রোমার জালে ‘হাফডজন’ ম্যানইউ’র

0
26
কাভানির দুর্দান্ত শট রুখতে ব্যর্থ হন রোমার গোলরক্ষক - ইন্টারনেট

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
এর আগে ৬ বারই ইউরোপের সর্বোচ্চ ফুটবল প্রতিযোগীতায় একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। তবে ইংল্যান্ডের ক্লাবটির বিরুদ্ধে পরিসংখ্যান সতত সুখের ছিল না ইতালির ক্লাবটির। দীর্ঘ ১৩ বছর বাদে বৃহস্পতিবার ফের রোমা মুখোমুখি হয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। যদিও এদিন দু’দল মুখোমুখি হয়েছিল ইউরোপা লিগে। ২০০৭ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোয়ার্টারের ফিরতি লেগে ৭-১ গোলে হারানোর স্মৃতি উসকে এদিন ঘরের মাঠে রোমাকে হাফডজন গোল দিল লাল ম্যানচেস্টার।
পিছিয়ে পড়েও ইউরোপা লিগ সেমিফাইনালের প্রথম লেগে এদিন অবিস্মরণীয় কামব্যাক করল সোল্কজায়েরের ছেলেরা। ইতালির ক্লাবকে ৬-২ গোলে হারিয়ে কার্যত ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলল ম্যান ইউ। এদিন লাল ম্যানচেস্টারের হয়ে জোড়া গোল ব্রুনো ফার্নান্দেজ এবং এডিনসন কাভানির। বাকি দু’টি পল পোগবা এবং ম্যাসন গ্রিনউডের। জোড়া গোল করার পাশাপাশি জোড়া অ্যাসিস্টে এদিন ম্যান ইউ’য়ের ম্যাচ জয়ের নায়ক ঊরুগুয়ে স্ট্রাইকার এডিনসন কাভানি। কেন আগামী মরশুমেও ৩৪ বছরের এই ফুটবলারকে ওলে রেখে দিতে বদ্ধপরিকর তা আরও একবার বোঝালেন কাভানি।
ম্যাচে এদিন প্রথমে এগিয়ে যায় ম্যান ইউ। ৯ মিনিটে পোগবার সঙ্গে ওয়াল খেলে ব্রুনোর জন্য গোলের বল সাজিয়ে দেন কাভানি। স্কোরলাইন ১-০ করতে ভুল করেননি রোনাল্ডোর দেশের ফুটবলার। ছ’মিনিট বাদে পেনাল্টি থেকে সমতা ফেরায় রোমা। ৩৩ মিনিটে এডিন জেকোর গোলে ম্যাচে এগিয়ে যায় ইতালির ক্লাবটি। চলতি মরশুমে বারংবার পিছিয়ে পড়ে দারুণভাবে ফিরে আসার নমুনা রাখা লাল ম্যানচেস্টার যে বিরতির পর ফিরে আসবে, তেমন সম্ভাবনা ছিলোই। কিন্তু ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে দ্বিতীয়ার্ধে কাভানি-পোগবা-ব্রুনোদের দেখে মনে হল বহুজন্মের প্রতিশোধ নিচ্ছেন তারা।
৪৮ মিনিটে ব্রুনোর বাড়ানো বল ধরে বক্সের মধ্যে জোরালো ভলিতে ২-২ করেন কাভানি। ৬৪ মিনিটে ওয়ান বিসাকার শট বিপক্ষ গোলরক্ষক রুখে দিলে প্রতিহত হওয়া বল সুযোগসন্ধানীর মতো জালে ঠেলে দেন সেই কাভানি। সাত মিনিট বাদে ফার্নান্দেজ পেনাল্টি থেকে যে গোলটি করেন সেটিও ঊরুগুয়ে স্ট্রাইকারের সৌজন্যে। ম্যাচ ওখানেই পকেটে পুড়ে নিলেও ম্যানচেস্টারের গোলের খিদে তখনও কমেনি। ৭৫ মিনিটে ফার্নান্দেজের সেন্টারে মাথা ছুঁইয়ে ৫-২ করেন পোগবা।
আর ৮৬ মিনিটে রোমার কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে হাফডজন গোলের বৃত্ত সম্পূর্ণ করেন পরিবর্ত ম্যাসন গ্রিনউড। ম্যাচ জিতে সোল্কজায়ের বলেন, ‘আমার মনে হয় না আমাদের কাজ এখনও শেষ হয়েছে বলে। তবে আজকের ছেলেরা তাদের কাজ দারুণভাবে করেছে।’