মোহরাকে আধুনিক উপশহরে গড়ে তুলব

0
153

গণসংযোগে ডা. শাহাদাত

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নিবার্চনে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, চান্দগাঁও থানার মোহরা এলাকাটি এখনও অবহেলিত। এখানে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যাতায়াতসহ পর্যাপ্ত উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। এ এলাকা দীর্ঘদিন ধরে উন্নয়ন বঞ্চিত হয়ে আসছে। আমি নির্বাচিত হলে মোহরা এলাকাকে একটি আধুনিক উপশহরে পরিণত করবো।
তিনি আরও বলেন, এখানে একটি বিশেষায়িত হাসপাতাল গড়ে তুলবো, যাতে এলাকার মানুষজন চিকিৎসাসেবা পান। শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কারিগরি শিক্ষা, কম্পিউিটার ইন্সটিটিউশন গড়ে তোলাসহ বৃহত্তর চান্দঁগাওয়ে সরকারি স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেব।
তিনি গতকাল রোববার ৫ নম্বর মোহরা ৬ নম্বর পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ডে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে গণসংযোগকালে এ কথা বলেন। তিনি নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মোহরার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে মেয়র পদে ধানের শীষে ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের পক্ষে ভোট চান।
মোহরা ওয়ার্ডের কাপ্তাই রাস্তার মাথার পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে গণসংযোগ শুরু করে কামাল বাজার, মৌলভীবাজার, দীঘির পাড়, চেয়ারম্যান কলোনি, গোলাপের দোকান হয়ে কাপ্তাই রাস্তার মোড়ে এসে শেষ হয়।
পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ডের বলিরহাট বাজার থেকে শুরু করে খালাসি পুকুরপাড়, পাক্কা দোকান, সাবানঘাটা, বাদামতল, চৌধুরী স্কুল, খরমপাড়া, শাহ ওয়ালিউল্লাহ আবাসিক, এক কিলোমিটার হয়ে রাহাত্তার পুল এলাকায় এসে শেষ হয়।
ডা. শাহাদাত বলেন, বৃহত্তর চাঁন্দগাও মোহরার অন্যতম সমস্যা জলবদ্ধতা এবং সুপেয় পানির সংকট। কর্ণফুলী নদী ও হালদা নদীর সংলগ্ন এসব নিচু এলাকা প্রায় সময় জোয়ারের পানিতে ডুবে থাকে। এতে করে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে জনগণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। নগরীর ভরাট হয়ে যাওয়া পুরানো খাল সংস্কার এবং নতুন খাল খননসহ আধুনিক ড্রেনেজ ব্যবস্থার উদ্যোগ নিলে জলবদ্ধতা সংকট কাটিয়ে উঠা সম্ভব হবে। মেয়র হলে নির্বাচিত হলে নগরী সৌন্দর্যবর্ধন করে পর্যটনবান্ধবের, সুপেয় পানি, পয়ঃনিষ্কাশন ও আধুনিক ড্রেনেজের উদ্যোগ নেব।
পথসভায় মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, নির্বাচনের পরিবেশ এখনও সবার জন্য সমান হয়নি। গণসংযোগে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা। শনিবার আমাদের গাড়িবহরে হামলা হয়েছে, প্রশাসন তাদের এখনও চিহ্নিত করতে পারেনি। এছাড়া আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা প্রত্যেক এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে ভোটের পরিবেশ নষ্ট করছে। সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করতে প্রত্যেক ওয়ার্ডের চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে হবে।
দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, ডা. শাহাদাত হোসেন একজন সৎ, যোগ্য, ও পরিচ্ছন্ন প্রার্থী। একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে নগরবাসীর কাছে তিনি খুবই পরিচিত। তাকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার মতো কিছুই নেই। তিনি বেগম খালেদা জিয়ার প্রতিনিধি। ২৭ জানুয়ারি ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে তাকে বিজয়ী করুন।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ন সম্পাদক ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এরশাদ উল্লাহ, সাবেক কাউন্সিলর নাজিম উদ্দীন আহমেদ, আনোয়ার হোসেন লিপু, গাজী সিরাজ উল্লাহ, চান্দগাঁও থানা বিএনপির সভাপতি ও মোহরা ওর্য়াড কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আজম, পূর্ব ষোলশহর ওর্য়াড কাউন্সিলর প্রার্থী হাসান লিটন, মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী শাহে নেওয়াজ চৌধুরী মিনু, মোহরা ওর্য়াড বিএনপির সভাপতি জানে আলম জিকু, সাধারণ সম্পাদক মো. ফিরোজ খান, বিএনপি নেতা মো. ইদ্রিছ মিয়া, আব্দুল আজীজ, এস এম নুরুল আলম, আব্দুল্লাহ আল সগীর, জসিম উদ্দীন, মো. ইলিয়াছ শেকু প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি