধুরী, নুরুল আমিন, নুরুল আমিন চেয়ারম্যান, ডাক্তার খুরশিদ জামিল, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, সেকান্দর চৌধুরী, কাজী সালাউদ্দিন, কুতুব উদ্দিন বাহার, অ্যাডভোকেট আবু তাহের, জহুরুল আলম জহুর, জয়নাল আবেদীন দুলাল, অ্যাডভোকেট নাসিমা আক্তার চৌধুরী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি