লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড জিতলেন নাদাল

70

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
দৌড়ে ছিলেন রবার্ট লেওয়ানদোস্কি, লুইস হ্যামিল্টন, লেবর্ন জেমসের মত প্রতিদ্বন্দ্বীরা। সকলকে পিছনে ফেলে বর্ষসেরা পুরুষ আথলিট হিসেবে ২০২১ লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড জিতে নিলেন স্পেনের টেনিস মায়েস্ত্রো রাফায়েল নাদাল। বর্ষসেরা মহিলা অ্যাথলিট হিসেবে এই অ্যাওয়ার্ড জিতলেন আরেক টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানেই পুরষ্কার গ্রহণ করলেন বিজেতারা।
২০২০ রোলাঁ গ্যারোয় দ্বাদশ বারের জন্য নিজেকে শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করে রজার ফেডেরারকে ছুঁয়েছেন রাফা। সর্বাধিক মেজর জয়ে নিরিখে সুইস কিংবদন্তির সঙ্গে নিজেকে একাসনে বসিয়েছেন স্প্যানিশ তারকা। এই অসামান্য কৃতিত্বের জন্যই বর্ষসেরা অ্যাথলিটের সম্মান ছিনিয়ে নিলেন রাফা। অ্যাওয়ার্ড জিতে নাদাল বলেন, ‘বাকিরাও এই ট্রফি জয়ের সমান দাবিদার। কিন্তু এই বছরটা আমার ছিল এবং এর থেকে বেশি খুশি আর কিছুতে হতে পারে না।’ নাদাল আরও বলেন, ‘ফরাসি ওপেন জিতে রজার ফেডেরারের ২০তম গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের নজির স্পর্শ করা এক অবিস্মরণীয় মুহূর্ত।’
একাধারে আমার মহান প্রতিপক্ষ এবং একইসঙ্গে পরম বন্ধুর নজির স্পর্শ করা আমার কাছে অনেক। কোর্ট এবং কোর্টের বাইরে আমাদের যাবতীয় কীর্তির পাশে এই ঘটনা খুবই স্পেশাল।’ নাদালের পাশাপাশি বর্ষসেরা মহিলা অ্যাথলিট হিসেবে লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড জিতে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ নিয়ে আবারও কড়া মন্তব্য করলেন ওসাকা। উল্লেখ্য, ২০২০ যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনের সমর্থনে জোরালো প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন জাপানের টেনিস তারকা। সাম্প্রতিক সময়ে যে সকল অ্যাফ্রো-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার শিকার হয়েছেন তাদের নাম লেখা মাস্ক পরে প্রতিবাদের রাস্তা খুঁজে নিয়েছিলেন ওসাকা।
ওসাকা বলেন, ‘তোমার কাছে নিজেকে প্রকাশ করার মঞ্চ থাকলে সেটার সদ্ব্যবহার করা উচিত।’ ২০১৯-২০ বুন্দেসলিগা এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী বায়ার্ন মিউনিখ ‘টিম অফ দ্য ইয়ার’ সম্মান পেয়েছে। লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন মার্কিন কিংবদন্তি বিলি জিন কিং। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে উল্লেখযোগ্য প্রতিবাদ জানিয়ে ‘অ্যাথলিট অ্যাডভোকেট অফ দ্য ইয়ার’ জিতেছেন ফর্মুলা ওয়ান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন লুইস হ্যামিল্টন। খেলার মাধ্যমে বর্ষসেরা অনুপ্রেরকের ভূমিকা পালন করেছেন লিভারপুল স্ট্রাইকার মোহামেদ সালাহ।