সাতকানিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বাড়ি ফিরলেন ৬ করোনা জয়ী

0
221
করোনা থেকে সুস্থ হওয়া  ব্যক্তিদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান  উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা-সুপ্রভাত

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া :

সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম বারের মত আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ৬ ব্যক্তি করোনা যুদ্ধে জয়ী হয়ে বুধবার সকালে নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছেছেন। হাসপাতাল কর্তৃপড়্গ তাদের ছাড়পত্র দেয়ার পাশাপাশি ফুল দিয়ে জানিয়েছেন শুভেচ্ছা। সুস্থ হওয়া ৬জনের মধ্যে ২জন হচ্ছে পুলিশ কনস্টেবল ও অন্য ৪জন স্বাস্থ্য কর্মী। এদেরকে ১৪দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্স সূত্রে জানা যায়, সাতকানিয়া উপজেলায় করোনায় আক্রানেত্মর সংখ্যা দিন দিন বাড়তে থাকলে উপজেলাটি চট্টগ্রামের মধ্যে প্রথম করোনা ‘হটস্পটে পরিণত হয়। পরবর্তীতে রোগীর সংখ্যা বেড়ে তা ‘সুপার হটস্পট’ এ পরিণত হলে বিষয়টি ভাবিয়ে তোলে চিকিৎসা সংশ্লিষ্টদের। এ কারণে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা আইসোলেশন ইউনিট স্থাপন জরুরি হয়ে পড়লে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চলতি মাসের ৮ মে হাসপাতালের একটি কক্ষে ১০ বেডের একটি করোনা আইসোলেশন ইউনিট চালু করেন। ওই দিনই করোনায় আক্রান্ত ২ পুলিশ কনস্টেবল ও ২ স্বাস্থ্যকর্মীকে আইসোলেশন ইউনিট এ ভর্তি দেয়া হয়।

পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে এ আইসোলেশন ইউনিট করোনায় আক্রান্ত আরও ২জন স্বাস্থ্য কর্মী, ১জন সাংবাদিক ও অন্য ১ ব্যক্তিসহ মোট ৮জনকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি দেয়। এদের মধ্যে বুধবার সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ পুলিশ কনস্টেবল ও ৪ স্বাস্থ্যকর্মী। গতকালই হাসপাতাল কর্তৃপড়্গ তাদের ছাড়পত্র দিলে নিজ নিজ গন্তব্যে ফিরে যান করোনা যুদ্ধে বিজয়ীরা। সুস্থ হওয়া ব্যক্তিরা হলেন ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল বোরহান উদ্দীন (৪৫), জেলা পুলিশ কনস্টেবল মো. সালাহ উদ্দীন (২৪), স্বাস্থ্য কর্মী সৈকত ধর (৩৪), সাইফুল ইসলাম (৩৮), মো. হাবিবুল্লাহ (৩৫) ও নিমু বড়ুয়া (৩০)।

এ ব্যাপারে সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মজিদ ওসমানী বলেন, সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ২জন পুলিশ কনস্টেবল ও ৪জন স্বাস্থ্য কর্মী রয়েছে। এছাড়া আইসোলেশন ওয়ার্ডে একজন সাংবাদিক ও পৌরসভার ছমদর পাড়ার এক করোনা আক্রান্ত রোগী এখনও চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাসপাতাল থেকে ছাড় পাওয়া ৬জনকেই ১৪দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। আশা করি চিকিৎসাধীন সাংবাদিকসহ দুই জনেই খুব কম সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠবেন।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সফিউল কবীর বলেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দুই কনস্টেবল থানা কমপাউন্ডে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তারা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন।