হকার নেতারূপী চাঁদাবাজদের দমন করা হবে : সুজন

0
211

সিটি করপোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, কর প্রদানকারী নগরবাসী আমার কাছে নমস্য। তাদেরকে আমি সম্মান করি। চট্টগ্রাম নগরী বার আউলিয়ার পুণ্যভূমি। মাস্টারদা সূর্যসেন, জহুর আহমদ চৌধুরী, এম এ আজিজ ও মহিউদ্দীন চৌধুরীর প্রিয় এই শহর। এই প্রিয় নগরকে হকার নেতার নামে গুটিকয়েক চাঁদাবাজের কাছে জিম্মি হতে দেবো না। যদি কেউ হকার নেতা সেজে চাঁদাবাজি করে তাদেরকে প্রতিহত করা হবে। আমি যতদিন দায়িত্বে আছি ততদিন নগরীতে কোন দুর্ভোগ হতে দেব না। হকার নেতারূপী চাঁদাবাজদের দমন করবো। প্রকৃত হকারদের স্বার্থ সুরক্ষায় আমি তাদের পাশে আছি।
তিনি গতকাল মঙ্গলবার সকালে নগরীর স্টেশন রোডে সিটি করপোরেশনের রাজস্ব সার্কেল-৪ আয়োজিত স্পট হোল্ডিং ট্যাক্স ও ট্রেড লাইসেন্স প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক। প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলমের সভাপতিত্বে ও উপ কর কর্মকর্তা মুহাম্মদ ইয়াছিন চৌধুরী সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কর কর্মকর্তা (কর) মো. সারেক উল্লাহ, কর কর্মকর্তা (লাইসেন্স) মো. নাছির উদ্দিন চৌধুরী, মো. রমিজুল হক চৌধুরী, রতন ভট্টাচার্য ও ক্রোকী কর্মকর্তা বাবু বিনয় ভুষন আচার্য্য।
প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন আরো বলেন, হকাররা নগরীতে প্রতিদিন বেলা ৩ টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত অস্থায়ী চৌকি বসিয়ে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন। এই সময়সীমার আগে কোনভাবেই সড়ক-ফুটপাত দখল করে নগরবাসীর চলাচলে দুর্ভোগ সৃষ্টি করে ব্যবসা করা যাবে না। যেসব হকার এই প্রস্তাব মানবে তাদের নির্বিঘ্নে ব্যবসা পরিচালনার স্বার্থে করপোরেশনের পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট পোশাক ও পরিচয়পত্র দেয়া হবে।
প্রশাসক বলেন, আগে নগরবাসী অভিযোগ করতেন কর আদায়কারীরা পৌরকর নিতে বাসায় যান না। তাই ভোগান্তি কমাতে স্পটে হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় ও ট্রেড লাইসেন্স ইস্যুর ব্যবস্থা করা হলো। ডিসেম্বর মাসজুড়ে সারচার্জ ছাড়া কর ও ট্রেড লাইসেন্স দেয়া যাবে। জানুয়ারি থেকে বকেয়া আদায়ে জরিমানাসহ আইনি সব ব্যবস্থা নেয়া হবে। যারা কর দেবেন না তাদের নাগরিকসেবাও বন্ধ করে দেয়া হবে। তিনি যেসব ব্যবসায়ীর ট্রেড লাইসেন্স নাই তাদের দ্রুত তা নিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ব্যবসার প্রথম স্বীকৃতি হলো ট্রেড লাইসেন্স।
পরে কর প্রদানকারী ও ট্রেড লাইসেন্স নেয়া কয়েকজন গ্রাহককে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান প্রশাসক। বিজ্ঞপ্তি