সিএমপির ১৬ থানার মামলা-জিডির তথ্য মিলবে এসএমএসে

0
288

নিজস্ব প্রতিবেদক :

‘মামলা সংক্রান্ত ভোগান্তি দূর করতে এবং দ্রুততম সময়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ও তত্ত্বাবধান করার জন্য চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ এসএমএস ভিত্তিক তথ্য সেবা চালু করতে যাচ্ছে। ‘সিএমপি বন্ধন’ নামে এ তথ্যসেবার মাধ্যমে সেবাপ্রত্যাশীদের সাথে থানার যোগাযোগ প্রদ্ধতিকে আরো সহজ করবে। ১ জানুয়ারি থেকে চট্টগ্রামের নাগরিকরা এ তথ্যসেবার আওতায় আসবে।’
গতকাল বুধবার বেলা ১২টায় সিএমপি কমিশনার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সিএমপি কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর পিপিএম এ কথা জানান।
সিএমপি কমিশনার বলেন, ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার-পুলিশ হবে জনতার’ বাংলাদেশ পুলিশের এ স্লোগানে ঘোষিত অঙ্গীকার পূরণে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। মুজিব বর্ষে জনবান্ধব, আধুনিক এবং স্মার্ট ডিজিটাল পুলিশিং সেবা চট্টগ্রাম মহানগরবাসীর দোরগাড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে সিএমপি প্রথম বারের মতো ১৬টি থানায় নিজস্ব সফটওয়্যারের মাধ্যমে এ এসএমএস ভিত্তিক তথ্যসেবা চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ সেবার মাধ্যমে বাদির সাথে থানার ডিজিটাল যোগাযোগ স্থাপিত হবে।
সিএমপি সূত্রে জানা গেছে, সাধারণত মামলা বা জিডি করার পর সে সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে বাদিকে বার বার থানায় যেতে হয়। অনেক সময় মামলার তদন্তকারির নাম এবং যোগাযোগ নম্বর জানতেই বাদিকে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়। এখন থেকে সেবাপ্রত্যাশীদের অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় মামলা বা জিডি রেকর্ড হওয়ার সাথে সাথেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ‘সিএমপি বন্ধন’ আইডি থেকে সংশ্লিষ্ট আইনের ধারাসহ মামলা বা জিডি নম্বর, তদন্তকারী অফিসারের নাম, যোগাযোগ নম্বর বাদির সেলফোনে এবং একই সাথে বাদির নাম ও যোগাযোগ নম্বরসহ প্রয়োজনীয় তথ্যাদি তদন্তকারীর সেলফোনে এসএমএসের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে যাবে। এছাড়া মামলার তদন্তকারী পরিবর্তন, মামলার তদন্ত শেষে গৃহীত ব্যবস্থার বিবরণসহ বিস্তারিত বাদিকে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। এ সেবা চালু হলে মামলার ফলাফল জানার বাদির আইনগত অধিকার প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পাশাপাশি বাদি যেমন তথ্য সেবা পাবেন, তদন্তকারী অফিসারও তার করণীয় সম্পর্কে জানতে পারবে। সর্বোপরি এ তথ্যসেবার মাধ্যমে মামলার তদন্ত কার্যক্রমে স্বচ্ছতা, গতিশীলতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবে। সম্পূর্ণ এই তথ্য সেবা বিনামূলে পরিচালিত হবে।
সিএমপির কম্পিউটার সার্ভারে নিজস্বভাবে তৈরি সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে মোবাইল এসএসএম প্রদান করে এই তথ্য সেবা দেওয়া হবে। সার্ভারটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে এতে প্রয়োজনীয় ডাটাসমূহ এন্ট্রি করার সাথে সাথে বাদি ও তদন্তকারী অফিসারের সেলফোনে এবং জোনাল এসি অফিস এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কার্যালয়ে রক্ষিত মনিটরিং সার্ভারে চলে যাবে। এতে করে পুলিশের সেবা প্রদানের প্রযুক্তিগত দক্ষতা ও আন্তরিকতা সম্পর্কে জনমনে যে নেতিবাচক ধারণা আছে তা দূরীভূত হয়ে যাবে।