রোনালদোর রেকর্ডে ভাগ বসালেন লেওয়ানদোস্কি

0
179

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
স্বপ্নের ফর্মে রবার্ট লেওয়ানদোস্কি। বুধবার লিয়ঁর বিরুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে চেনা ছন্দে না থাকলেও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর রেকর্ডে থাবা বসালেন বায়ার্ন স্ট্রাইকার। ম্যাচের শেষদিকে কিমিচের সেটপিস থেকে হেডে গোল করেন পোল্যান্ড স্ট্রাইকার। বায়ার্নের হয়ে চলতি মরশুমে সবধরনের প্রতিযোগীতা মিলিয়ে ৫৫তম গোলটি করার পাশাপাশি চলতি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এই নিয়ে নিজের ১৫তম গোলটি করলেন বায়ার্ন স্ট্রাইকার। সেইসঙ্গে পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের একটি মরশুমে ১৫টি বা তার বেশি গোলের নজির গড়লেন পোলিশ তারকা।
পর্তুগিজ ফুটবল মায়েস্ত্রো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো যদিও রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে এমন নজির তিন-তিনবার গড়েছেন। ২০১৩-১৪ মরশুমে ১৭টি, ২০১৫-১৬ মরশুমে ১৬টি এবং ২০১৭-১৮ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মরশুমে ১৫টি গোল এসেছিল জুভেন্তাস তারকার থেকে। অর্থাৎ, লিয়ঁর বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে গোল করে ১৫ গোলের ল্যান্ডমার্কে পৌঁছনো লেওয়ানদোস্কির কাছে সুযোগ থাকছে রোনালদোর এক মরশুমে সর্বাধিক গোলের রেকর্ড স্পর্শ করা কিংবা তাকে ছাপিয়ে যাওয়ার সুযোগ। সেক্ষেত্রে ফাইনালে পিএসজি’র বিরুদ্ধে বায়ার্ন স্ট্রাইকারকে দু’গোল কিংবা হ্যাটট্রিক করতে হবে।
ফাইনালে দু’গোল করলে রোনালদোর এক মরশুমে সর্বাধিক গোলের নজির স্পর্শ করবেন তিনি। আর এমবাপেদের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করলে নয়া রেকর্ড তৈরি করবেন লেওয়ানদোস্কি। তাও আবার সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে। ১৫ গোলের নজির ছোঁয়ার পাশাপাশি বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা ৯ ম্যাচে গোল করলেন বায়ার্ন স্ট্রাইকার। ছুঁয়ে ফেললেন প্রাক্তন ম্যান ইউ স্ট্রাইকার রুড ভ্যান নিস্তেলরুইকে। টানা সর্বাধিক ম্যাচে গোলের নিরিখে লেওয়ানদোস্কির সামনে এখন কেবল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টানা ১১টি ম্যাচে গোলের নজির রয়েছে পর্তুগিজ তারকার।
অর্থাৎ ফাইনালে পিএসজি’র বিরুদ্ধে গোল করলেও রোনালদোর সেই নজির চলতি মরশুমে ছোঁয়া বা টপকে যাওয়া সম্ভব নয় পোল্যান্ডের স্ট্রাইকারের পক্ষে। ফাইনালে গোল করলেও আগামী মরশুম অবধি এক্ষেত্রে অপেক্ষা করতেই হবে তাকে। যদিও ফাইনালে রেকর্ডের হাতছানি কোনওভাবেই লেওয়ানদস্কির ফোকাস নষ্ট করবে না বলে জানিয়েছেন বায়ার্ন কোচ হান্স ফ্লিক। তার কথায়, ‘ও রেকর্ড নিয়ে ভাববে না। ও দলের জন্য অনেক বেশি চিন্তা করে। সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।’ একইসঙ্গে রবার্টকে এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা সেন্টার ফরোয়ার্ড আখ্যা দিয়ে ফাইনালেও ৩১ বছরের স্ট্রাইকারের থেকে গোল চেয়েছেন ফ্লিক। খবর : কলকাতা২৪’র।