সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী

0
99

শোকাঞ্জলি অনুষ্ঠান

কদম মোবারক এম.ওয়াই উচ্চ বালক-বালিকা বিদ্যালয়ে জয় বাংলা শিল্পী গোষ্ঠী চট্টগ্রাম এর উদ্যোগে বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা ও আবৃত্তিকার প্রয়াত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে নিবেদিত শোকাঞ্জলি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গান, কবিতা ও কথামালা দিয়ে সাজানো অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সজল দাশ। কবি আশীষ সেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন যুবলীগ নেতা সুমন দেবনাথ।
প্রধান আলোচক ছিলেন দীপক কুমার পালিত। বিশেষ আলোচক ছিলেন মো. কামাল উদ্দিন চৌধুরী, হাজী ইউনুছ মিঞা, যুবলীগ নেতা আজম খান চৌধুরী, আনন্দ সঙ্গীত একাডেমির পরিচালক সুরজিৎ সেন, সাথী কামাল, ডা. আশীষ চৌধুরী, মো. ছবির আহমদ, মো. আওরঙ্গজেব সম্রাট, ইমরান সোহেল।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শিমুল দত্ত, অচিন্ত্য কুমার দাশ, নারায়ণ দাশ, দিলীপসেনগুপ্ত, মাছুমা কামাল আঁখি, নিলয় দে, হারাধন নাহা বাসু। উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক দুলাল বড়–য়া, হাসান মুরাদ, গোলাম রহমান, মো. তিতাস, আইয়ুব, আবুল হাশেম, সবুজ চৌধুরী রকি, রতন ঘোষ, নবদেব আচার্য, ইব্রাহিম ও মো. জাফর আলম প্রমুখ। শিল্পী অচিন্ত্য কুমার দাশ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে শোক সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী নারায়ণ দাশ, হানিফুল ইসলাম চৌধুরী, শিল্পী হারাধন নাহা , সমীরণ পাল, নূপুর আক্তার ও শিল্পী শিউলী চৌধুরী। প্রধান অতিথি যুবলীগ নেতা সুমন দেবনাথ বলেন, বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী। মঞ্চ, চলচ্চিত্র, টিভি, আবৃত্তি সর্বক্ষেত্রে তাঁর বিচরণ ছিল। এপার বাংলা ওপার বাংলা দু’বাংলায় তিনি সমান জনপ্রিয় ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে সংস্কৃতি জগতে যে ক্ষতি হয়েছে তা সহজে পূরণ হওয়ার নয়। প্রধান আলোচক দীপক কুমার পালিত বলেন, প্রয়াত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় একজন প্রতিভাবান, দক্ষ ও মেধাবী অভিনেতা ছিলেন। যারা গুণীজনদের স্মরণ করেন তারাই সমাজে সম্মানিত হন। কবি আশীষ সেন বলেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় সংস্কৃতি অঙ্গনের একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন। তিনি যেমনি মঞ্চ ও চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তেমনি আবৃত্তিও পরিবেশন করেছেন। বিজ্ঞপ্তি