রিয়ার সঙ্গে মহেশের সম্পর্ক কী : শত্রুঘ্ন

0
236

সুপ্রভাত ডেস্ক :
সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই মহেশ ভাট এবং রিয়া চক্রবর্তীকে নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা গিয়েছে। সদ্য প্রকাশ্যে এসেছে দুজনের হোয়াটঅ্যাপ চ্যাট। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এখন মশগুল। অভিনেতার মৃত্যুর পর থেকেই নেটজনতার রোষানলে মহেশ ভাট। শোনা গিয়েছিল, তার ইন্ধনেই নাকি রিয়া ও সুশান্তের সম্পর্ক ভাঙে। এসবের মাঝেই সংবাদমাধ্যমের কাছে রিয়া-মহেশকে নিয়ে মুখ খুললেন শত্রুঘ্ন সিনহা। ‘মহেশ ভাট আর রিয়ার সম্পর্কের কথা যদি বলতে হয়, তাহলে সিবিআইয়ের সামনে গিয়ে বলুন। ওরাই খতিয়ে দেখুক। রিয়াকে আমি ব্যক্তিগতভাবে চিনি না। আর মহেশের সঙ্গে গত ৫ বছরে আমার দেখা হয়নি’, মন্তব্য বলিউডের প্রবীণ অভিনেতা তথা রাজনীতিক শত্রুঘ্ন সিনহার।
‘আমি তো এও স্পষ্ট জানি না যে ওদের দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক কী! বাবা, গডফাদার- এ কেমন সম্পর্ক! উনি রিয়ার কাছে বাবার মতো ছিলেন নাকি রিয়ার জীবনে তার ভূমিকা শুধুমাত্রই গডফাদারের, এই সব নিয়ে মন্তব্য করার কোনও অধিকারই আমার নেই’, বললেন প্রবীণ অভিনেতা। এখানেই শেষ নয়, তিনি এও বলেন যে, ‘একাধিকবার একরম মনে হয়েছে যে, সিবিআইয়ের হাতে কেস যেতে অনেক দেরি হয়েছে, এতদিনে তথ্য-প্রমাণ না নষ্ট হয়ে যায়। আমি আর সুশান্ত দুজনেই যেহেতু পাটনার, সেই সূত্রে একটা টান তো ছিলই ওর সঙ্গে। শুধু একবারই দেখা হয়েছিল ওর সঙ্গে। কী সুশীল ছেলে! ওর পরিবারও বেশ ভাল। যা হওয়ার এখন সিবিআই-ই বলবে।’
শত্রুঘ্নর আক্ষেপ, ‘খুব দুর্ভাগ্যজনক বলিউডের কেউই ওকে নিয়ে মুখ খুলছে না। হয় এক নেপথ্যে ভয় কাজ করছে। নাহলে একাংশের স্বার্থও জড়িয়ে থাকতে পারে। হতে পারে সুশান্ত সুপারস্টার ছিল না, তবে আজ কিন্তু গোটা বিশ্বের কাছে ও একজন বড় তারকা হয়ে উঠেছে। নিজেই নিজেই গড়ে তুলেছিল। অনেক ভাল জায়গায় যেতে পারত ও।’
অন্যদিকে শত্রুঘ্ন কন্যা সোনাক্ষিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিকর মন্তব্য করার জেরে শুক্রবার শ্রীঘরে ঠাঁই হয়েছে এক যুবকের। ২৬ বছর বয়সি ওই যুবক অভিনেত্রীর ইনস্টাগ্রাম ভিডিওয় অশ্লীল মন্তব্য করেছিলেন। সোনাক্ষী নিজেও বর্তমানে মুম্বই পুলিশের ‘অব বস’ নামে এক অ্যান্টি-সাইবার বুলিং প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত। অভিনেত্রী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ‘নেটদুনিয়ায় কোনওরকম কদর্য মন্তব্যের শিকার হলেই পুলিশকে জানান। তারা পদক্ষেপ করবেন।’ খবর : সংবাদপ্রতিদিন’র।