বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মা ও মেয়ের মৃত্যু লোহাগাড়ায়

0
236

নিজস্ব প্রতিনিধি, লোহাগাড়া :

লোহাগাড়ায় একই স্থানে পৃথকভাবে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা গেছে মা ও মেয়ে। উপজেলার আধুনগর ইউনিয়নের ঘাটিয় পাড়ার এক পরিত্যক্ত জমিতে ওই মা-মেয়ের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। নিহত মা ও মেয়ে হলেন কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার মগনামা শরৎঘোনা এলাকার বাদশা মিয়ার স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩৭) ও মেয়ে ময়না আক্তার (১৩)। লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের বায়তুন নুর পাড়ায় কলোনিতে ভাড়া বাসায় থাকেন তারা। মেয়ে ময়না আক্তার মারা গেছে গত সোমবার শেষ বিকেলে ও মা রাশেদা বেগম একই স্থানে মারা গেছেন ১৮ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল বেলায়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার বিকেলে ময়না আক্তার ভাড়া বাসার অদূরে পরিত্যক্ত জায়গা থেকে কচু ও কলমিশাক তুলতে যায়। সেখানে অসাবধানতাবশত বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে জড়িতে প্রাণ হারায় সে। তাৎক্ষণিকভাবে ময়না আক্তারের মৃত্যু হলেও কেউ জানতে পারেনি। বিকেলবেলা বাসা থেকে বের হওয়ার পর মেয়ে ফিরে না আসায় মা তার সন্ধান করেছে। কিন্তু পায়নি। পরদিন মঙ্গলবার পুনরায় সন্ধান করতে গিয়ে স্থানীয়রা জানায়, ময়নাকে শাক সংগ্রহ করতে যেতে দেখেছে। সেখানে গিয়ে মেয়ের লাশ দেখতে পান মা রাশেদা বেগম। মেয়েকে উদ্ধারে এগিয়ে যেতেই তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ হারান ঘটনাস্থলেই।
স্থানীয় সূত্র জানায়, আধুনগর খানহাটের পুবপাশে ইসলামিয়া প্লাজার মক্কা ফার্নিচারের বিদ্যুৎ সংযোগ লাইনের ছেঁড়া তারে অসাবধানতাবশত জড়িয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয়রা আরো জানায়, উক্ত ফার্নিচার দোকানদার নিজের বসতঘরের বিদ্যুৎ লাইন থেকে দোকানে সংযোগ নেয়। যা নিয়মবহির্ভূত। বসতঘর ও দোকানের মধ্যস্থানে এ তার কখন ছিঁড়ে পড়েছে, তা কেউ জানে না।
চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি লোহাগাড়া জোনাল অফিসের ডিজিএম সারওয়ার জাহান জানান, সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে বিদ্যুতের ছেঁড়া তার উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনা তদন্তে দুই সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।
লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাকের হোসাইন মাহমুদ জানান, মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে। পরবর্তী সময়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।