মানিকছড়িতে করোনা উপসর্গে গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যু

231

নিজস্ব প্রতিনিধি, মানিকছড়ি :

খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলায় এই প্রথম করোনার উপসর্গ নিয়ে এক গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। প্রশাসনের উদ্যোগে মৃত্যু ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহে মেডিক্যাল টিম, দাফন-কাফনে স্বেচ্চাসেবী দল ও পুলিশ সরজমিনে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৩  নম্বর যোগ্যাছোলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পাড়ার বাসিন্দা মো. কোরবান আলীর মেয়ে গার্মেন্টস কর্মী শারমিন আক্তার (২৩) গত ১৯ মে প্রশাসনের অজান্তে গ্রামের বাড়িতে আসে।

গত ৩/৪ দিন ধরে সে সর্দি, কাশি, জ্বর ও গলা ব্যাথায় ভুগছিল। অভিভাবকরা মেয়ের অসুস্থতার ধরন নিয়ে পল্লী চিকিৎসকের কাছে গেলে তারা উপজেলা হাসপাতালে যোগাযোগ করে চিকিৎসার কথা বললেও লোক-লজ্জার ভয়ে তারা চিকিৎসকের কাছে না এসে জ্বর ও ব্যাথার ওষুধ (প্যারাসিটামল)সেবন করান।

কিছুতেই ওই গার্মেন্টস কর্মীর শরীরে ‘করোনা উপসর্গ কমছিল না। ফলে ২৬ মে বিকাল ২.৩০মিনিটে তার মৃত্যু ঘটে। এ খবর  ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্র আতংক নেমে আসে।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রতন খীসা জানান,জ্বর, গলা ব্যাথা ও অন্যান্য উপসর্গে গার্মেন্টস কর্মীর মৃত্যুর খবর পেয়ে নমুনা সংগ্রহ করতে একটি মেডিক্যাল টিম পাঠানো হয়েছে।