মওলানা ভাসানীর জীবন সংগ্রাম থেকে শিক্ষা নিতে হবে

0
133

আলোচনা সভায় বক্তারা

মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খানা ভাসানীর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল বিকাল ৪টায় ভাসানী অডিটোরিয়ামে ভাসানী ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত ‘বিদ্যমান সংকট উত্তরণ ও মওলানা ভাসানীর জীবন সংগ্রাম’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ছিদ্দিকুল ইসলাম। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গফ্ফার খান। সভার প্রারম্ভে স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করেন প্রকৌশলী সঞ্জয় দাশ। আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন হায়দার সিদ্দিকী। বিশেষ আলোচক ছিলেন ভাসানী ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট কফিল উদ্দিন আহমদ চৌধুরী। নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নাগরিক ঐক্যের বীর মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব হোসেন, গণতান্ত্রিক দলের স্বপন সেন, গণসংহতি আন্দোলনের হাসান মারুফ রুমী, অধ্যাপক শিব প্রসাদ, গণমুক্তি ইউনিয়নের কমরেড রাজা মিয়া, অধ্যাপক সামসাদ ছাত্তার, মাষ্টার মোফাজ্জল হায়দার, মিয়া এমদাদ উল ইসলাম চৌধুরী, মো. হারুন, মোজাফ্ফর আহমদ, এম.এ সালাম, শাখাওয়াত হোসেন সানু, মো. রেজাউল করিম আগ্রাবাদী, মির্জা আবুল বশর প্রমুখ। প্রধান আলোচক বলেন, বিদ্যমান রাজনৈতিক সংকট উত্তরণে আমাদের মওলানা ভাসানীর জীবন সংগ্রাম থেকে শিক্ষা নিতে হবে। আগামীতে সমাজ পরিবর্তনের রাজনীতিতে ভাসানীর নীতি-আদর্শ দেশ-জাতিকে অনুপ্রাণিত করবে।
বিশেষ আলোচক বলেন, মওলানা ভাসানী আমাদের সবার রাজনৈতিক অভিভাবক। মওলানা ভাসানী ফাউন্ডেশনের সভাপতি ছিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, আমরা মহান নেতার আজীবনের লালিত স্বপ্ন কৃষক-শ্রমিক- মেহনতি মানুষের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য তাঁর প্রতিষ্ঠিত সংগঠন ন্যাপকে পুনর্গঠনের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছি। ন্যাপ পুনর্গঠিত হলে বাংলাদেশে সা¤্রাজ্যবাদ-আধিপত্যবাদ, সামান্তবাদ, লুটেরা ও পুঁজিবিরোধী আন্দোলন সংগ্রাম জোরদার হবে। বিজ্ঞপ্তি